বিচারপতি সোনিয়া সোটোমায়ার। জন্ম ২৫ জুন ১৯৫৪। যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্টের সহযোগী বিচারপতি। দেশটির সুপ্রিমকোর্টের ইতিহাসে তিনি প্রথম হিস্পানিক এবং তৃতীয় নারী বিচারপতি। ২২ মে দক্ষিণ কিংসটনের রোড আইল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘ডক্টর অব ল’ গ্রহণ করেন। বিশ্ববি

‘উহ্’ সময়কে আলিঙ্গন কর- সোনিয়া সোটোমায়ার

আজকের দিনটি তোমাদের প্রত্যেকের জীবনে এক অসাধারণ দিন। কারণ, তোমরা যা শেষ করতে চেয়েছিলে তা শেষ করতে পেরেছ। আমি খুব গর্বিত যে, আমি তার সাক্ষী হলাম। এ দিনটি শুরু, কোনো পরিসমাপ্তি নয়। শেষ ক’বছরে তোমরা যে অভিজ্ঞতা এবং স্মৃতি জোগাড় করেছ, এখান থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর দীর্ঘ সময় পর্যন্ত সেগুলো তোমাদের সহায়তা করবে।
জীবনের ‘উহ্’ সময়টা খুবই মূল্যবান। এটাকে যত বেশি লালন করতে পারবে পরবর্তী জীবনে তত বেশি ধরা দিবে ‘আহ্’ সময়টা। জ্ঞানী হয়ে ওঠার কালে ভুল, ব্যর্থতা, বিমূঢ়তা, হতাশা জরুরি অনুষঙ্গ। ‘খুব ভালো’ অভিজ্ঞতার চেয়ে ‘খুব একটা ভালো না’ অভিজ্ঞতাগুলো থেকে আমরা বেশি শিখতে পারি।
তুমি যখন প্রথমবারের মতো ‘আহ্’ সময়কে অর্জন করবে, তখন তোমার পেছনে পড়ে থাকবে ‘উহ্’ সময়টা। ‘আহ্’ সময়টা তোমাকে মনে করিয়ে দেবে এর উল্টোটা (উহ্ সময়টা), কী উদারভাবে শিক্ষা দিয়েছে তোমাকে। ওই সময়ে তোমার ভুল সিন্ধান্ত এবং ভুল শুরু বর্তমানের তোমাকে এগিয়ে দিচ্ছে ক্রমান্বয়ে। সব সময় মনে রাখবে, অন্যকে এভাবে চ্যালেঞ্জ নিতে শেখানোটা তোমার দায়িত্ব, যেটা তুমি পার করে এসেছ।  
স্বপ্ন খুব সহজেই সত্যি হয় না, কারণ এর অপর পাশে থাকে ভাগ্য এবং সহজাত প্রতিভা। এটা (স্বপ্ন) তখনই সত্যি হয়, যখন এটাকে সত্যি করার জন্য আমরা কঠিন পরিশ্রম করি। জীবনের প্রতিটি মুহূর্তকে আলাদা করে সজ্ঞায়িত কর, কাজে লাগাও।
আমি শিখেছি কীভাবে বিমূঢ়তাকে ডিঙ্গিয়ে যেতে হয়। কি ঘটল, সেদিকে তাকিয়েছি এবং চিন্তা করেছি, ঘটনাটা আমাকে কি শিখিয়ে গেল। তোমাদেরও উচিত সেটা করা। জগতে এমন কোনো ব্যাপার নেই যেখান থেকে আমরা শিখতে পারি না, এমনকি সেটা যদি হয় পার্টিতে গিয়ে বেশি খেয়ে ফেলা কিংবা পরীক্ষার হলে দেরিতে পৌঁছানো।   
আমি তোমাদের আহ্বান করছি, এ অনুষ্ঠান শেষে বেরিয়ে পড় বড় কোনো চাকরির সাক্ষাৎকারের উদ্দেশ্যে। যদি সহজ কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে না পারায় বিমূঢ়তার সঙ্গে নেতিয়ে পড়, তাতেও কোনো সমস্যা নেই। কঠিন পরিশ্রম কর, কেননা শুধু আত্মবিশ্বাস কখনও সাফল্যে অনূদিত হয় না।  
সামান্য ভীত হও। চ্যালেঞ্জগুলোকে উত্তেজনা নিয়ে গ্রহণ কর। আমি আমার জীবনের প্রতিটি পর্বকে এভাবেই গ্রহণ করেছি। এমনকি যখন সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেছি, তখনও। কিন্তু আমি আশাবাদী ছিলাম। আমার অভিজ্ঞতাগুলো আমার পাশে ছিল, সেগুলো আমাকে নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ নিতে সাহায্য করেছে।
তোমার এতদিনের পথচলাকে যারা মসৃণ করেছেন, তাদের প্রতিদান দাও, সাহায্য কর। আমি এখানে এসেছি, কারণ আমি তোমাদের সাহায্য করতে চাই। একইভাবে আমাকে সম্মান করে তোমরা আমাকে সাহায্য করছ। এটা মনে রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ যে, তুমি কোথা থেকে এলে এবং তোমার উত্থানটা কী উপায়ে হয়েছিল, কারা তোমাকে সাহায্য করেছিল। একটি শুঁয়োপোকা প্রজাপতি হয়েই তার মূলের দিকে ফিরে আসে!
আমি আশাকরি, তোমরা এখান থেকে তোমাদের স্মৃতিতে জীবনব্যাপী গর্ব নিয়ে বের হবে, সেটা ভালো-মন্দ যাই হোক। যদি ‘উহ্’ নিয়েও বেরোতে হয় তাহলে তাই নিয়েই বেরোবে। কঠিন পরিশ্রম কর, এটাই সাফল্যের চাবি। বড় স্বপ্ন দেখ, নতুন কিছু শেখার প্রক্রিয়াকে উপভোগ কর, অনেক অর্জন কর।
তোমাদের সবাইকে ধন্যবাদ।


ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ‘টিআইবি-ডিআইইউ ইয়েস
ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ
বিস্তারিত
চট্টগ্রামে ১০ দিনব্যাপী রবি-দৃষ্টির বিতর্ক
চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমি অডিটরিয়ামে রবি-দৃষ্টির আয়োজনে ১০ দিনব্যাপী বিতর্ক প্রতিযোগিতা
বিস্তারিত
ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে শীতকালীন সেমিস্টারের নবীনবরণ
নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দেশের অন্যতম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়
বিস্তারিত
ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্টে উচ্চশিক্ষা
মো. সাইফুল ইসলাম খান এইচএসসি পরীক্ষা শেষে মাথায় নতুন ভাবনাÑ কোন
বিস্তারিত
পড়তে চাইলে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ
আজকাল শিক্ষিত, উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্ত, অথবা নিম্নবিত্ত কারোর জীবনেই মিডিয়ার অনুপস্থিতি
বিস্তারিত
সম্ভাবনাময় বিষয় মাল্টিমিডিয়া অ্যান্ড ক্রিয়েটিভ
মো. সাইফুল ইসলাম খান মাল্টিমিডিয়া প্রযুক্তি ও সৃজনশীল আর্টসের মধ্যে সমন্বয়
বিস্তারিত