২০০৪ সালে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের এক সাহিত্য সভায় আমি তাকে রসিকতা করে বলেছিলাম, ‘হকভাই, আমি আপনাকে সব্যসাচী বলে সম্বোধন করব, না কবি বলে?’ তিনি একটু অপ্রস্তুত হয়ে আমার দিকে বাঁকা চোখে তাকালেন

তার কবিতা আমাকে ভাবিয়েছে

ঢাকায় আমার কবি হয়ে ওঠার যে উন্মেষকাল, সে সময় সৈয়দ শামসুল হক লন্ডন প্রবাসী। ফলে শুরুতেই একটা দূরত্ব ছিল আমাদের মধ্যে। এরপর বহুবার আমাদের দেখা হয়েছে, কথা হয়েছে কিংবা একই মঞ্চে কবিতাও পড়েছি। তবে আজ তার সঙ্গে আমার শেষ কথাটা মনে পড়ছে। ২০০৪ সালে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের এক সাহিত্য সভায় আমি তাকে রসিকতা করে বলেছিলাম, ‘হকভাই, আমি আপনাকে সব্যসাচী বলে সম্বোধন করব, না কবি বলে?’ তিনি একটু অপ্রস্তুত হয়ে আমার দিকে বাঁকা চোখে তাকালেন। সেই শেষ কথার রেশই এখন আমার মনের ভেতরে বাজছে।
১৯৯৯ সালে লন্ডনে কবিতা পাঠের একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। তখন টনি ব্লেয়ার যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী। সেই অনুষ্ঠানে শামসুর রাহমান, সৈয়দ শামসুল হক কবিতা পাঠ করেন। আমি অনুষ্ঠানের আয়োজকদের বলি সম্মানী ছাড়া আমি কবিতা পাঠ করব না। এ নিয়ে আমার সঙ্গে আয়োজকদের একটু কথার মনমালিন্যও হয়। কিন্তু তখন শামসুর রাহমান ও সৈয়দ শামসুল হক আমার পক্ষে তাদের অবস্থান তুলে ধরেননি। তারপর আয়োজকরা জানালেন, কবিতা পাঠের জন্য সব কবিকেই ৩০০ পাউন্ড করে সম্মানী দেয়া হবে।
আমাদের মধ্যে কবি রফিক আজাদই প্রথম নিজেকে বেশ্যার বেড়ালের সঙ্গে তুলনা করে, মানবিক মমতার সঙ্গে কবিতায় গণিকার গৌরবগাথা রচনা করেন। আরও কিছু পরে লন্ডন প্রবাসী কবি সৈয়দ শামসুল হক তার বৈশাখে প্রকাশিত পঙ্ক্তিমালা কাব্যগ্রন্থে গণিকাদের নিয়ে কবিতা লেখেন। এ দুই কবির লেখা গণিকাদের গৌরবগাথা ও প্রেম আমাকে খুব ভাবিয়েছে।
১৯৬৭ সালের এপ্রিলের কোনো এক সংখ্যায় কণ্ঠস্বর পত্রিকায় কবি রফিক আজাদের বেশ্যার বেড়াল কবিতাটি
ছাপা হয়েছিল।


আয়না সিরিজ
এনাম রাজু     এক   রাত কাটেÑ জলশূন্য মাছের মতো অথচ-আমি গাছে গাছে ঘুরি, চিৎকার আর্তনাদ নীরবতা
বিস্তারিত
আমরা হাঁটি শহীদ মিনারের দিকে
বিধ্বস্ত রক্ত ভেজা পলি, এভাবে গড়াগড়ি খায়Ñ হরিণির সাড়ে বারোহাত লাফ,
বিস্তারিত
নতুন যুগ
নতুন যুগ, তুমি তোমার ভালোবাসা দিয়ে আমাদের কাপড়, জ্বালানির কষ্ট মুছে
বিস্তারিত
প্রেমিক হব
প্রেমিক হওয়ার শখ? প্রেমিক হও, সন্ন্যাসি হও, বৈষ্ণব হও বিরহি হও, বাধা
বিস্তারিত
কবিতার বই ‘নিমগ্ন দহন’
বেশ কিছু কবিতা দিয়ে সাজানো হয়েছে ফখরুল হাসানের কবিতার বই
বিস্তারিত
প্রসন্ন সাঁঝের পাখি ও ভয়াল
পাটাতনে বসে আহত পালাসি-গাঙচিল বিস্ফারিত নয়নে আমাদের দেখছে। ধীরে ধীরে
বিস্তারিত