টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ফ্যাশন ডিজাইন গ্রাফিক্স ডিজাইন

স্বপ্ন এবার সুতোয় বোনার

বর্তমান বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের চাহিদা বেশ। উচ্চমাধ্যমিক পাস করার পর অনেক শিক্ষার্থীর ইচ্ছা থাকে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার। আবার অনেকে পড়তে চান ফ্যাশন ডিজাইন কিংবা গ্রাফিক্স ডিজাইন। আজ থাকছে এই বিষয়ের ভর্তি

বর্তমান বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের চাহিদা বেশ। উচ্চমাধ্যমিক পাস করার পর অনেক শিক্ষার্থীর ইচ্ছা থাকে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার। আর সবার পছন্দের তালিকায় টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বেশ ওপরের দিকেই অবস্থান করে। সরকারি-বেসরকারি মিলিয়ে প্রায় ১৯টি বিশ্ববিদ্যালয় এবং ৮টি কলেজ ও ইনস্টিটিউটে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ানো হয়।
টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার জন্য সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব টেক্সটাইলস (বুটেক্স)। এ বছরের ভর্তি পরীক্ষায় আটটি বিভাগে মোট ৫২০ শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হবে এখানে। ভর্তি পরীক্ষার যোগ্যতা হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে উচ্চমাধ্যমিকে কমপক্ষে জিপিএ ৪.৫০। পদার্থ, রসায়ন, গণিত ও ইংরেজি মিলিয়ে এইচএসসিতে মোট জিপিএ ১৯ থাকতে হবে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য ফরম তোলা যাবে ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত, ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ১৮ নভেম্বর। এছাড়াও মওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে টেক্সটাইল প্রকৌশল বিভাগে পড়া যায়।
বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মাঝে আহ্ছানউল্লা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে মোট খরচ হবে ৬ লাখ ৬৭ হাজার টাকা। এ জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক মিলিয়ে মোট জিপিএ ৮ থাকতে হবে। এইচএসসিতে কমপক্ষে ৩.৫ থাকতে হবে। প্রাইম এশিয়া থেকে পড়তে মোট খরচ পড়বে ৪ লাখ ৯৬ হাজার টাকা। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক মিলিয়ে মোট জিপিএ ৬ হলেই এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারবেন। সেই সঙ্গে প্রতিটিতে আলাদাভাবে ২.৫ থাকতে হবে। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে পড়তে মোট খরচ পড়বে ৫ লাখ ৯৫ হাজার টাকা। যোগ্যতা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক দুইটিতেই আলাদাভাবে জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে।
বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন অ্যান্ড টেকনোলজি থেকে পড়তে মোট খরচ হবে ৬ লাখ টাকা। এ জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে আলাদাভাবে কমপক্ষে জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে।
ফ্যাশন ডিজাইন
বাংলাদেশে ফ্যাশন ডিজাইনের ওপর ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি দেয়া হয় একমাত্র বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব টেক্সটাইলস থেকে। এছাড়াও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মাঝে শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনলজি থেকে ফ্যাশন ডিজাইনের ওপর ব্যাচেলর ডিগ্রি দেয়া হয়। এখানে পড়তে মোট খরচ পড়বে ৪ লাখ ৫২ হাজার টাকা। যোগ্যতা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে কমপক্ষে জিপিএ ২.০ থাকতে হবে। বিজিএমইএ ইউনিভার্সিটি অব ফ্যাশন অ্যান্ড টেকনোলজি থেকে ফ্যাশন ডিজাইন পড়তে মোট খরচ পড়বে ৫ লাখ ৪৮ হাজার টাকা। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে আলাদাভাবে কমপক্ষে জিপিএ ২.৫ থাকতে হবে।
গ্রাফিক্স ডিজাইন
শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইনের ওপর ব্যাচেলর ডিগ্রি নিতে মোট খরচ পড়বে ৪ লাখ ২৮ হাজার টাকা। এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইনের ওপর ব্যাচেলর ডিগ্রি দেয়া হয়। চারুকলা অনুষদে পরীক্ষা দিতে হলে এসএসসি ও এইচএসসিতে আলাদাভাবে জিপিএ ৩ (চতুর্থ বিষয় বাদে) থাকতে হবে এবং দুইটি মিলে জিপিএ ৬.৫ থাকতে হবে। এছারাও বিভিন্ন ইনস্টিটিউট থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইনের ওপর ডিপ্লোমা ও বিভিন্ন সার্টিফিকেট কোর্স করা যায়।


আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ পেলেন ৯০ প্রাণী
পোলট্র্রির বিজ্ঞানসম্মত স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা, সঠিকভাবে রোগবালাই নির্ণয়, চিকিৎসা এবং রোগ
বিস্তারিত
সবার উপরে বাবা-মা
যে-কোনো মানুষের গায়ে হাত তোলাই অপরাধ। আর সন্তান হয়ে বাবা-মায়ের
বিস্তারিত
স্মৃতির মানসপটে যুক্তরাজ্য সফর
বিদেশে যাওয়ার অভিজ্ঞতা হয়তো অনেকেরই হয়ে থাকে। তবে কলেজের প্রতিনিধি,
বিস্তারিত
ব্যবসার ধারণা : গড়তে চাইলে
নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে আপনাকে উদ্যোগী হতে হবে। আর উদ্যোক্তা
বিস্তারিত
৭৫ শতাংশ বৃত্তিতে আইটি ও
বিভিন্ন কারণে যারা আইটিতে দক্ষতা উন্নয়নের সুযোগ থেকে বঞ্চিত তাদের
বিস্তারিত
লক্ষ্য যখন কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিপরীতে ক্রমাগত উর্বরা জমির পরিমাণ কমছে। জনসংখ্যার এ
বিস্তারিত