নিঃসঙ্গের ছদ্মবেশে

মানুষের ছদ্মবেশে থাকি, আদতে রাক্ষস! একদিন রাক্ষসপুরীতে ছিলাম। কিন্তু
রাক্ষসদের সঙ্গে আমার বনিবনা হতো না। সবসময় খিটিমিটি লেগে থাকত। ভালোবেসে যে রাক্ষুসী
আমার পাশে ছায়াচ্ছন্ন দাঁড়িয়েছিল, এক সন্ধ্যার অজান্তে তাকে অন্য রাক্ষসেরা ভক্ষণ করে ফেলেছিল।
মনের দুঃখে, স্বপক্ষত্যাগী আমি মানুষের ছদ্মবেশে মানবসমাজে চলে এসেছি। আমিও কবিতা লিখি...এই
হচ্ছে মানুষের মধ্যে থেকেও আমার নিঃসঙ্গতার সংগোপন ইতিহাস। এই হচ্ছে মানুষের সমাবেশে থেকেও
আমার মানুষ হতে না পারার ইহলৌকিক যন্ত্রণা। কারণ, সৌন্দর্যলুব্ধক এক মোমের মানবীকে
ভালোবাসতে গিয়ে সম্পূর্ণ ভুলে গিয়েছিলাম যে, আমি গোত্রান্তরিত রাক্ষস। স্বগোত্রে আমার জন্য এক
রাক্ষুসী আত্মাহুতি দিয়েছিল। আর এদিকে আমি মোমের মানবীতে হাত ধরে আবেগে-আবেগেÑ যেই
বলেছি, রাক্ষুসী, প্রিয়ে, তোমাকেই আজ ভালোবাসি, তুমি আমার পাশে দাঁড়াও; কিন্তু সে ভয় পেয়ে
ছিটকে পালায়, আর রাক্ষসের ভয়ে মানবীরা চিরকাল ভীত বলে আমি নিঃসঙ্গ হয়ে যাই, যথাক্রমশ
নিঃসঙ্গ হয়ে উঠি। নিঃসঙ্গতা এমন একটি উদাহরণ, যে-কেউ গ্রহণে অনিচ্ছুক... হায় রে এমন নিঃসঙ্গ
থাকি সকাল থেকেই একটা শালিক কার্নিশে ভিজছে স্থিরচিত্রে, নিঃসঙ্গের ছদ্মবেশে আমি এখন ওই ভেজা
শালিক পাখি শালিকের ছদ্মবেশে কবিতা লিখি!


আয়না সিরিজ
এনাম রাজু     এক   রাত কাটেÑ জলশূন্য মাছের মতো অথচ-আমি গাছে গাছে ঘুরি, চিৎকার আর্তনাদ নীরবতা
বিস্তারিত
আমরা হাঁটি শহীদ মিনারের দিকে
বিধ্বস্ত রক্ত ভেজা পলি, এভাবে গড়াগড়ি খায়Ñ হরিণির সাড়ে বারোহাত লাফ,
বিস্তারিত
নতুন যুগ
নতুন যুগ, তুমি তোমার ভালোবাসা দিয়ে আমাদের কাপড়, জ্বালানির কষ্ট মুছে
বিস্তারিত
প্রেমিক হব
প্রেমিক হওয়ার শখ? প্রেমিক হও, সন্ন্যাসি হও, বৈষ্ণব হও বিরহি হও, বাধা
বিস্তারিত
কবিতার বই ‘নিমগ্ন দহন’
বেশ কিছু কবিতা দিয়ে সাজানো হয়েছে ফখরুল হাসানের কবিতার বই
বিস্তারিত
প্রসন্ন সাঁঝের পাখি ও ভয়াল
পাটাতনে বসে আহত পালাসি-গাঙচিল বিস্ফারিত নয়নে আমাদের দেখছে। ধীরে ধীরে
বিস্তারিত