নিঃসঙ্গের ছদ্মবেশে

মানুষের ছদ্মবেশে থাকি, আদতে রাক্ষস! একদিন রাক্ষসপুরীতে ছিলাম। কিন্তু
রাক্ষসদের সঙ্গে আমার বনিবনা হতো না। সবসময় খিটিমিটি লেগে থাকত। ভালোবেসে যে রাক্ষুসী
আমার পাশে ছায়াচ্ছন্ন দাঁড়িয়েছিল, এক সন্ধ্যার অজান্তে তাকে অন্য রাক্ষসেরা ভক্ষণ করে ফেলেছিল।
মনের দুঃখে, স্বপক্ষত্যাগী আমি মানুষের ছদ্মবেশে মানবসমাজে চলে এসেছি। আমিও কবিতা লিখি...এই
হচ্ছে মানুষের মধ্যে থেকেও আমার নিঃসঙ্গতার সংগোপন ইতিহাস। এই হচ্ছে মানুষের সমাবেশে থেকেও
আমার মানুষ হতে না পারার ইহলৌকিক যন্ত্রণা। কারণ, সৌন্দর্যলুব্ধক এক মোমের মানবীকে
ভালোবাসতে গিয়ে সম্পূর্ণ ভুলে গিয়েছিলাম যে, আমি গোত্রান্তরিত রাক্ষস। স্বগোত্রে আমার জন্য এক
রাক্ষুসী আত্মাহুতি দিয়েছিল। আর এদিকে আমি মোমের মানবীতে হাত ধরে আবেগে-আবেগেÑ যেই
বলেছি, রাক্ষুসী, প্রিয়ে, তোমাকেই আজ ভালোবাসি, তুমি আমার পাশে দাঁড়াও; কিন্তু সে ভয় পেয়ে
ছিটকে পালায়, আর রাক্ষসের ভয়ে মানবীরা চিরকাল ভীত বলে আমি নিঃসঙ্গ হয়ে যাই, যথাক্রমশ
নিঃসঙ্গ হয়ে উঠি। নিঃসঙ্গতা এমন একটি উদাহরণ, যে-কেউ গ্রহণে অনিচ্ছুক... হায় রে এমন নিঃসঙ্গ
থাকি সকাল থেকেই একটা শালিক কার্নিশে ভিজছে স্থিরচিত্রে, নিঃসঙ্গের ছদ্মবেশে আমি এখন ওই ভেজা
শালিক পাখি শালিকের ছদ্মবেশে কবিতা লিখি!


রুদ্রর শুভদৃষ্টি
শুরুতেই বলেছি, রুদ্রর মধ্যে যেটুকু প্রশংসা, তাকে খুঁজে দেখাই আমার
বিস্তারিত
আসন্নপ্রসবা কুকুর এবং...
আসন্নপ্রসবা কুকুরটি কঁকিয়ে ওঠলেÑ আমাদের মহল্লায় রাত নামে নির্জীব তাকিয়ে
বিস্তারিত
নতুন গোয়েন্দা আখ্যান
অলোকেশ রয় প্রাইভেট ডিটেকটিভ। চৌকস, সাহসী ও মেধাবী এ গোয়েন্দা
বিস্তারিত
সংরক্ষিত বনের কাঠমৌর, কুচকুচি ও
বাংলাদেশে প্রাকৃতিক বন বলে প্রায় কিছুই আর অবশিষ্ট নেই। ফোকলা
বিস্তারিত
প্রকাশ পেয়েছে ‘জীবনানন্দ’
জীবনানন্দ দাশকে নিয়ে চর্চার পত্রিকা ‘জীবনানন্দ’ প্রকাশিত হয়েছে। এর সম্পাদক
বিস্তারিত
স্ট্যাটাস
ধর্মও উঠে এসেছে ফেসবুকের নীল পর্দায় হায় সেলুকাস! এতে সওয়াব
বিস্তারিত