ডিজিটাল মার্কেটিং সামিটে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনের পাশাপাশি আলোকিত বাংলাদেশের প্রতিনিধির সঙ্গে আলাপকালে ফেসবুকের সৃজনশীল বাণিজ্য বিভাগের এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের পরিচালক ফারগাস-ও-হারে ফেসবুকে তথ্যের নিরাপত্তা, বাংলাদেশে ফেসবুকের বাজার পরিকল্পনাসহ বিভ

বাংলাদেশে প্রযুক্তিভিত্তিক ব্যবসা প্রসারের চিন্তা ফেসবুকের

ফেসবুক বিজ্ঞাপন প্রদর্শনে ব্যবহারকারীর পছন্দ ও মন্তব্য অনুসরণ করে বলে জানিয়েছেন ইন্টারনেটভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের সৃজনশীল বাণিজ্য বিভাগের এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের পরিচালক ফারগাস-ও-হারে।
সম্প্রতি ঢাকায় অনুষ্ঠিত ডিজিটাল মার্কেটিং সামিট-২০১৬ এ মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন উপলক্ষে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আসেন ফেসবুকের সৃজনশীল বিভাগের এ কর্মকর্তা।
ডিজিটাল মার্কেটিং সামিটে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনের পাশাপাশি আলোকিত বাংলাদেশের প্রতিনিধির সঙ্গে আলাপকালে তিনি ফেসবুকে তথ্যের নিরাপত্তা, বাংলাদেশে ফেসবুকের বাজার পরিকল্পনাসহ বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেছেন।
বাংলাদেশ ফেসবুকের জন্য একটি সম্ভাবনাময় বাজার উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখানে (বাংলাদেশ) ইন্টারনেটের গভীরে যাওয়াই প্রযুক্তিভিত্তিক ব্যবসার মূল ভিত্তি। ৫ বছরের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক স্থানীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান যুক্ত হবে ফেসবুকের সঙ্গে বাজার সম্প্রসারণে।
বাংলাদেশে ফেসবুকের বর্তমান বাজার নিয়ে মন্তব্য জানতে চাইলে ফারগাস বলেন, বাংলাদেশে এখন ১ কোটি ৭০ লাখের অধিক মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে। দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে প্রতিনিয়ত। এ থেকে সহজেই বোঝা যায়, ফেসবুকের জন্য বাংলাদেশ বড় একটি বাজার। তবে বিজ্ঞাপন খাতে বাংলাদেশ থেকে কত অর্থ ফেসবুকের আয় হয় এর সঠিক তথ্য তার জানা নেই বলে জানান তিনি।
এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সম্ভাবনা উল্লেখ করে ফারগাস বলেন, ভারত, ভিয়েতনামের মতোই বাংলাদেশের মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয়। খুব দ্রুতই ব্যবহারকারীও বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে মিল রেখে বাংলাদেশে ফ্রি ইন্টারনেটসেবা ও ফেসবুকের বিনামূল্যে ব্যবহারের সুবিধাও যুক্ত করা হয়েছে।
ইন্টারনেট দুনিয়ায় ফেসবুকের তথ্য বিজ্ঞাপন সংস্থার কাছে বিক্রির বিষয়টি স্বীকার করে ফারগাস বলেন, ব্যবহারকারীদের তথ্য নিরাপত্তাকে ফেসবুক ‘সর্বোচ্চ’ গুরুত্ব দিয়ে আসছে।
বিজ্ঞাপনে ব্যবহারকারীর কার্যক্রম অনুসরণ করা হলেও বার্তা আদান-প্রদানে ফেসবুক কোনো প্রবেশাধিকার রাখে না উল্লেখ করে ফারগাস বলেন, আপনার মনে এমন প্রশ্নœ জাগা স্বাভাবিক যে, ফেসবুক বিজ্ঞাপনের জন্য টার্গেট গ্রাহকদের কীভাবে নির্বাচন করে থাকে। গ্রাহকরা যেন তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী বিজ্ঞাপন দেখতে পারেন, সেজন্য ফেসবুকের অ্যালগরিদম এমনভাবে করা হয়, যেন কোনো ব্যবহারকারী কী পছন্দ করছেন সেগুলো সহজেই বোঝা যায়। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, ধরুন আপনি ল্যাপটপ সংক্রান্ত কোনো পোস্টে লাইক দিচ্ছেন বা ল্যাপটপবিষয়ক বিভিন্ন গ্রুপে যুক্ত আছেন, তখন ফেসবুক বুঝবে আপনি ল্যাপটপবিষয়ক পণ্যের প্রচারণার জন্য টার্গেট গ্রাহক। তখন আপনার হোম পেজে ওই পণ্যের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করবেন। এখানে ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত ইনবক্স পড়ছে না ফেসবুক। গ্রাহকদের সোশ্যাল অ্যাক্টিভিটি দেখেই ফেসবুকের অ্যালগরিদম কাজ করে।
বিজ্ঞাপনমুক্ত কোনো বিশেষ সংস্করণ আনা হবে কিনা এ ব্যাপারে আমার কাছে কোনো তথ্য নেই। তবে ফেসবুকের বিজ্ঞাপন গ্রাহকরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। কেননা যদি হোম পেজে কোনো বিজ্ঞাপন ব্যবহারকারীদের পছন্দ না হয় তাহলে রিপোর্ট বা এ পণ্যের বিজ্ঞাপন না দেখার জন্য রিপোর্ট করার সুবিধা রয়েছে।
আলোচনার শেষে ফারগাস তার দাফতরিক বিষয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, আমি মূলত ক্রিয়েটিভ শপ বিভাগে কাজ করি।  ক্রিয়েটিভ শপ বিভাগটি আকারে বেশ ছোট। এ বিভাগে কাজ করেন ১৬৯ জন কর্মী। এছাড়া বিভিন্ন ক্রিয়েটিভ কনটেন্ট ডিজাইনের কাজও করে এ বিভাগটি।


টোনাটুনির শাকসবজি খাওয়া
নতুন জায়গা ঘুরে দেখতে দেখতে টোনাটুনির খিদে পেয়ে গেল। খাবার
বিস্তারিত
যৌথ আয়োজনে বেসিস সফটএক্সপো
টেকনোলজি ফর প্রসপারিটি সেøাগান নিয়ে ১৯-২১ মার্চ তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক
বিস্তারিত
একুশে গ্রন্থমেলায় পাঠাওয়ের ‘অগ্রযাত্রার অগ্রদূত-২’
অন-ডিমান্ড ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম পাঠাও লিমিটেডের দ্বিতীয় বই ‘অগ্রযাত্রার অগ্রদূত-২’-এর মোড়ক
বিস্তারিত
বাজেটে অনলাইন ব্যবসায় করমুক্তি সুবিধা
জাতীয় ডিজিটাল কমার্স নীতিমালা ২০১৮ কার্যকরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় প্রকাশিত গেজেট
বিস্তারিত
প্রযুক্তিই পারে দুর্নীতি বন্ধ করতে
বাংলাদেশে প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের প্রতিটি খাতে দুর্নীতি কমানো সম্ভব
বিস্তারিত
তরুণরা নতুন উদ্ভাবনে উদ্বুদ্ধ হবে
আইসিটি সল্যুশন সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে বাংলাদেশে তাদের গ্লোবাল ফ্ল্যাগশিপ সিএসআর
বিস্তারিত