সেরা স্টার্টআপের খোঁজ

ফের শুরু সিডস্টার্স ওয়ার্ল্ড

‘উদ্ভাবনাকে উৎসাহিত করতে স্থানীয় সমস্যার সমাধানে আমাদের স্টার্টআপগুলোকে আরও এগিয়ে আসতে হবে’

টেকসই উদ্ভাবনী উদ্যোগে ১০ লাখ মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করতে বিশ্বের ৬৫টি দেশে উদ্ভাবনী প্রকল্প উপস্থাপন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে সুইজারল্যান্ডভিত্তিক স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠান সিডস্টার্স। বিকাশমান বাজারকে লক্ষ্য করে সেরা স্টার্টআপের খোঁজে ১৯ অক্টোবর দ্বিতীয়বারের মতো ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইউরোপের সবচেয়ে বড় এ স্টার্টআপ প্রতিযোগিতা। আইসিটি বিভাগ ও বেটার স্টোরিজের যৌথ উদ্যোগে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৬ সম্মেলনে অনুষ্ঠিত হবে সিডস্টার্স ঢাকা পর্বের প্রতিযোগিতা।
সিডস্টার্স ওয়ার্ল্ড ২০১৬ উপলক্ষে ১৩ অক্টোবর রাজধানীর জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি। সংবাদ সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের সচিব শ্যামসুন্দর সিকদার। আরও উপস্থিত ছিলেন হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, ওয়াইট বোর্ডের ম্যানেজার ফয়সাল কবির, সিডস্টার্স ওয়ার্ল্ডের এশিয়া প্রতিনিধি নিক ফেনেক, বেটার স্টোরিজ ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিনহাজ আনোয়ার এবং সিডস্টার্স ওয়ার্ল্ড ঢাকার প্রোগ্রাম লিড শাহরিয়ার রহমান।
সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে গেল বছরের ঢাকা পর্ব প্রতিযোগিতার উল্লেখযোগ্য বিষয় তুলে ধরেন সিডস্টার্স ওয়ার্ল্ডের এশিয়া প্রতিনিধি নিক ফেনেক। একই সঙ্গে এবারের প্রতিযোগিতাটি কীভাবে অনুষ্ঠিত হবে, সে বিষয়টি তিনি উপস্থাপন করেন।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, কায়িক শ্রম থেকে আমাদের দেশ আজ মেধানির্ভর আইসিটি খাতের দিকে ধাবিত হচ্ছে। আর জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে প্রযুক্তির যথাযথ ব্যবহারের জন্য আমাদের প্রয়োজন উদ্ভাবনী ধারণা। দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে, পশ্চিমা স্টার্টআপ ও করপোরেশনগুলো আমাদের স্থানীয় অভাব ও প্রয়োজনের সঙ্গে পরিচিত নয়। তাই উদ্ভাবনার ক্ষেত্রে আমাদের শ্রেষ্ঠত্ব নিশ্চিত করাটাই প্রধান লক্ষ্য হতে হবে। উদ্ভাবনাকে উৎসাহিত করতে স্থানীয় সমস্যার সমাধানে আমাদের স্টার্টআপগুলোকে আরও এগিয়ে আসতে হবে। বিকাশমান স্টার্টআপ প্রতিষ্ঠানগুলোকে শীর্ষ ইকোসিস্টেম থেকে আরও শিখতে হবে। আর এ কারণেই আইসিটি বিভাগ সিডস্টার্স ওয়ার্ল্ডের সঙ্গে সংযুক্ত হয়েছে। বিশ্বের ৬৫টি দেশে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করায় এর এক্সপোজারও বেশি। এ সুযোগটিই আমরা কাজে লাগাতে চাই। আমরা তাদের কাছ থেকে কারিগরি জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চাই। একইসঙ্গে বিশ্বকে জানিয়ে দিতে চাই, ভবিষ্যৎ পৃথিবীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশ প্রস্তুত রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এরই মধ্যে আমাদের রূপকল্প ২০২১-এর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন। তার আশীর্বাদপুষ্ট নির্দেশনা ও পরামর্শে দেশে অত্যাধুনিক হাইটেক অবকাঠামো গড়ে উঠছে। এখন আমরা স্টার্টআপ মানচিত্রে বাংলাদেশের নাম খোদাই করতে চাই। এজন্য এ বছর থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য সিডস্টার্স ওয়ার্ল্ড আঞ্চলিক সম্মেলনে একটি প্রতিনিধি দল পাঠাতে যাচ্ছি।
তিনি আরও জানান, সিডস্টার্স যে বিনিয়োগ করবে বাংলাদেশে তার সমপরিমাণ ম্যাচিং ফান্ডেরও ব্যবস্থা নেয়া হবে।


মেসেঞ্জারেও ‘ওয়াচ পার্টি’ ফিচার?
চলতি বছরের শুরুতে ‘ওয়াচ পার্টি’ ফিচারটি আনার পর বেশ জনপ্রিয়তা
বিস্তারিত
ফ্রিল্যান্সারদের ডিজিটাল পেমেন্ট দ্রুত দেশে
ফ্রিল্যান্সারদের ডিজিটাল পেমেন্ট স্বাধীন কার্ডের মাধ্যমে দ্রুততম সময়ের মধ্যে দেশে
বিস্তারিত
ইনটেলের জিওন সিরিজের ৪৮ কোরের
ইনটেল উন্মোচন করেছে জিওন সিরিজের ৪৮ কোরের ক্যাসকেড লেকের নতুন
বিস্তারিত
প্রাপকের চ্যাটবক্স থেকেও
মেসেঞ্জারে চালু হচ্ছে পাঠানো বার্তা মুছে ফেলার সুযোগ। বর্তমানে মেসেঞ্জারে
বিস্তারিত
স্মার্টকে নিয়ে ক্যাসপারস্কির বড় পরিকল্পনার
বুধবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এসবিটিএলের সহযোগিতায় সংবাদ সম্মেলনে ব্যবসা
বিস্তারিত
ই-ক্যাবের উদ্যোগে ‘বিজনেস টু ই-বিজনেস’
বাংলাদেশের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের ডিজিটাল কমার্সের আওতায় আনতে ই-কমার্স
বিস্তারিত