জে. কে. সিমন্স। অস্কার বিজয়ী অভিনেতা। ‘হুইপ্লাশ’ চলচ্চিত্রে অনবদ্য অভিনয়ের জন্য একাডেমি পুরস্কার পান ২০১৫ সালে। সঙ্গীতে পড়াশোনা করেছেন মনটানা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই তাকে সম্মানসূচক ডক্টরেট দেয়া হয় এ বছরের ১৪ মে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১৯তম স

অতীতের ঘরে বাস কর না

অপার সম্ভাবনার এক নতুন জীবনে তোমাদের সবাইকে অভিনন্দন। তোমাদের টুপিগুলো সামনের দিকে তুলে ধর, কারণ এ দিনটি হবে একটি স্মরণীয় দিন।     
আমি যখন ১৯৭৮ সালে এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক করেছি তখন কে সমাবর্তন ভাষণ দিয়েছিল তা এখন আর আমার মনে নেই। ভবিষ্যতের কোনো এক সময়ে তোমাদের কেউ যখন এখানে ভাষণ দিতে আসবে তখনও আমার নাম মনে রাখার প্রয়োজন নেই। তুমি তোমার চিন্তা দিয়ে, তোমার মগজ ব্যবহার করে বাঁচো। উপদেশ শোনাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ কিছু নয়। প্রত্যেক ব্যক্তি তার নিজ অভিজ্ঞতা থেকে উপদেশ দেয়ার চেষ্টা করে। সুতরাং একেকজনের উপদেশ একেকরকম, একেকজনের সফল হওয়ার পন্থাও একেকরকম। তুমি তোমার পন্থায় এগিয়ে যাও। তবে প্রত্যেক সফল ব্যক্তি এক জায়গায় এসে একমত হন, তা হলো পরিশ্রম। আমি এতটা অহঙ্কারী নই যে, আমি আশা করব এখানে আমি তোমাদের জীবন পরিবর্তন করতে এসেছি। তবে যে সময়টি চলমান (বর্তমান সময়) সে সময়টির প্রতি কান পেতে থাক, মনোযোগ দাও, সম্পূর্ণ মনোনিবেশ কর।
আমি একজন অভিনেতা। কিন্তু এখানে আমি আমি-ই। আমি অন্য কারও মুখোশ লাগিয়ে কথা বলতে চাই না। আমি আমার কথাগুলো বলতে চাই, আমার জন্য যা লেখা হয়েছে তা বলতে চাই না। এমনিভাবে তুমি তোমার কথাটা বল, অন্যের মুখের কথা নিজের মুখে এনে প্রতিধ্বনি করো না। স্বাতন্ত্র্য বজায় রেখ, অন্যথায় হারিয়ে যাবে।  
অতীতের ঘরে বসবাস কর না এবং ভবিষ্যৎ নিয়ে খুব বেশি দুশ্চিন্তা কর না। বর্তমানে সর্বোচ্চ ভালো কাজটি কর। আমি বোঝাতে চাইছি, তুমি যেখানে বর্তমানে শারীরিকভাবে উপস্থিত আছ, সেখানে মানসিকভাবে, আধ্যাত্মিকভাবে এবং আবেগ নিয়ে উপস্থিত থাক। তোমার সব মনযোগ হোক এই (বর্তমান) সময়টা নিয়ে। সম্পূর্ণভাবে জড়িয়ে থাক তোমার সম্মুখের কাজটি নিয়ে। দয়া করে অনিমেষনেত্রে ওই অভিশপ্ত স্মার্টফোনটির দিকে দিন-রাত তাকিয়ে থেক না।
কঠিন পরিশ্রম কর, মনোযোগ দিয়ে শোন এবং যাই কর না কেন, সম্পূর্ণভাবে জড়িয়ে থাক। পরিশ্রম ছাড়া কোনো কিছু আকাক্সক্ষা করো না। নিজের প্রতি যতœবান হও। সময়নিষ্ঠ হও। কাউকে কখনও তোমার জন্য অপেক্ষা করিয়ে রেখো না। প্রতিদিনের জীবনে আরও বেশি উপস্থিত হও। জীবনকে যাপন কর। যারা পেছনে কথা বলে তাদের কথা শুনবে না। তুমি যখনই কিছু করতে যাও না কেন, কেউ না কেউ দাঁড়িয়ে যাবে এটা বলার জন্য যে, এ কাজটি কর না। এটা তোমার জন্য নয় কিংবা এটা তুমি পারবে না। তাকে এড়িয়ে যাও, তুমি নিজে নিজেকে বল, এটা আমিই পারব।
ভালো থাকার আরেকটি গোপন মন্ত্র তোমাদের বলি। আমি আমার অস্কার ভাষণে এ কথাটি বলেছি, তোমরা নিশ্চয়ই শুনে থাকবে। তা হলো, ফোনটা তুলে নাও, কল কর তোমার বাবা কিংবা মাকে। যদি তুমি যথেষ্ট ভাগ্যবান হও অর্থাৎ তোমার যদি মা-বাবার একজন কিংবা উভয়েই বেঁচে থাকে তাহলে তাদের কল কর, দয়া করে এসএমএস কিংবা ই-মেইল করো না। তাদের বল, তুমি তাদের ভালোবাস এবং কান পেতে অপেক্ষা কর, যতক্ষণ পর্যন্ত না তারাও একই কথা বলছে। মা-বাবা থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার একটা ভয়াবহ ফলাফল আছে। এটা কখনও হতে দিও না।
আমার সঙ্গে এতক্ষণ থাকার জন্য তোমাদের ধন্যবাদ।


আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ পেলেন ৯০ প্রাণী
পোলট্র্রির বিজ্ঞানসম্মত স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা, সঠিকভাবে রোগবালাই নির্ণয়, চিকিৎসা এবং রোগ
বিস্তারিত
সবার উপরে বাবা-মা
যে-কোনো মানুষের গায়ে হাত তোলাই অপরাধ। আর সন্তান হয়ে বাবা-মায়ের
বিস্তারিত
স্মৃতির মানসপটে যুক্তরাজ্য সফর
বিদেশে যাওয়ার অভিজ্ঞতা হয়তো অনেকেরই হয়ে থাকে। তবে কলেজের প্রতিনিধি,
বিস্তারিত
ব্যবসার ধারণা : গড়তে চাইলে
নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে আপনাকে উদ্যোগী হতে হবে। আর উদ্যোক্তা
বিস্তারিত
৭৫ শতাংশ বৃত্তিতে আইটি ও
বিভিন্ন কারণে যারা আইটিতে দক্ষতা উন্নয়নের সুযোগ থেকে বঞ্চিত তাদের
বিস্তারিত
লক্ষ্য যখন কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিপরীতে ক্রমাগত উর্বরা জমির পরিমাণ কমছে। জনসংখ্যার এ
বিস্তারিত