নাচবে এ মন

ঐ যে দূরে রাখাল ছেলে
বাজায় মধুর বাঁশি,
একলা পথে আপন মনে
সুরের খেয়ায় ভাসি।

বিলের ধারে শাপলা-শালুক
হাতছানি দেয়, আয়Ñ
সাদা সাদা বকগুলো সব
ডাকছে ইশারায়।

হলুদ রঙা সোনার ধানে
মাঠটা গেছে ভরে,
দিন কেটে যায় চাষি ভাইয়ের
তাইতো খুশির ঘোরে।

সবার মুখে ফোটাক হাসি
এবার হেমন্ত,
সেই খুশিতে নাচবো আমি
নাচবে এ মন-ও!


ভাইয়ের ভালোবাসা
রুহানকে ভাইয়ের ভালোবাসা বোঝানোর জন্যই মামার এই কৌশল। এ কথা
বিস্তারিত
শরৎ সাজ
শরৎ সাজ পাই খুঁজে আজ শিউলি ফোটা ভোরে পল্লী গাঁয়ের মাঠে
বিস্তারিত
মশারাজ্যে
প্যাঁপো লাফাতে লাফাতে বলল, ‘আমি আগেই সন্দেহ করেছিলাম, আপনি বিদেশি
বিস্তারিত
আবার শরৎ এলো
নদীর ধারে শাদা ফুলের দোলা,
বিস্তারিত
জাতীয় কবি
ছোট্টবেলায় বাবা মারা যান অসহায় হন ‘দুখু’ সংসারে তার হাল ধরা
বিস্তারিত
বিদ্রোহী নজরুল
চুরুলিয়ার সেই ছেলে তুমি  কবিতার নজরুল, রণাঙ্গনের বীর সৈনিক প্রাণেরই বুলবুল। কেঁদেছো তুমি দুখীর
বিস্তারিত