পুঁটি বড়দের ডাকতে ডাকতে জোরে সাঁতরে চলল। পুঁটির ডাক শুনে বড় মাছগুলো কী হয়েছে, কী হয়েছে করে ছুটে এলো। পুঁটির মুখে সব শুনে সবাই ছুটল টেংরাকে উদ্ধার করতে

টেংরা উদ্ধার অভিযান

ছোট্ট একটি নদী। নদীভরা মাছ। বড় মাছ, মেজ মাছ, ছোট মাছ, নানারকম মাছ। ছোট মাছগুলো সারা দিন ঢেউয়ের তালে দুলে দুলে ওদের পাড়ায় খেলা করে। কিন্তু খেলে বেড়ালে কী হবে! নদীতেও আছে তাদের নানারকম শত্রু। একদিন খেলতে খেলতে পুঁটি দেখল টেংরা অন্য একটি অপরিচিত মাছের পিছু পিছু ভেসে যাচ্ছে। একি টেংরা ভেসে তাদের এলাকার বাইরে চলে যাচ্ছে। পুঁটি বলল, টেংরা ভেসে যাচ্ছে, টেংরা ভেসে যাচ্ছে..., বাঁচাও বাঁচাও...।

সবাই হায় হায় করে উঠল। এখন কী উপায় হবে! টেংরা ভেসে যাচ্ছে। ওখানে ওতপেতে আছে ইয়া বড় কুমির। সেখানে গেলে টপ করে গিলে নেবে টেংরাকে। কিংবা বড়মাছটাও তো ওকে খেয়ে নিতে পারে। তাই সবাই মিলে চলল টেংরাকে উদ্ধার করতে। কিন্তু টেংরা তো ঢেউয়ের টানে হু হু করে ভেসে যাচ্ছে। টেংরা টেংরা করে ওরা ডাকলেও সে ডাক টেংরার কানে পৌঁছায় না। কোনোরকম সাঁতরে ওরা টেংরাকে আটকালেও টেংরা ঢেউয়ের টানে ওদিকেই ভেসে যাচ্ছে। ঢেউয়ের সঙ্গে কি ওই ছোট ছোট মাছ পারে! অগত্যা ওরা টেংরাকে টেনে তোলার চেষ্টা করল সবাই মিলে। কিন্তু ওরা তো সবাই ছোট। তাই টেংরাকে টেনে তোলা ওদের জন্য বেশ কষ্টকর। তাই চিংড়ি বলল, আমরা পারব না। যাও বড় কাউকে ডেকে আনো। পুঁটি বলল, তোমরা ওকে শক্ত করে ধরে রাখ যেন ঢেউ টেনে নিয়ে যেতে না পারে। আমি বড় কাউকে ডেকে আনি।

পুঁটি বড়দের ডাকতে ডাকতে জোরে সাঁতরে চলল। পুঁটির ডাক শুনে বড় মাছগুলো কী হয়েছে, কী হয়েছে করে ছুটে এলো। পুঁটির মুখে সব শুনে সবাই ছুটল টেংরাকে উদ্ধার করতে। তারপর টেংরাকে উদ্ধার করে সঙ্গে নিয়ে নিজেদের এলাকায় ফিরে এলো। পুঁটির বুদ্ধি দেখে ওরা সবাই খুব খুশি হলো। সবাইকে বলল, তোমরা কোনো বিপদে পড়লে সঙ্গে সঙ্গে বড়দের জানাবে। আর নিজেদের এলাকা ছেড়ে অন্য এলাকায় যাবে না। আর অপরিচিত কোনো মাছের সঙ্গে তো নয়ই। টেংরা মাথা নিচু করে বলল, ওই বড় মাছটা আমাকে মজার জিনিস দেখাবে বলেছিল। পুঁটি বলল, মজার জিনিস দেখাবে বলল আর তুমি ওর সঙ্গে চলে গেলে? আজ কত বড় বিপদ হতো ভেবে দেখেছ? সবাই তাদের ভুল বুঝতে পারল।


ভাইয়ের ভালোবাসা
রুহানকে ভাইয়ের ভালোবাসা বোঝানোর জন্যই মামার এই কৌশল। এ কথা
বিস্তারিত
শরৎ সাজ
শরৎ সাজ পাই খুঁজে আজ শিউলি ফোটা ভোরে পল্লী গাঁয়ের মাঠে
বিস্তারিত
মশারাজ্যে
প্যাঁপো লাফাতে লাফাতে বলল, ‘আমি আগেই সন্দেহ করেছিলাম, আপনি বিদেশি
বিস্তারিত
আবার শরৎ এলো
নদীর ধারে শাদা ফুলের দোলা,
বিস্তারিত
জাতীয় কবি
ছোট্টবেলায় বাবা মারা যান অসহায় হন ‘দুখু’ সংসারে তার হাল ধরা
বিস্তারিত
বিদ্রোহী নজরুল
চুরুলিয়ার সেই ছেলে তুমি  কবিতার নজরুল, রণাঙ্গনের বীর সৈনিক প্রাণেরই বুলবুল। কেঁদেছো তুমি দুখীর
বিস্তারিত