গ্রন্থের ভবিষ্যৎ

অন্য খবর

গ্রন্থ নিয়ে বিচিত্র ভাবনাচিন্তা! কোথাও বইকে আক্ষরিক অর্থে ছাইয়ে পরিণত করে সাজিয়ে রাখা আশ্চর্য সুন্দর আধার বা পাত্রে, কোথাও আবার শতবর্ষ পরের এক গ্রন্থ-সংকলনের পরিকল্পনা চলছে এখন থেকেই, ভবিষ্যতের পাঠকের জন্য।
ইতালীয় শিল্পী আন্তোনিও রিয়েল্লো এক অভিনব শিল্পপ্রদর্শনীতে তার প্রিয় কয়েকটি বই পুড়িয়ে ছাইগুলো ভরে রেখেছিলেন কাচের ‘আর্ন’ বা ভস্মাধারে, বইগুলোকে মুহূর্তে এক পবিত্র অথচ অপাঠ্য, অস্পৃশ্য বস্তুতে পরিণত করে! প্রদর্শনীর নাম ‘অ্যাশেজ টু অ্যাশেজ’।
অন্যদিকে কেটি প্যাটারসন নামের আরেক শিল্পী গড়ে তুলেছেন ‘ফিউচার লাইব্রেরি’। স্বনাম খ্যাত সাহিত্যিকদের কাছ থেকে তিনি চেয়ে নিচ্ছেন অপ্রকাশিত পা-ুলিপি, সেগুলো সযতেœ রাখা থাকবে একটি গ্রন্থাগারে এবং প্রকাশিত হবে ২১১৪ সালে। অসলোর নর্ডমারকা জঙ্গলে কেটি ২০১৪ সালে এক হাজার গাছ রোপণ করেছিলেন, সেই গাছ থেকে নির্মিত পৃষ্ঠাতেই ১০০ বছর পর ছাপা হবে বই। এখন পর্যন্ত পা-ুলিপি জমা দিয়েছেন মার্গারেট অ্যাটউড, ডেভিড মিচেল এবং আইসল্যান্ডের বিখ্যাত সাহিত্যিক শন।


আরব ছোটগল্পের রাজকুমারী
সামিরা আজ্জম ১৯২৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের আর্কে একটি গোঁড়া
বিস্তারিত
অমায়ার আনবেশে
সাদা মুখোশে থাকতে গেলে ছুড়ে দেওয়া কালি  হয়ে যায় সার্কাসের রংমুখ, 
বিস্তারিত
শারদীয় বিকেল
ঝিরিঝিরি বাতাসের অবিরাম দোলায় মননের মুকুরে ফুটে ওঠে মুঠো মুঠো শেফালিকা
বিস্তারিত
গল্পের পটভূমি ইতিহাস ও বর্তমানের
গল্পের বই ‘দশজন দিগম্বর একজন সাধক’। লেখক শাহাব আহমেদ। বইয়ে
বিস্তারিত
ধোঁয়াশার তামাটে রঙ
দীর্ঘ অবহেলায় যদি ক্লান্ত হয়ে উঠি বিষণœ সন্ধ্যায়Ñ মনে রেখো
বিস্তারিত
নজরুলকে দেখা
আমাদের পরম সৌভাগ্য, এই উন্নত-মস্তকটি অনেক দেরিতে হলেও পৃথিবীর নজরে
বিস্তারিত