তারুণ্যের মুক্তিযুদ্ধ

অফিস রুমের ওপরে বোমা সেট করি

নাইমা খান। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন তিনিও দেশে ছিলেন। তখন দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী তিনি। এ সাক্ষাৎকার নেয়ার সময় কথা প্রসঙ্গে চলে এলো মুক্তিযুদ্ধের কথা। কেমন দেখেছিলেন ঢাকার দেশের সেই উত্তাল সময়? উত্তরে জানা যায়, এক বীরত্বপূর্ণ ঘটনা। পাঠক তার সাহসিকতা বর্ণনাটি তুলে ধরা হলো আপনাদের জন্যÑ
‘আমাদের তখন ক্লাস শেষ। মাধ্যমিক পরীক্ষা দেয়ার কথা। এর মাঝে অনেকেই পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছে। আমার আসলে এ অবস্থার মধ্যে পরীক্ষা দেয়ার ইচ্ছে ছিল না। সে সময় আমাদের স্কুল অর্থাৎ আজিমপুর গার্লস স্কুলে ক্লাস চলছিল। এটি আমার ভালো লাগেনি। কারণ স্কুল চলার ফলে মেয়েরা প্রতিদিন স্কুলে যাচ্ছিল ঝুঁকি নিয়ে। আর এটা তো শুধু জীবন হারানোর ঝুঁকি ছিল না। ছিল সম্ভ্রম হারানোর ঝুঁকিও। এ সময় আমাদের প্রতিবেশী ছিলেন চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন। তার কাছে ঘটনাটা বলার পর তিনি আমাকে দেশীয় বোমা দিলেন। সেই সঙ্গে সবকিছু সেট করার বা বিস্ফোরণ ঘটানোর কৌশলও শিখিয়ে দিলেন। আমি আমার ছোট বোনকে নিয়ে স্কুলে যাই অপারেশনটা চালানোর জন্য। স্কুলে গিয়ে হেডমাস্টারের অফিস রুমের ওপরের রুমে আমরা বোমাটা সেট করি। আমাকে বলে দেয়া হয়েছিল সেট করে দেয়ার পর এটা বিস্ফোরণের জন্য সময় পাওয়া যাবে পাঁচ মিনিট। এ সময়ের মধ্যে আমাদের স্কুল থেকে বের হয়ে যেতে হবে। আমরা বোমাটা সেট করে গেট ক্রস করতেই বিস্ফোরণ হয়। এরপর স্কুলটা বন্ধ হয়। হয়তো এ কারণে অনেক মেয়েই জীবন ও সম্ভ্রম রক্ষা পেয়েছিল। এখন ভাবলে অবাক লাগে, কীভাবে এত সাহস পেয়েছিলাম সেদিন। কারণ দুইটি ভয় ছিলÑ ধরা পড়ে যাওয়ার ভয়, আরেকটি হলো বোমা সেট করতে গিয়ে বিস্ফোরণের সময় মারা যাওয়ার ভয়।’


আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ পেলেন ৯০ প্রাণী
পোলট্র্রির বিজ্ঞানসম্মত স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা, সঠিকভাবে রোগবালাই নির্ণয়, চিকিৎসা এবং রোগ
বিস্তারিত
সবার উপরে বাবা-মা
যে-কোনো মানুষের গায়ে হাত তোলাই অপরাধ। আর সন্তান হয়ে বাবা-মায়ের
বিস্তারিত
স্মৃতির মানসপটে যুক্তরাজ্য সফর
বিদেশে যাওয়ার অভিজ্ঞতা হয়তো অনেকেরই হয়ে থাকে। তবে কলেজের প্রতিনিধি,
বিস্তারিত
ব্যবসার ধারণা : গড়তে চাইলে
নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে আপনাকে উদ্যোগী হতে হবে। আর উদ্যোক্তা
বিস্তারিত
৭৫ শতাংশ বৃত্তিতে আইটি ও
বিভিন্ন কারণে যারা আইটিতে দক্ষতা উন্নয়নের সুযোগ থেকে বঞ্চিত তাদের
বিস্তারিত
লক্ষ্য যখন কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিপরীতে ক্রমাগত উর্বরা জমির পরিমাণ কমছে। জনসংখ্যার এ
বিস্তারিত