সনডা রাইমস। মার্কিন লেখক, পরিচালক, টিভি প্রযোজক ও চিত্রনাট্যকার। এমি ও গোল্ডেন গ্লোব জয় করা চিকিৎসাবিজ্ঞান সংশ্লিষ্ট মার্কিন টিভি নাটক ‘গ্রেস অ্যানাটমি’র রচয়িতা ও পরিচালক হিসেবে তিনি বিশ্বব্যাপী পরিচিত। নিজের আলমা মাটার ডর্টমাউথ কলেজে ২০১৪ সালে সমাবর্তন ব

নিখুঁত কিংবা নির্ভুল বলে কিছু নেই, কাজটাই আসল কথা --সনডা রাইমস

এটা অদ্ভুত যে, আমি ডর্টমাউথে বক্তৃতা দিতে এসেছি। আমি একজন লেখক, বক্তৃতা দেয়া আমার কাজ নয়। উপরন্তু আমি এতে অভ্যস্তও নই এবং বলা বাহুল্য, উপযুক্তও নই। ডর্টমাউথের প্রেসিডেন্ট আমাকে ছয় মাস আগে এই বক্তৃতা করার কথা জানিয়েছেন। আমার জীবনে এই ছয় মাস কেটেছে একই সঙ্গে উত্তেজনা আর আতঙ্কে। সত্যি বলছি, আমার গলা শুকিয়ে আসছে, হার্টবিট দ্রুত হচ্ছে। কিন্তু তারপরও আমি এখানে এসেছি এবং বক্তৃতা করছি! কেন জান? কারণ আমি ‘চ্যালেঞ্জ’ পছন্দ করি। আরও একটি কারণ আছে, তা হলোÑ এ বছর আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমি সে কাজগুলো করব, যেগুলো আমি ভয় পাই।
আমি তোমাদের মা-বাবার কথা বলতে চাই। তোমার ওইখানটায় বসার প্রায় ২০ বছর পর আজ আমি মা, তিন সন্তানের জননী। তাই আমি কিছু বিষয় জানি, একদম ভিন্ন কিছু বিষয়, যা তোমরা জান না। তুমি ভাবছ, আজকের দিনটা শুধুই তোমার। কিন্তু না, আসলে এ দিনটা তোমার মা-বাবারও। কীভাবে তোমাদের মা-বাবারÑ এ কথার অর্থ এই মুহূর্তে তোমাদের বোঝার কথা নয়।
এখানে যারা বক্তৃতা দিতে আসে তারা বিভিন্ন স্বপ্নের কথা বলে। তারা বলে, তুমি তোমার স্বপ্নকে অনুসরণ কর, তোমার ভেতরের কথা শোন, পৃথিবীটা বদলে দাও... আরও কত কী! আমি এসব কথাকে খুব একটা গুরুত্ব দিই না। আমি বলি, নড়ে ওঠো, কাজটা এখনই শুরু করে দাও।
নিখুঁত কিংবা নির্ভুল বলে পৃথিবীতে কিছু নেই। যা নিখুঁত তা বিরক্তিকর, ক্লান্তিকর। স্বপ্ন বলেও পৃথিবীতে কিছু নেই। কারণ স্বপ্নটা তখনই স্বপ্ন যখন সেটা বাস্তবে রূপ নেয়, তার আগে নয়। তাই কাজটাই মূলকথা। তুমি চিন্তা করেছ যে, তুমি ভ্রমণ করবে। ঠিক আছে, এখনই উঠে যাও, তোমার পুরনো হয়ে যাওয়া গাড়িটা বিক্রি করে ব্যাংককের টিকিট কিনে বেরিয়ে পড়। আমি সিরিয়াস!
তুমি লেখক হতে চাও, এখনই লিখতে শুরু কর। চাকরি নিতে চাইলে এখনই একটা নিয়ে নাও। নিখুঁত কিংবা পারফেক্ট কিছু পেলে ভালো; কিন্তু না পেলে বসে থেক না, যে কোনো একটি চাকরি নিয়ে নাও। জাদুকরী কোনো সুযোগের জন্য অপেক্ষা কর না। তুমি কিন্তু প্রিন্স উইলিয়াম নও! সুতরাং কাজ করে যাও ততক্ষণ পর্যন্ত যতক্ষণ না আরও ভালো কোনো কাজ পাচ্ছ।
জীবনে যা করবে, তাই ফেরত পাবে। যতটুকু করবে ততটুকুই ফেরত পাবে। যারা বসে থেকে পারফেকশন খোঁজে তারা এগোতে পারে না। কাজটা শুরু করার আগে ‘আমি বোধহয় পারব না’ এমনটা ভেব না। তোমার চেষ্টাটা তুমি অব্যাহত রাখ। যদি ভুল হয় তাহলে কাজের সঙ্গে ভুলটাও থাকুক, অস্থির হওয়ার কিছু নেই। বিখ্যাত মনীষী রালফ ওয়ালডো এমারসন বলেছেন, ‘জীবন হলো অনেকগুলো শিক্ষণীয় বিষয়ের সমন্বয়, যে বিষয়গুলো জানতে পুরো জীবন পার করতে হবে।’
সকাল থেকে সন্ধ্যাÑ এ পুরো সময়টাই আমি ব্যস্ত থাকি। অনেকেই আমাকে বলে, আপনি বেশ পরিশ্রম করতে পারেন। আমি বলি, পরিশ্রম কোথায়? আমি তো আনন্দ করছি। পরিশ্রম মনে করলে আমি টানা কাজ করতে পারতাম না। তাই প্রচুর পরিশ্রম কর, তবে অবশ্যই সেটাকে আনন্দে পরিবর্তিত করতে হবে।
জীবনটাকে নিতে হবে হালকাভাবে। জীবনের বাঁকে বাঁকে যত ঘটনা-দুর্ঘটনাÑ সব কিছুকে সহজভাবে মেনে নেয়ার ক্ষমতা থাকতে হবে। এ ক্ষমতা না থাকলে অনেক ঘটনাই জীবনকে থামিয়ে দিতে উদ্যত হবে। এ গুণটা অর্জন করে কেউ যদি নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ করে যায়, তাহলে সে ব্যক্তির থেমে থাকার আর কোনো কারণ দেখি না।
ইংরেজি থেকে সংক্ষেপিত
ভাষান্তর- মো. সাইদুর রহমান


আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ পেলেন ৯০ প্রাণী
পোলট্র্রির বিজ্ঞানসম্মত স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা, সঠিকভাবে রোগবালাই নির্ণয়, চিকিৎসা এবং রোগ
বিস্তারিত
সবার উপরে বাবা-মা
যে-কোনো মানুষের গায়ে হাত তোলাই অপরাধ। আর সন্তান হয়ে বাবা-মায়ের
বিস্তারিত
স্মৃতির মানসপটে যুক্তরাজ্য সফর
বিদেশে যাওয়ার অভিজ্ঞতা হয়তো অনেকেরই হয়ে থাকে। তবে কলেজের প্রতিনিধি,
বিস্তারিত
ব্যবসার ধারণা : গড়তে চাইলে
নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে আপনাকে উদ্যোগী হতে হবে। আর উদ্যোক্তা
বিস্তারিত
৭৫ শতাংশ বৃত্তিতে আইটি ও
বিভিন্ন কারণে যারা আইটিতে দক্ষতা উন্নয়নের সুযোগ থেকে বঞ্চিত তাদের
বিস্তারিত
লক্ষ্য যখন কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিপরীতে ক্রমাগত উর্বরা জমির পরিমাণ কমছে। জনসংখ্যার এ
বিস্তারিত