যে মুরগির পালক-রক্ত সবই কালো

বিরল প্রজাতির অদ্ভুত প্রকৃতির এক মুরগির সন্ধান মিলেছে ইন্দোনেশিয়ায়। গোটা শরীর কুচকুচে কালো। কালো ছাড়া আর কোনো রঙের ছিঁটেফোটাও নেই গায়ে। শরীরের ভেতরে বাইরে সবাই কালো। এমনকি বিস্ময়কর ঘটনা হচ্ছে রক্তও কালো। সামাজিক মাধ্যমে রীতিমতো ভাইরাল এখন অদ্ভুত এ মুরগি। আর কী বৈশিষ্ট আছে এ মুরগির? আসুন জেনে নিই—

নাম: বিরল প্রজাতির এ মুরগির নাম ‘অ্যায়াম কেমানি’।

রঙ: পালক, ঠোঁট, চোখ থেকে পায়ের নখ— সব কিছুই কালো। এমন কি এর চামড়া, জিহ্বাও কালো। স্থানীয় বাসিন্দারা নিশ্চিত করেছেন এ মুরগির রক্তের র‌ঙও কালো। এমনকি শরীরের ভিতর সব অঙ্গসহ হাড়ও কালো।

প্রকৃতি: ‘অ্যায়াম কেমানি’ নামের এই মুরগি শংকর প্রজাতির। তৈরি হয় প্রথম ইন্দোনেশিয়াতেই।

চাহিদা: ইন্দোনেশিয়াতে এই মুরগির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তবে প্রতিদিনের খাবার হিসাবে কেনেন না কেউই।

সংস্কৃতি: কালো কুচকুচে এ মুরগি নিয়ে অন্যরকম এ ধারনা আছে ইন্দোনেশিয়াতে। আগে বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠানে উৎসর্গ করা হয় এ মুরগিকে। তারপর খাওয়া হয়। ইন্দোনেশিয়ার মানুষ মনে করে, ঘরে কালো মুরগি থাকলে সুখ সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়।

কী বলছেন বিশেষজ্ঞেরা: এই প্রজাতির মুরগিগুলো ফাইব্রোমেলানোসিস নামে বিরল রোগে আক্রান্ত। শরীরে অতিরিক্ত মেলানিন থাকার কারণেই এতোটা কালো বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।


খবরটি পঠিত হয়েছে ১৪০৮০ বার

বাবার বয়স ১২, মায়ের ১৭!
বাল্য বিবাহ, কম বয়সে মা হওয়ার মতো জ্বলন্ত সমস্যা নিয়ে
বিস্তারিত
ভবনের ভেতর দিয়েই চলে ট্রেন!
ট্রেন বলতে আমরা বুঝি সমান্তরাল ধাতব পাতের উপরে চালিত এক
বিস্তারিত
ভাড়ায় মিলবে নাতি-নাতনি!
কবেই ফুরিয়ে গেছে যৌথ পরিবার! ব্যস্ত দুনিয়ায় দাদু-দিদিমার পাশে নাতি-নাতনিদের
বিস্তারিত
১১ বছরেই মা হওয়ার খবর,
যুক্তরাজ্যে ১১ বছরের এক শিশু মা হতে যাচ্ছে বলে খবর
বিস্তারিত
মানুষের ছায়া জাম্বিয়ার আকাশে!
আস্ত মানুষের ছায়া ভেসে বেড়াচ্ছে আকাশে! দেখে চোখ কপালে উঠেছিল
বিস্তারিত
যন্ত্রণাহীন মৃত্যুতে সাহায্য করে যে
সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘হেমলক সোসাইটি’ সিনেমার কথা মনে আছে? বেঁচে
বিস্তারিত