যে মুরগির পালক-রক্ত সবই কালো

বিরল প্রজাতির অদ্ভুত প্রকৃতির এক মুরগির সন্ধান মিলেছে ইন্দোনেশিয়ায়। গোটা শরীর কুচকুচে কালো। কালো ছাড়া আর কোনো রঙের ছিঁটেফোটাও নেই গায়ে। শরীরের ভেতরে বাইরে সবাই কালো। এমনকি বিস্ময়কর ঘটনা হচ্ছে রক্তও কালো। সামাজিক মাধ্যমে রীতিমতো ভাইরাল এখন অদ্ভুত এ মুরগি। আর কী বৈশিষ্ট আছে এ মুরগির? আসুন জেনে নিই—

নাম: বিরল প্রজাতির এ মুরগির নাম ‘অ্যায়াম কেমানি’।

রঙ: পালক, ঠোঁট, চোখ থেকে পায়ের নখ— সব কিছুই কালো। এমন কি এর চামড়া, জিহ্বাও কালো। স্থানীয় বাসিন্দারা নিশ্চিত করেছেন এ মুরগির রক্তের র‌ঙও কালো। এমনকি শরীরের ভিতর সব অঙ্গসহ হাড়ও কালো।

প্রকৃতি: ‘অ্যায়াম কেমানি’ নামের এই মুরগি শংকর প্রজাতির। তৈরি হয় প্রথম ইন্দোনেশিয়াতেই।

চাহিদা: ইন্দোনেশিয়াতে এই মুরগির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তবে প্রতিদিনের খাবার হিসাবে কেনেন না কেউই।

সংস্কৃতি: কালো কুচকুচে এ মুরগি নিয়ে অন্যরকম এ ধারনা আছে ইন্দোনেশিয়াতে। আগে বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠানে উৎসর্গ করা হয় এ মুরগিকে। তারপর খাওয়া হয়। ইন্দোনেশিয়ার মানুষ মনে করে, ঘরে কালো মুরগি থাকলে সুখ সমৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়।

কী বলছেন বিশেষজ্ঞেরা: এই প্রজাতির মুরগিগুলো ফাইব্রোমেলানোসিস নামে বিরল রোগে আক্রান্ত। শরীরে অতিরিক্ত মেলানিন থাকার কারণেই এতোটা কালো বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।


খবরটি পঠিত হয়েছে ১৫৩০০ বার

সুন্দর মহিষ খুঁজে বের করার
পাকিস্তানের সবচেয়ে সুন্দর আজিখেলি জাতের মহিষ খুঁজে বের করার প্রতিযোগিতায়
বিস্তারিত
বেশি আবেদনময়ী হওয়ায় নিষিদ্ধ!
আবেদনময়ী মানেই তো আবেদন বাড়িয়ে ছাড়েন; পান বাড়তি খাতিরও। সেখানে
বিস্তারিত
৯৮ বছর বয়সী বৃদ্ধার যোগাসনের
দক্ষিণ ভারতের ৯৮ বছর বয়সী এক বৃদ্ধা নানাম্মাল আম্মা ছোটবেলা
বিস্তারিত
বাঘ যখন পরিবারের সদস্য
‘গুপী গাইন বাঘা বাইন’ ছবির সেই দৃশ্যটা মনে আছে? যেখানে
বিস্তারিত
গাছের পাতা খেয়ে বেঁচে আছেন
কথায় বলে শরীরের নাম মহাশয়। যা সওয়াবে তাই সয়। এই
বিস্তারিত
৮ মাস বয়সের শিশুর ওজন
ভারতের অমৃতসরের চাহাতের বয়স মাত্র আট মাস। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয়
বিস্তারিত