টোনাটুনি বেড়াতে এলো

অবাক চোখে টুনির দিকে তাকিয়ে টোনা জানতে চাইলÑ ‘এত কিছু কীভাবে জানলে তুমি!’ টুনি হেসে জবাব দিলÑ ‘আমার দাদার কাছ থেকে জেনেছি। দাদা একবার বন্ধুদের সঙ্গে আমেরিকায় বেড়াতে গিয়েছিল না? সেখান থেকে শিখে এসেছে

উড়তে উড়তে এক নতুন জায়গায় এসেছে টোনাটুনি।
টোনা বলল, ‘এসেই যখন পড়েছি কয়দিন এখানে বেড়িয়ে যাই।’
‘তা মন্দ বলোনি। কিন্তু তোমার এখানে বেড়াতে কষ্ট হবে।’
টুনির কথায় অবাক হয়ে টোনা জানতে চাইলÑ ‘এ কথা বলছ কেন?’
‘এটা তো পাহাড়ি এলাকা। বন-বাদাড় নেই যে পেটপুরে ফলমূল খেতে পারবে। এখানে বড়জোর শাকসবজি খেতে পাবে। তুমি তো আবার শাকসবজি খেতে চাও না! তাই বললাম।’ কথাটা বলে মুচকি হাসল টুনি।
টুনির কথা শুনে মেজাজ গরম হলো টোনার। সে বলল, ‘এমনভাবে বলছ মনে হয় তুমি ফলমূল খাও না। শুধু শাকসবজি খেয়ে বেঁচে থাকো।’
টুনি বলল, ‘আমি তোমার মতো নই। শাকসবজি আর ফলমূল সবই খাই। কারণ সুস্থ থাকার জন্য দুটিই দরকার।’
‘ঠিক আছে তাহলে। এখানে যেহেতু শাকসবজি বেশি মেলে, সেহেতু এখানে কয়দিন বেড়িয়ে শাকসবজি খাওয়ার অভ্যাস তৈরি করে যাব।’
‘ভয় পেও না, এখানে কিছু কিছু ফলমূলও পাওয়া যায়। তবে আমাদের বনে যেমন হরেক পদের ফলমূল পাওয়া যায়, এখানে তেমন নয় এই যা।’ টুনি বলল।
টুনির কথায় আরেকবার মেজাজ গরম হলো টোনার। রাগের সুরে বলল, ‘তুমি দেখছি আমাকে নিয়ে ঠাট্টা করছ!’
‘রাগ করছ কেন? তুমি যেমন, আমি তা-ই তো বলেছি। এই যেমন তুমি টমেটো খেতে পছন্দ করো। শীতকালে কারও গাছে পাকা টমেটো দেখলেই উড়ে গিয়ে জুড়ে বসো। পাকা টমেটোতে আছে ভিটামিন-‘এ’ ও ‘সি’। তেমনি ফলমূলের মতো শাকসবজিতে রয়েছে ভিটামিন ‘বি’সহ আরও অনেক উপাদান। এসব ভিটামিন শরীরের স্বাভাবিক কার্যক্রম চালাতে এবং শরীর সুস্থ রাখতে খুব দরকার।’
অবাক চোখে টুনির দিকে তাকিয়ে টোনা জানতে চাইলÑ ‘এত কিছু কীভাবে জানলে তুমি!’
টুনি হেসে জবাব দিলÑ ‘আমার দাদার কাছ থেকে জেনেছি। দাদা একবার বন্ধুদের সঙ্গে আমেরিকায় বেড়াতে গিয়েছিল না? সেখান থেকে শিখে এসেছে। দাদা আরও কী বলেছে জানো?’
‘কী বলেছে?’
‘আমেরিকার পাখিরা নিয়ম করে শাকসবজি খায়। তাই তাদের রোগব্যাধি কম। তাদের শরীরে অনেক বল। অনেক বুদ্ধি। তাই শিকারিরা তাদের সহজে ফাঁদে ফেলতে পারে না। বলবুদ্ধির জোরে তারা নিজেদের বাঁচাতে পারে।’
‘তাই নাকি? তাহলে তো এখন থেকে নিয়মিত শাকসবজিও খেতে হয়।’ টোনা বলল।
‘ঠিক তাই। এখন তাহলে চলো জায়গাটা ঘুরে দেখি।’
‘হ্যাঁ, চলো।’
নতুন জায়গা ঘুরে দেখতে দেখতে টোনাটুনির খিদে পেয়ে গেল। খাবার খুঁজল তারা। একটা সবজি ক্ষেতে এসে দুইজনে আরাম করে খেতে লাগল। টোনার কিছুটা কষ্ট হচ্ছিল, তবু টুনির দেখাদেখি সেও খেতে থাকল।
তারপর যে কয়দিন তারা এখানে থাকল প্রতিদিন কিছু না কিছু শাকসবজি খেল।
একদিন টুনি বলল, ‘এখানে বেড়াতে এসে ভালোই হলো। তোমার শাকসবজি খাওয়ার অভ্যেস হলো।’
টোনা হেসে বলল, ‘এ তো তোমার কারণে।’
টুনি বলল, ‘তবে উপকারটা তো তোমারই।’
কথা শেষ হতেই একসঙ্গে হেসে উঠল দুইজন।


খবরটি পঠিত হয়েছে ৫৬৪০ বার

নানা-নাতির আলাপ
নানা বলে নাতিকে বলতে পারো এবার ঈদে হবে তোমার হাতি
বিস্তারিত
ঈদের চাঁদ
আকাশ ঢাকা একটু সাদা একটু কালো মেঘে, তুলোর মতো ভাসছে
বিস্তারিত
ঈদের দিনে
ঈদের দিনে আমীরুল ইসলাম ঈদের দিনে দিনমজুর এক গরিব বাবার ছোট্ট
বিস্তারিত
অন্যরকম দিন
ঝলমলানো ঈদের আকাশ আলোয় আলোময় সেই আলোরই ঝরনাধারায় ঈদটা সবার
বিস্তারিত
ঈদ তোমাকে স্বাগতম
ঈদ তোমাকে স্বাগতম তোমায় পেয়ে জীবন রঙিন আলোয় বাজাই আমার
বিস্তারিত
ঈদ ভাবনা
ওরে ও ভাই ঈদ আসছে অনুরাগের শিক্ষা নিয়ে সংযমের আলো
বিস্তারিত