কান ধরে সিজদা করানো সেই এসআই প্রত্যাহার

কক্সবাজারের পেকুয়ায় এক গাড়িচালককে মাঝরাস্তায় কান ধরে সিজদা করানো সেই পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।বৃহস্পতিবার দুপুরে চৌমুহনী চৌরাস্তায় এসআই তৌহিদুল ইসলাম মীর কাশেম (৫৫) নামের এক চালককে রাস্তায় কান ধরে সিজদা করতে বাধ্য করেন।ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর পুরো জেলায় সমালোচনার ঝড় বইতে শুরু করে। পরে সন্ধ্যায় ওই এসআইকে প্রত্যাহার করা হয়।

জানা যায়, চালক কাশেম কক্সবাজার সদরের নাজিরারটেকের বাসিন্দা।

মীর কাশেম বলেন, কক্সবাজার থেকে মালবোঝাই ট্রাক নিয়ে চট্টগ্রাম যাচ্ছিলাম। পেকুয়া চৌমুহনী এলাকায় আমাকে থামান ওই এসআই। গাড়ি থেকে নামতেই তার গায়ে গাড়ি লাগল কেন জানতে চেয়ে আমাকে কান ধরে রাস্তায় সিজদার নির্দেশ দেন। আমি আপত্তি জানালে অস্ত্রের ভয় দেখান। বাধ্য হয়ে অসংখ্য মানুষের সামনে কান ধরে সিজদা করি। আমার ছেলের বয়সী এক পুলিশ অফিসারের কাছে এমন লাঞ্ছনায় আমার আত্মহত্যা করতে ইচ্ছে করছে। আমি এর বিচার চাই।

এ বিষয়ে জানতে এসআই তৌহিদুল ইসলামের মোবাইল ফোনে কল করা হয়। কিন্তু ‘আনরিচেবল’ উত্তর আসায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

পেকুয়া থানার ওসি (তদন্ত) মনজুর কাদের মজুমদার বলেন, তৌহিদুল ইসলামকে পেকুয়া থানা থেকে কক্সবাজার পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় এ আদেশ পেয়েছি।

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার ড. ইকবাল হোসেন বলেন, তৌহিদুল ইসলামকে প্রত্যাহারের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।    


খবরটি পঠিত হয়েছে ৬৯৬০ বার

‘ইতিহাস বিমুখ হয়ে পড়ছে বর্তমান
দেশের সব কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রমে বাংলাদেশের ইতিহাস অন্তর্ভুক্তির দাবি জানিয়ে বেসামরিক
বিস্তারিত
‘সঠিকভাবে প্রস্তুত করতে হবে নতুন
শিক্ষা ভবিষ্যৎকে নির্মাণের জন্য সবচেয়ে বড় কাজ, তাই নতুন প্রজন্মকে
বিস্তারিত
ডিজিটাল দ্বীপ মহেশখালী
দেশের প্রত্যন্ত দ্বীপ মহেশখালী ডিজিটাল দ্বীপ হিসেবে যাত্রা শুরু করেছে।
বিস্তারিত
পবিত্র লাইলাতুল বরাত ১১ মে
আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দেশের আকাশে পবিত্র শাবান মাসের চাঁদ দেখা গেছে।
বিস্তারিত
‘মা, আমি তোমাদের জন্য অনেক
সুমাইয়া মাকে কিছুক্ষণ পরপরই বলছিল, ‘মা, চুমু দেও আমাকে’। মা’ও
বিস্তারিত
‘ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য সব করা
ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য যা যা করা দরকার, তা করে যাচ্ছেন
বিস্তারিত