অমর একুশে গ্রন্থমেলায় শামস সাইদ এর দুটি কিশোর উপন্যাস

অমর একুমে গ্রন্থমেলা ২০১৬-তে শামস সাইদের দুটি কিশোর উপন্যাস প্রকাশিত হয়েছে। শামস সাইদ মূলত গল্প উপন্যাসই লেখেন। তবে শামস সাইদের চিন্তা চেতনা একটু ভিন্ন। শিশু কিশোরদের জন্য তার প্রতিটি লেখাই শৈশবে হারিয়ে যাওয়ার মতো।

একুশে গ্রন্থমেলায় অনিন্দ্য প্রকাশ থেকে প্রকাশিত হচ্ছে শামস সাইদের কিশোর উপন্যাশ ‘অরমার গল্প’। এই উপন্যাসটি ভাষা শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের জীবানালক্ষে লেখা। আর উপন্যাসের মূল চরিত্র তার নাতি অরমা দত্ত। এ উপন্যাসে ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের জীবনের গল্প ফুটে উঠেছে তার নাতী অরমা দত্তের মুখে। অরমা দত্ত তার দাদুর জীবনের এক সময়ের কথাগুলো গল্পাকারে তার মুখেই শুনেছে। আবার এক জীবনে দাদুকে খুব কাছ থেকে দেখেছে। এক সময় অরমাও দাদুর মতো হতে চায়। কেন অরমা দাদুর মতো হতে চায়। তার আর কোন স্বপ্ন নাই কেন? অরমার এই স্বপ্নের কথা শুনে স্কুলে সবাই হাসে। আবার অরমার মুখে এই গল্প শুনে সবাই অরমার দাদুর মতো হতে চায়।

এ উপন্যাসে ফুটে উঠেছে বৃটিশ থেকে পাকিস্তান। পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশ। আমাদের ভাষা আন্দোলন। এখানে তুলে ধরা হয়েছে গান্ধি থেকে নেহেরু। জিন্নাহ থেকে মুজিব। স্বদেশি আন্দোলন থেকে স্বাধীনতার আন্দোলন। ইতিহাসের আলোকে রচিত হলেও ইতিহাস নয়। এর মধ্যে রয়েছে কাহিনী। রয়েছে সংলাপ। রয়েছে স্বপ্ন। বইটি শুধু শিশু কিশোরদের আনন্দই যোগাবে না। দেশ প্রেমেও উদ্ভুদ্ধ করবে। দেশকে ভালবাসতে শেখাবে। এমনই এক চরিত্র নিয়ে শামস সাইদের কিশোর উপন্যাস অরমার গল্প। বইটি প্রকাশ করেছে। অনিন্দ্য প্রকাশ। প্রচ্ছদ করেছেন, নিয়াজ চৌধুরী তুলি। মূল্য ১৫০ টাকা।

শামস সাইদের আর একটি কিশোর উপন্যাস ফজল মাস্টারের স্কুল। এই বইটি মূলত একটি স্কুলের কাহিনী নিয়ে লেখা। এর মধ্য দিয়ে ফুটে উঠেছে একটি চরের শিশু-কিশোরদেও লেখা পড়া নিয়ে সংগ্রামময় জীবনের কথা। অভাব অনটনের কথা। একজন ফজল মাস্টারের সংগ্রাম। চা দোকানদার রমেশের জীবন। কিভাবে তার ছেলে সুকান্ত শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান হলো। যে চরে কোন স্কুল ছিল না। সেই চরে একদিন কে মহাবিদ্যালয় হল। কেন ছাত্রদের চিঠি পেয়ে ফজল মাস্টার কাঁদলেন। কেন তার ছেলে এই চরে স্কুল করতে চেয়েছিল। আর ফজল মাস্টাই বা কেন সরকারি চাকরি ছেড়ে এই চরে স্কুল করলেন। যে রমেশ তার ছেলেকে স্কুলে পাঠাবেন না। সেই রমেশই একদিন স্কুলে গেল। রমেশ কেন ফজল হাসানকে দেবতা বললেন। এরকম হাজারও প্রশ্ন আর উত্তর নিয়ে এই উপন্যাস। তবে এর ভিতর রয়েছে গল্প। রয়েছে সময়। সংলাপ। শিক্ষকের আদর্শ। আবার দারিদ্রের কষাঘাত।
বইটি দরিদ্র ও মধ্যভিত্ত মানুষের জীবনের চিত্র। দরিদ্ররাও যে সুযোগ পেলে বড় হতে পারে। সেটাই এখানে দেখা গেছে। বইটি প্রকাশ করেছে বেহুলাবাংলা। প্রচ্ছদ করেছেন আল নোমান।


কথাশিল্পী হুমায়ুন আহমেদের জন্মদিন পালিত
বাংলা সাহিত্যের নন্দিত কথাশিল্পী ও চলচ্চিত্রকার হুমায়ুন আহমেদের ৭১তম জন্মদিন
বিস্তারিত
কথাশিল্পী হুমায়ুন আহমেদের ৭১তম জন্মদিন
বাংলা সাহিত্য-সংস্কৃতির অন্যতম পথিকৃৎ ,খ্যাতিমান কথাশিল্পী, চলচ্চিত্র-নাটক নির্মাতা হুমায়ুন আহমেদের
বিস্তারিত
শিল্পকলা একাডেমিতে কবিতায় বঙ্গবন্ধু
দেশের বিশিষ্ট বাচিক শিল্পীরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে
বিস্তারিত
কবি শামসুর রাহমানের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
আধুনিক বাংলা কবিতার অন্যতম শ্রেষ্ঠ কবি, লেখক ও সাংবাদিক শামসুর
বিস্তারিত
হুমায়ূন আহমেদের শেষ দিনগুলো
আমেরিকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২০১২ সালের ১৯শে জুলাই মারা যান বাংলাদেশের
বিস্তারিত
কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী
বাংলা সাহিত্যের বরেণ্য ব্যক্তিত্ব, খ্যাতিমান কথাশিল্পী, চলচ্চিত্র-নাটক নির্মাতা হুমায়ুন আহমেদের
বিস্তারিত