সাইবার অপরাধবিষয়ক কর্মশালায় আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ফিল্টার করে ব্যবহার করতে হবে ইন্টারনেট

তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, পানির অপর নাম জীবন হলেও সব পানি আমরা খাই না। বিশুদ্ধ পানি খাই। এজন্য দরকার ফিল্টারিং। তেমনি ইন্টারনেটও ফিল্টার করে ব্যবহার করতে হবে। না হয় জীবন হুমকির মুখে পড়বে।  

বুধবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট মিলনায়তনে ‘সাইবার সিকিউরিটি অ্যাওয়ারনেস ফর উইমেন এমপাওয়ারমেন্ট’ শীর্ষক এক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ কর্মসূচির আওতায় দেশব্যাপী ৮ বিভাগের ৪০টি স্কুল ও কলেজের প্রায় ১০ হাজার ছাত্রীকে সচেতন করা হবে। সরকারের তথ্য ও প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের আওতাধীন কন্ট্রোলার অব সার্টিফায়িং অথোরিটিজ (সিসিএ) এ কর্মশালার আয়োজন করে। 
সিসিএ’র নিয়ন্ত্রক আবুল মানসুর মোহাম্মদ সারফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি প্রফেসর মোঃ আখতারুজ্জামান, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক এস এম ওয়াহিদুজ্জামান এবং ফোর ডি কমিউনিকেশন্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল্লাহ আল ইমরান। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সিসিএ’র উপনিয়ন্ত্রক আবদুল্লাহ মাহমুদ ফারুক।  
তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, নির্দিষ্ট পরিসংখ্যান না থাকলেও পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে যৌথ আলোচনায় দেখা গেছে, দেশে সাইবার অপরাধের শিকার মানুষের বড় অংশটি অল্পবয়সী নারী বা কিশোরী মেয়েরা। এসব অল্প বয়সী মেয়ের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও থাকে বেশি। তিনি আরও বলেন, অল্প বয়সী মেয়েদের কেউ যখন সাইবার অপরাধের শিকার হয়, অনেক সময় তারা বুঝতে পারে না কী করবে, কাকে জানাবে। অনেকে এমনকি আদৌ কাউকে জানায়ও না। নীরবে হয়রানির শিকার হতে থাকে। এসব হয়রানি ঠেকাতে এবং সাইবার অপরাধের শিকার হলে করণীয় সম্পর্কে সচেতন করতেই স্কুলছাত্রীদের প্রশিক্ষণ দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। 
প্রতিমন্ত্রী কর্মশালার জন্য নির্বাচন করা সারাদেশের ৪০টি স্কুলে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব নির্মাণের ঘোষণা দেন। এছাড়াও কর্মসূচিটি আগামীতে ১০ লাখ শিক্ষার্থীর মধ্যে আয়োজনের পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি। 
কর্মশালাটি পরিচালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির অধ্যাপক কাজী শরিফুল ইসলাম। কর্মশালায় মাঠ পর্যায়ের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ কাওছার উদ্দীন। 


খবরটি পঠিত হয়েছে ৪৫৬০ বার

‘তরুণদের সক্ষমতা সারা বিশ্বে সমাদৃত’
শুধু ফান্ডিং দিয়ে একটি স্টার্টআপকে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে রূপান্তর করা যায়
বিস্তারিত
আইটিইটির চতুর্দশ কার্যনির্বাহী কমিটি নির্বাচিত
দি ইনস্টিটিউশন অব টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যান্ড টেকনোলজিস্টস (আইটিইটি) বাংলাদেশের চতুর্দশ
বিস্তারিত
উন্নত ইন্টারনেট সেবা আনল অজের
নির্ভরযোগ্য ইন্টারনেট সংযোগে নতুন মান নিয়ে এসেছে অজের। বাংলাদেশের করপোরেট
বিস্তারিত
টেসলা ছাড়লেন অটোপাইলট সফটওয়্যার প্রধান
বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার অটোপাইলট সফটওয়্যার প্রধান ক্রিস ল্যাটনার
বিস্তারিত
ঈদে ওয়ালটনের ২৬ মডেলের ল্যাপটপ
দুয়ারে কড়া নাড়ছে ঈদ। পুরোদমে চলছে ঈদের কেনাকাটা। সময়ের পরিবর্তনে
বিস্তারিত
মাইক্রোসফট কি-বোর্ডে আনল ফিংগারপ্রিন্ট সেন্সর
মার্কিন টেক জায়ান্ট মাইক্রোসফট ‘মডার্ন কি-বোর্ড’ উন্মোচন করেছে। টাইপিং ‘ঝামেলামুক্ত’
বিস্তারিত