আমল


আত্মীয়তার সম্পর্ক সুরক্ষা 
আফসোসের বিষয়, কোনো কোনো মুসলিম আজ বাবা-মা ও আত্মীয়স্বজনের অধিকার সম্পর্কে একেবারেই গাফেল। তারা আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে মিলনের সেতুবন্ধনকে ছিন্ন করে চলছে। তাদের কারও কারও বক্তব্য হচ্ছে, আত্মীয়রাই সম্পর্ক বজায় রাখছেন না। কিন্তু এ বক্তব্য তাদের কোনো উপকারে আসবে না। কারণ যে সম্পর্ক ঠিক রাখবে, শুধু তার সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রাখতে হবেÑ এ যদি নীতি হয়, তাহলে তা আল্লাহর জন্য হলো না বরং বদলাস্বরূপ। যেমনÑ আবদুল্লাহ ইবন আমর ইবন আস (রা.) সূত্রে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘সে আত্মীয়তার সম্পর্ক স্থাপনকারী বলে গণ্য হবে না, যে শুধু বদলাস্বরূপ সম্পর্ক বজায় রাখে; বরং সে সম্পর্ক স্থাপনকারী, যে তার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেও জুড়ে দেয়।’ (বোখারি : ৫৯৯১)। 
পক্ষান্তরে অপরপক্ষে সম্পর্ক শিথিল সত্ত্বেও নিজের থেকে সম্পর্ক স্থাপন করাই আসল পুণ্য। আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, জনৈক ব্যক্তি রাসুলুল্লাহ (সা.) এর কাছে এসে বলল : ‘আমার কিছু আত্মীয় এমন তাদের সঙ্গে সম্পর্ক যতই জুড়ি, ততই তারা ছিন্ন করে; যতই সৎ ব্যবহার করি, তারা দুর্ব্যবহার করে ; সহনশীলতা অবলম্বন করলেও তারা বুঝতে চায় না; তারা আমার সাথে মূর্খের আচরণ করে। তখন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, যদি ব্যাপার এমনই হয়, যেমন তুমি বললে, তাহলে তুমি যেন তাদের প্রতি গরম বালু নিক্ষেপ করলে, (যেন তুমি তাদের তা-ই খাইয়েছ) আর তুমি যেভাবে তাদের সঙ্গে ব্যবহার করে চলছ, তা যদি অব্যাহত রাখতে পার, তাহলে আল্লাহ সর্বদা তোমার সাহায্যকারী থাকবেন।’ (মুসলিম : ২৫৫৮)।
হআবু আফিফা


প্রথম পর্বের মোনাজাত
রোববার বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ
বিস্তারিত
ধৈর্যের প্রতিভূ আইয়ুব (আ.)
ধৈর্যের প্রতিভূ এবং আল্লাহর ওপর আস্থায় অনন্য উপমা প্রদর্শনকারীদের আলোচনা
বিস্তারিত
জিনদের মধ্যেও কি নবী এসেছিলেন
জিন জাতির মধ্য থেকে নবী ও রাসুল এসছেন কি না, এ
বিস্তারিত
দাওয়াত ও তাবলিগ উম্মাহর ঐক্য
দাওয়াত ও তাবলিগ। শেষ নবি হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর রেখে
বিস্তারিত
পৃথিবীতে কারও অমরত্ব নেই
হে গাফেল, নিয়তি আমাদের ঘিরে আছে। আমরা আছি একটি সফরে,
বিস্তারিত
শীতকালে যে সাত আমলের সুবর্ণ
শীত মোমিনদের জন্য ইবাদতের বসন্তকাল। শীত এলে ইবনে মাসউদ (রা.)
বিস্তারিত