ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে বাংলালিংক আইটি ইনকিউবেটর

আজকের বিশ্বকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে অন্যতম বড় শক্তি তারুণ্য। বিভিন্ন খাতে তাদের অবদান জিডিপি বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। বিগত বছরগুলোতে তরুণদের কর্মকা-ে ব্যাপক পরিবর্তন দেখা গেছে। তথ্যপ্রযুক্তির প্রসারের কারণে তরুণরা আরও বেশি শিল্পমুখী হয়েছে এবং এই উদীয়মান প্রজন্ম তাদের উদ্ভাবনগুলো কাজে লাগিয়ে নিজেদের কর্মসংস্থান নিজেরাই তৈরি করছে। তথ্যপ্রযুক্তির ক্রমবিকাশের ফলে ক্রমাগতভাবে বিশ্বের পরিবর্তন হচ্ছে এবং এ থেকে তরুণরা ব্যাপকভাবে লাভবান হচ্ছে। এই তরুণদের কাজে লাগিয়েই সরকার সম্ভাবনাময় স্টার্টআপ খাতে কর্মসংস্থান সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে গত বছর ফেব্রুয়ারিতে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে ‘কানেক্টিং স্টার্টআপ’ নামে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় এবং সেখানে ৫০টি স্টার্টআপ নির্বাচন করা হয়। একটি বিশাল সংখ্যক স্টার্টআপকে একত্র করা এবং তাদের উদ্ভাবনগুলো সামনে নিয়ে আসার জন্য এটি একটি চমৎকার প্লাটফর্মে। কানেক্টিং স্টার্টআপ আয়োজনটি সরকারি ও বেসরকারি খাতের একটি যৌথ উদ্যোগ। তারা স্টার্টআপগুলোকে সহায়তা করছে, যাতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসাগুলো উন্নতি লাভ করতে পারে। দেশের অন্যতম শীর্ষ ডিজিটাল কমিউনিকেশন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক এ উদ্যোগে ইনকিউবেশন এবং টেলিকম পার্টনার হিসেবে সহায়তা প্রদান করছে। এটি আগামী ১০ বছরে এক লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে অবদান রাখবে। আইটি ইনকিউবেশন সেন্টারের মাধ্যমে আমাদের কর্মসংস্থান খাতে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন এসেছে। স্টার্টআপগুলো তাদের উদ্ভাবনগুলো নিয়ে আসছে এবং ব্যবসায়ও উন্নতি করছে। তাদের এ ধারাবাহিক প্রচেষ্টা বাংলাদেশের অর্থনীতিতে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করতে সহায়তা করবে।
আইটি ইনকিউবেটর : আইটি ইনকিউবেটর ডিজিটাল উদ্যোক্তা তৈরি করার একটি প্লাটফর্মে। এটি তরুণদের ক্ষমতায়ন, কাজের সুযোগ প্রদান এবং বৈশ্বিক ডিজিটাল অর্থনীতি ও সমাজে কাজের সুযোগ-সুবিধা প্রদানের একটি পথ হিসেবে কাজ করছে। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠান ছোট থেকে বড় এবং তাদের নিজেদের ও দেশের জন্য বড় অংশের রাজস্ব আয়ের সুযোগ পাবেন। সে আলোকেই বাংলালিংক আইটি ইনকিউবেশন সেন্টারে ছোট ও মাঝারি ডিজিটাল ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানগুলোকে উৎসাহ প্রদান এবং ১০টি বিজয়ী স্টার্টআপসকে ১ বছরের জন্য পূর্ণ সহযোগিতা প্রদান করছে। এ ১০টি স্টার্টআপস হলোÑ বিডিরেটস হোল্ডিং লিমিটেড, সেলিস্কোপ, হিরোস অব ৭১ মুক্তি ক্যাম্প, খুঁজুন ডটকম, ৬ এক্সিস টেকনোলজিস, ইশকুল, প্রযতœ, ফিটফাইন্ডার, অ্যাপ্লিকেশনককপিট এবং ইন্টারেক্টিভ আর্টিফ্যাক্ট।
এ বিষয়ে বাংলালিংকের হেড অব করপোরেট কমিউনিকেশন আসিফ আহমেদ বলেন, ‘জাতির ভবিষ্যৎ হিসেবে আমরা তরুণদের ক্ষমতায়নে বিশ্বাস করি। এই মহৎ উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে আমরা সত্যি অনেক গর্বিত। আগামীর ডিজিটাল যুগের গ্রাহকদের চাহিদা পূরণ করতে বাংলালিংক নিজেকে প্রস্তুত করছে। আইটি ইনকিউবেটরের মতো এই চমৎকার উদ্যোগটি নিশ্চয়ই আমাদের ডিজিটাল সেবাগুলো প্রদানে সহায়তা করবে এবং আমাদের ডিজিটাল যুগের জন্য প্রস্তুত করবে। বাংলাদেশের এই সাহসী উদ্যোক্তাদের ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে সহায়তা করতে এবং তাদের সুবিধাগুলো প্রদান করতে পেরে বাংলালিংক অত্যন্ত আনন্দিত ও গর্বিত।’ 


খবরটি পঠিত হয়েছে ২১৪০ বার

আইসিটি জব মার্কেট নিয়ে স্টাডি
বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের আগামী দিনের দক্ষ নেতৃত্ব ও চাকরি-সন্ধানীদের যথাযথ
বিস্তারিত
ফেসবুক তৈরি করছে ‘এআর চশমা’
ফেসবুকের সিইও মার্ক জাকারবার্গ বলেছেন, ‘এআর’র জন্য শেষ গোল হবে
বিস্তারিত
অপোর এফ৩ ‘এফসি বার্সেলোনা লিমিটেড
তরুণদের কাছে বিশ্বের জনপ্রিয় ফুটবল ক্লাব এফসি বার্সেলোনা। ফোন যদি
বিস্তারিত
অ্যাসোসিও পুরস্কার পাচ্ছে বিআইটিএম
এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় ভূ-অঞ্চলে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের শীর্ষ সংগঠন
বিস্তারিত
ফেসবুকে নতুন ফিচার
ফেসবুক নিউজ ফিডে নতুন একটি ফিচার নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে। এ
বিস্তারিত
ই-শপ চালু করল বাংলালিংক
ই-শপ মোবাইল ফোন অপারেটর বাংলালিংক ‘বাংলালিংক ই-শপ’ নামে একটি ই-কমার্স
বিস্তারিত