ই-পেমেন্ট না থাকায় বাধাগ্রস্ত ই-কমার্স

সরকারি সহযোগিতার ওপর গুরুত্বারোপ করে ই-কমার্স পেমেন্টস ও লজিস্টিকস নিয়ে বেসিস ও এমসিসিআইর সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে ৬৬ মিলিয়ন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর মধ্যে ২২ শতাংশ ব্যবহারকারী অনলাইন শপিং করছেন। প্রতি মাসে ডাবল ডিজিট বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশে এই ই-কমার্স মার্কেটে একটি বিশাল অগ্রগতির সম্ভাবনা রয়েছে। আমাদের দেশে প্রয়োজনীয় ই-পেমেন্ট ও লজিস্টিক ফ্র্রেমওয়ার্ক না থাকায় এ বিকাশমান বাজারের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। বৃহস্পতিবার বেসিস ও মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এমসিসিআই) সঙ্গে যৌথভাবে মাস্টারকার্ড, এসএসএল ওয়্যারলেস এবং টেকনোহ্যাভেনের পৃষ্ঠপোষকতায় ই-কমার্স পেমেন্টস ও লজিস্টিকসের ওপর সেমিনারে এসব কথা বলেন বক্তারা। ই-কমার্সের প্রসারে মূল প্রতিবন্ধকতাগুলো, ই-কমার্স ইকোসিস্টেমে বিনিয়োগের উপায় এবং প্রাসঙ্গিক বিষয়ে প্রণীত আইনের ওপর এ সেমিনারে গুরুত্ব দেয়া হয়।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস এম মনিরুজ্জামান। বক্তব্য রাখেন বেসিসের সভাপতি মোস্তাফা জব্বার এবং এমসিসিআইর সহ-সভাপতি গোলাম মাইনুদ্দিন। টেকনোহ্যাভেন কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং বেসিসের সাবেক সভাপতি হাবিবুল্লাহ এন করিম অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। বেসিস পরিচালক মোস্তফিজুর রহমান সোহেল এবং এমসিসিআইর কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য রুবাইয়াত জামিল দুইটি সেশনে এ সেমিনার সঞ্চালনা করেন। ই-পেমেন্টস ও লজিস্টিকসে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী আবুল কাসেম এমডি শিরিন এবং বেসিসের সাবেক সভাপতি ও আজকেরডিল ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহিম মাশরুর। এছাড়া বেসিস কার্যনির্বাহী পরিষদের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। বেসিসের সভাপতি মোস্তাফা জব্বার অনুষ্ঠানে বলেন, ‘বাংলাদেশ ই-কমার্সের দিকে সম্পূর্ণভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা বিশ্বাস করি, বেসিস মাস্টারকার্ডের মতো প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করে এই অগ্রগতিতে ব্যাপক সহযোগিতা পাবে। এমসিসিআইর সহ-সভাপতি গোলাম মাইনুদ্দিন বলেন ‘সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশের লক্ষ্য অর্জন করার উদ্দেশ্যে দি মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স সব ধরনের সহযোগিতা করবে। ভবিষ্যতে এ লক্ষ্য অর্জনের জন্য ই-পেমেন্টস ও লজিস্টিকস একটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এবং অবিচ্ছেদ্য অংশ। মাস্টারকার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল বলেন, ‘মাস্টারকার্ড সবসময়ই অনলাইন পেমেন্টের ব্যবহারে উৎসাহিত করছে। এ জন্য আমরা সহজে ব্যবহারযোগ্য গ্রাহকপ্রিয় পেমেন্টস লজিস্টিকস এবং প্রোডাক্টের বিশাল পোর্টফোলিও ব্যবহার করেছি, যার মাধ্যমে আমাদের গ্রাহকদের যা প্রয়োজন সেটি ব্যবহার করতে পারেন। আমরা বেসিস ও এমসিসিআইর সঙ্গে ই-কমার্সের সম্ভাবনা ও অগ্রগতির বিষয়ে সেমিনার আয়োজন করতে পেরে গর্বিত।’


প্রশ্ন ফাঁসের সমস্যা ডিজিটাল উপায়ে
প্রশ্ন ফাঁসের সমস্যা ডিজিটাল উপায়ে সমাধান করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন
বিস্তারিত
ব্রাদারের নতুন হেভি ডিউটি মাল্টিফাংশন
প্রযুক্তি বিশ্বের ব্র্যান্ড ব্রাদার এবার বাংলাদেশের বাজারে এনেছে প্রফেশনাল অল
বিস্তারিত
অনলাইনে হয়রানির বেশিরভাগই ঘটে সামাজিক
আন্তর্জাতিক নিরাপদ ইন্টারনেট দিবসের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে ‘সিভিলিটি, সেফটি অ্যান্ড
বিস্তারিত
হ্যাপি হোমস এলএলসি অধিগ্রহণ কাজী
সম্প্রতি আমেরিকার বিপিও সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হ্যাপি হোমস এলএলসি অধিগ্রহণ করেছে
বিস্তারিত
বাংলাদেশে এপসনের নতুন পরিবেশক হলো
প্রিন্টার ও প্রজেক্টর শিল্পে সবচেয়ে বেশি সরবরাহকারী শীর্ষস্থানীয় জাপানি কোম্পানি
বিস্তারিত
পরিধি বাড়ছে ওরাকল ক্লাউডের
সারা বিশ্বেই ওরাকলের ক্লাউড সেবার চাহিদা এখন তুঙ্গে। এই চাহিদার
বিস্তারিত