তিনি একাই খান ৫ জনের খাবার!

জাপানের ১৫শ’ বছরের পুরনো জাতীয় খেলা সুমো কুস্তি। এর এক একজন খেলোয়াড় প্রতিদিন ৮ হাজার ক্যালরি পরিমাণ খাবার খায়। যা পাঁচজন সুস্থ-সবল মানুষের খাবারের সমান। তারা এই খাবার গ্রহণ করেন আর অক্সিজেন মাস্ক পরে ঘুমান।

জাপানের নাজয়া এলাকার বিখ্যাত টোমজুনা সুমো ক্লাব। যেখানে ১১ জন বিশাল দেহী কুস্তিগির আছেন। যারা শরীরে মাত্র এক টুকরো কাপড় পরে থাকেন।

তাদের দৈনন্দিন কাজের মধ্যে রয়েছে- সকালে ঘুম থেকে উঠে টানা তিন ঘণ্টা অনুশীলন। সকাল সাড়ে ১০টায় অনুশীলন শেষে ভক্ত-দর্শকদের অটোগ্রাফ দেওয়া শুরু করেন। এই কুস্তিগিরদের সকালের খাবার মেন্যুতে থাকে- শূকরের মাংস, গ্রিল, সামুদ্রিক মাছ ভাজি, ফ্রাইড রাইসসহ বিশেষ ধরণের খাবার। এগুলো থালায় সাজিয়ে রাখে তাদের জুনিয়ররা।

সকালের খাবার শেষে আবারও ঘুমতে যায়। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো ঘুমানোর সময় তারা মুখে অক্সিজেন মাস্ক পরেন। যাতে তাদের শ্বাস নিতে কষ্ট না হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, নাজয়ার বৌদ্ধ মন্দির এলাকায় গ্রান্ড সুমো টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছে গত সপ্তাহে। তাই সুমো কুস্তিগিররা এখন দারুন ব্যস্ত সময় পার করছেন। 

সুমো জাপানের খেলা হলেও দিন দিন এ খেলার প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছে দেশটির নতুন প্রজন্ম। যার ফলে বাইরে থেকে খেলোয়াড় আনতে হচ্ছে। বিশেষ করে এশিয়ার মঙ্গোলিয়া থেকে। তবে এ ক্ষেত্রে বড় সমস্যা হলো ভাষা বলে মনে করেন মঙ্গোলিয়ান বংশোদ্ভূত বিখ্যাত কুস্তিগির টোমজুনা ওয়াকাটা।

সূত্র: ডেইলি মেইল।


হাসি ও গম্ভীর মুখের পার্থক্য
আমরা কথায় কথায় কাউকে না কাউকে ছাগল বলে ফেলি। ছাগল
বিস্তারিত
স্কুলে শিক্ষক একজন, শিক্ষার্থীও এক!
ভারতের কলকাতার ঝাঁ চকচকে গুরুগ্রাম (গুরগাঁও) থেকে মাত্র ৬০ কিমি
বিস্তারিত
হাতে হেঁটে ১০ কিমি. পাড়ি!
প্রবল ইচ্ছাশক্তির কঠিন পরীক্ষা দিয়েছেন সোলায়মান মাগোমেদয়। রাশিয়ার দাগেনস্টানের ৫৩
বিস্তারিত
৬৬ বছর পর নখ কাটলেন
হাতের নখ কাটাতে ভারতের পুনে থেকে নিউ ইয়র্কে উড়ে গেলেন
বিস্তারিত
দুই মাথাওয়ালা বাছুর দুধ পান
দুই মাথাওয়ালা এই বাছুরের জন্ম হয়েছে ব্রাজিলের গোইয়া প্রদেশের কাইয়াপোনিয়া
বিস্তারিত
১৮৫ কেজি ওজনের উড়ন্ত মাছ!
গল্পের মতো মনে হলেও সত্যি। মাছও উড়তে পারে। এতদিন নাম
বিস্তারিত