তিনি একাই খান ৫ জনের খাবার!

জাপানের ১৫শ’ বছরের পুরনো জাতীয় খেলা সুমো কুস্তি। এর এক একজন খেলোয়াড় প্রতিদিন ৮ হাজার ক্যালরি পরিমাণ খাবার খায়। যা পাঁচজন সুস্থ-সবল মানুষের খাবারের সমান। তারা এই খাবার গ্রহণ করেন আর অক্সিজেন মাস্ক পরে ঘুমান।

জাপানের নাজয়া এলাকার বিখ্যাত টোমজুনা সুমো ক্লাব। যেখানে ১১ জন বিশাল দেহী কুস্তিগির আছেন। যারা শরীরে মাত্র এক টুকরো কাপড় পরে থাকেন।

তাদের দৈনন্দিন কাজের মধ্যে রয়েছে- সকালে ঘুম থেকে উঠে টানা তিন ঘণ্টা অনুশীলন। সকাল সাড়ে ১০টায় অনুশীলন শেষে ভক্ত-দর্শকদের অটোগ্রাফ দেওয়া শুরু করেন। এই কুস্তিগিরদের সকালের খাবার মেন্যুতে থাকে- শূকরের মাংস, গ্রিল, সামুদ্রিক মাছ ভাজি, ফ্রাইড রাইসসহ বিশেষ ধরণের খাবার। এগুলো থালায় সাজিয়ে রাখে তাদের জুনিয়ররা।

সকালের খাবার শেষে আবারও ঘুমতে যায়। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো ঘুমানোর সময় তারা মুখে অক্সিজেন মাস্ক পরেন। যাতে তাদের শ্বাস নিতে কষ্ট না হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, নাজয়ার বৌদ্ধ মন্দির এলাকায় গ্রান্ড সুমো টুর্নামেন্ট শুরু হয়েছে গত সপ্তাহে। তাই সুমো কুস্তিগিররা এখন দারুন ব্যস্ত সময় পার করছেন। 

সুমো জাপানের খেলা হলেও দিন দিন এ খেলার প্রতি আগ্রহ হারাচ্ছে দেশটির নতুন প্রজন্ম। যার ফলে বাইরে থেকে খেলোয়াড় আনতে হচ্ছে। বিশেষ করে এশিয়ার মঙ্গোলিয়া থেকে। তবে এ ক্ষেত্রে বড় সমস্যা হলো ভাষা বলে মনে করেন মঙ্গোলিয়ান বংশোদ্ভূত বিখ্যাত কুস্তিগির টোমজুনা ওয়াকাটা।

সূত্র: ডেইলি মেইল।


জীবিত নারীকে রাখা হলো লাশঘরের
দক্ষিণ আফ্রিকার এক নারীকে লাশঘরের ফ্রিজে জীবিত পাওয়ার পর তোলপাড়
বিস্তারিত
হানিমুনে গিয়ে কিপটেমি করায় স্বামীকে
বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা এই যুগে যথেষ্ট সহজ হয়ে গেছে। গত
বিস্তারিত
বরকে ছিনিয়ে নিতে বিয়ের আসরে
সাবেক প্রেমিকের বিয়েতে কনে সেজে পৌঁছে গেলেন সাবেক প্রেমিকা। ভালোবাসার
বিস্তারিত
স্বামী পেটানোয় বিশ্বের এক নম্বর
মিশরের নারীদেরকে স্ত্রী হিসেবে পেতে অনেক পুরুষই মনে মনে চান।
বিস্তারিত
যে কারণে জাপানের ব্যবসায়ী-চাকরিজীবীরা রাতে
দীর্ঘ কর্ম সংস্কৃতির জন্য জাপানের একটি খ্যাতি রয়েছে। যেটাকে অনেকে
বিস্তারিত
ছাত্রদের পাশ করাতে বিছানায় ডাকতেন
ইওকাসতা নামের চল্লিশোর্ধ স্কুল শিক্ষিকা ছাত্রদের পাস করিয়ে দিতে একটি
বিস্তারিত