লালায় হৃদরোগের চিকিৎসা

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এঁটুলি নামে পরিচিত এক ধরনের কীটের থুতু বা মুখের লালা দিয়ে মারাত্মক ধরনের হৃদরোগের চিকিৎসা করা সম্ভব। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা এ কীটকে নতুন নতুন ওষুধের গোল্ডমাইন বা স্বর্ণ খনি বলে উল্লেখ করেছেন। 

কারণ স্ট্রোক ও আর্থাইটিজসহ আরও কিছু রোগের চিকিৎসায় এটিকে ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে এসব পরীক্ষার সবক’টিই এখন পর্যন্ত শুধু ল্যাবরেটরিতেই চালানো হয়েছে। তাই মানুষের পক্ষে এ ওষুধ কখন ব্যবহার করা সম্ভব, সেটা এখনই বলা যাবে না।

এঁটুলি কাউকে কামড়াতে খুবই দক্ষ। কামড় দিলেও সেটা বোঝা যায় না। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এর অর্থ হলো যে কোনো প্রাণী এবং মানুষের শরীরে এটি কোনো ধরনের সমস্যা না করেই ৮ থেকে ১০ দিন পর্যন্ত থাকতে পারে। অর্থাৎ এ সময় প্রাণীর শরীরে কোনো ধরনের ব্যথা বা প্রদাহের সৃষ্টি হবে না। এর কারণ হলো এঁটুলির মুখের লালায় যে প্রোটিন আছে, সেটি যার শরীরে সে আশ্রয় নিয়েছে, সেখানে চেমোকিনের রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে ওই প্রদাহকে বন্ধ করে দেয়। মায়োকার্ডিটিসে যারা আক্রান্ত হয়, তাদের হৃদযন্ত্র থেকে চেমোকিন নির্গত হয় এবং সেটা হার্টের পেশিতে প্রদাহের সৃষ্টি করে। 

গবেষকরা বলছেন, এ কীটের মুখের থুতু ব্যবহার করে এখন মানুষের জীবন বাঁচানো সম্ভব। সূত্র : বিবিসি


পেঁপেও করোনা পজিটিভ!
মানুষের পাশাপাশি কয়েকটি প্রাণীর শরীরে করোনা ভাইরাস ধরা পড়ার ঘটনা
বিস্তারিত
এক উঁকুন ৩০০ টাকা উপরে!
আপনার মাথায় কি উঁকুন আছে? বিরক্ত হবে না! বরং আপনার
বিস্তারিত
বিছানায় ঝড় তুলতে গিয়ে, এখন
দাম্পত্য জীবনে সুখ ফিরিয়ে আনতে স্বামীর কাছে স্ত্রীর ‘বিশেষ আবেদন’।
বিস্তারিত
স্বামীর ৩ তালাকের প্রতিবাদ করে
স্বামীর তিন তালাকের প্রতিবাদ করায় শ্বশুরবাড়িতে গণধর্ষণের শিকার হলেন ভারতের
বিস্তারিত
১১ বছর ধরে স্বামীর মরদেহ
যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য ইউটাতে বাড়ির ফ্রিজে লুকিয়ে রাখা পল এডোয়ার্ড ম্যাথার্সের
বিস্তারিত
মৃত স্ত্রীর ভয়ে ৩০ বছর
স্ত্রী মারা গেছে অনেক আগেই। সেই স্ত্রীর জন্য শোক নয়,
বিস্তারিত