অ্যাপিকটার প্রথম কার্যনির্বাহী কমিটির সভা বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে এশিয়ার তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বড় সংগঠন এশিয়া প্যাসিফিক আইসিটি অ্যালায়েন্সের (অ্যাপিকটা) কার্যনির্বাহী কমিটির সভা। দুই দিনব্যাপী এ সভা শেষ হবে আগামীকাল শনিবার।
রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বেসিস কার্যালয়ে অ্যাপিকটার কার্যনির্বাহী কমিটির ৫১তম এই সভায় বাংলাদেশসহ সংগঠনটির ১২টি দেশের শীর্ষস্থানীয় ১৮ জন তথ্যপ্রযুক্তিবিদ অংশ নেন।
আজ শুক্রবার সকালে অ্যাপিকটার কার্যনির্বাহী কমিটির সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।
বেসিস সভাপতি শামীম আহসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অ্যাপিকটার চেয়ারম্যান ড. দিলীপা ডি সিলভা, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্পের পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বেসিসের সিনিয়র সহ-সভাপতি রাসেল টি আহমেদ।
এবারের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া, চীন, চাইনিজ তাইপে, জাপান, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, হংকং ও ভিয়েতনামের প্রযুক্তিবিদগণ অংশ নিয়েছেন। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে বেসিসের সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান, মহাসচিব উত্তম কুমার পাল, যুগ্ম-মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘বেসিস আমাদের সক্রিয় অংশীদার। গত বছর এই সময়ে বেসিস অ্যাপিকটার সদস্য পদ লাভ করে। মাত্র এক বছরেই বাংলাদেশ অ্যাপিকটার নির্বাহী কমিটির সভার আয়োজক হতে পেরেছে, এটা নিঃসন্দেহে আনন্দের।’
তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমান সরকার ২০২১ সাল নাগাদ ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার রূপকল্প নিয়ে কাজ করছে। এই সময়ের মধ্যে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রপ্তানি আয়ের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। যার লক্ষ্য শুধু ইউরোপ আমেরিকা নয়, বরং এশিয়ার দেশগুলোও। বিশেষ করে অ্যাপিকটার সদস্য দেশগুলো থেকেও ৫০ ভাগ অর্জিত হবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।’
অ্যাপিকটার চেয়ারম্যান ড. দিলীপা ডি সিলভা বলেন, ‘আমি মনে করি সরকারের সঙ্গে তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের শীর্ষ সংগঠন বেসিস যেভাবে একাত্ম হয়ে কাজ করছে তা অ্যাপিকটা সদস্যদেশগুলোর প্রতিনিধিদের জন্য একটি অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত হতে পারে।’ তিনি অ্যাপিকটার ৫১তম কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের জন্য বাংলাদেশের আতিথেয়তার ভূয়সী প্রশংসা করেন।
উল্লেখ্য, এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের বিভিন্ন দেশের তথ্যপ্রযুক্তি সংগঠনের এই জোট মূলত সদস্য দেশগুলোর পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে নিজ নিজ দেশের তথ্যপ্রযুক্তি সেক্টরের কাঠামো গঠন ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে কাজ করে থাকে। এ ছাড়া সদস্য দেশগুলের নিজস্ব তথ্যপ্রযুক্তিকে বিশ্ববাজারে তুলে ধরা, তথ্যপ্রযুক্তির সক্ষমতা উন্নয়ন এবং প্রযুক্তি ইনোভেশনগুলোকে এগিয়ে নিতে বেশ শক্ত ভূমিকা রাখে এই জোট। বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ সংগঠন হিসেবে গত বছর বেসিস অ্যাপিকটার সদস্য পদ লাভ করে।


বাংলাদেশে ই-স্ক্যান অ্যান্টিভাইরাসের ১০ বছর
ই-স্ক্যান বাংলাদেশের ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ১৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় রাজধানীর
বিস্তারিত
সৌরজগতের প্রান্ত থেকে তোলা পৃথিবীর
সৌরজগতের সীমান্ত থেকে ভয়েজার-১ এর তোলা পৃথিবীর একমাত্র ছবি ‘পেল
বিস্তারিত
ঢাকায় হয়ে গেল ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স
ঢাকায় হয়ে গেল দুই দিনব্যাপী দ্বিতীয় ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন সাইবার
বিস্তারিত
প্রযুক্তি দিয়ে লড়ছে চীন
জনগণের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণের জন্য চীন যে প্রযুক্তি তৈরি
বিস্তারিত
চট্টগ্রামে বিডিজবস কারিগরি চাকরি মেলায়
চট্টগ্রামের জিইসি কনভেনশন হলে হয়ে গেল দুই দিনব্যাপী বিডিজবস কারিগরি
বিস্তারিত
ডিজিটাল রেভিনিউ মোবিলাইজেশন নিয়ে আলোচনা
সম্প্রতি শেষ হওয়া সফটএক্সপোর প্রথম দিন ‘ইমপ্লিমেন্টেশন অব ডিজিটাল রেভিনিউ
বিস্তারিত