‘করাচিতেই আছি জানেন, এত প্রশ্ন কেন?’

দীর্ঘদিন ধরেই ভারত বলে আসছিল- পাকিস্তানেই অবস্থান করছেন মুম্বাই হামলার মূলহোতা দাউদ ইব্রাহিম। এবার দেশটির একটি গণমাধ্যমের দাবি পাকিস্তানের করাচিতেই আছেন বিশ্বের সবচেয়ে ‘ধনী ডন’।

সম্প্রতি দাউদ সম্পর্কে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছে সিএনএন নিউজ এইটিন এবং এ তথ্যগুলো দাউদের সঙ্গে সরাসরি ফোনে কথা বলেই তারা পেয়েছেন বলে দাবি করছে।

১৯৯৩ মুম্বাই বিস্ফোরণের পর পলাতক দাউদ ইন্টারপোলের তালিকায় মোস্ট ওয়ান্টেড অপরাধী। ওই বিস্ফোরণে নিহত হয় ২৫৭ জন। এতে আহত হয় প্রায় ৭০০ জন। গেলো ২৩ বছরে দাউদকে ধরার অনেক চেষ্টা করা সত্ত্বেও কুখ্যাত এই ডনকে ধরতে সফল হয়নি ভারত।

ভারতের দাবি, পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থা ইন্টার-সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্সের (আইএসআই) সহায়তা নিয়েই করাচিতে বিলাস বহুল প্রাসাদে অবস্থান করছেন। ৫৪ হাজার বর্গফুটের এ প্রাসাদে পরিবার নিয়েই বাস করছেন দাউদ।

যদিও দাউদের কথা কখনও স্বীকার করেনি পাকিস্তান। উল্টো পাকিস্তান জোড় দাবি করে আসছিল দাউদ সেখানে নেই।  তবে এবার ফোনে কথা বলার সময় দাউদ নিজেই স্বীকার করেছেন যে তিনি করাচিতেই অবস্থান করছেন।

চলতি বছরের এপ্রিলে গুজব রটে খুব অসুস্থ থাকায় দাউদের মৃত্যু হয়েছে। সেসময় ভারতের কয়েকটি গণমাধ্যম জানায়, তার মস্তিষ্কে একটি অস্ত্রোপচার হয়। তারপর থেকেই ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি!

তবে দাউদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছোটা শাকিল এসব সংবাদকে গুজব হিসেবে উড়িয়ে দিয়ে দাবি করেন, দাউদ সুস্থই  আছেন।

এরপরই মে মাসে দাউদের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন সিএনএন নিউজ এইটিন-এর সাংবাদিক মনোজ গুপ্তা। অডিও পরীক্ষা করে জানা যায়, ফোনের ওই পাশে যে আওয়াজ শোনা গেছে তা দাউদের।

ওই গণমাধ্যমটির দাবি, পাকিস্তানের একটি নম্বরে মনোজ ফোন দেন আর তখন দাউদ, সহযোগী জাভেদ চোটানি অপর আরেক সহযোগী ফোনে নাকি কথা বলেন। পরে ইন্টারভিউ করতে চাইলে তার জাভেদ ও ওই সহযোগী কথা বলেন।

দুবাইতে দাউদের মাল্টি-বিলিয়ন ডলারের জুয়াড় সিন্ডিকেট এবং আবাসন ব্যবসার দেখাশুনা করেন পাকিস্তানি এই জুয়াড়ি জাভেদ।

তারা প্রাথমিকভাবে কথা বলতে চাচ্ছিলেন না। তখন মনোজ ইন্টারভিউ করতে চাইলে তাকে নিজেদের স্টাইলে হুমকি দিতে থাকেন।

সেসময় জাভেদ বলেন, খোদার ভয় কর। সময় নষ্ট করিস না। তুই কার ইন্টারভিউ করবি? কোন খবর আছে, কার সঙ্গে কথা বলতে চাচ্ছিস?

ইফতারের সময় কথা বলতে বিরক্তিও প্রকাশ করেন তারা।

মনোজ বার বার ইন্টারভিউয়ের জন্য অনুরোধ করতে থাকেন। পরে দুবাই যেতে বলেন দাউদের অপর সহযোগী। মনোজ বলেন- আপনি করাচিতে আছেন আপনি চাইলে আমি ওখানে ক্যামেরা পাঠাবো। সেসময় ফোনের অপর প্রান্তে থাকা দাউদ তার সহযোগীদের সঙ্গে কথা বলছিলেন তখনই তার আওয়াজ শেনা যাচ্ছিল।

তখন ওপার থেকে বলা হয়, যখন সবকিছুই জানেন তখন বারবার প্রশ্ন কেন করছেন?

এরপর আরেকটি ফোন কলে দাউদের স্বাস্থ্য নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। দাউদ নিজেই বলেন, ব্ল্যাড প্রেসারের (বিপি) সমস্যা হয়েছিল।

বর্তমানে করাচির কিল্ফটন এলাকার ডি-১৩, ব্লক ৪ এর প্রাসাদে পরিবারে সঙ্গেই বাস করছেন দাউদ। আর ওখানে বসেই ডন নিয়ন্ত্রণ করছেন নিজের সাম্রাজ্য ‘ডি কোম্পানি’।


খবরটি পঠিত হয়েছে ১২০৬০ বার

দুই দশক পরেও ব্রিটেনের গণমাধ্যমে
দুই দশক পর আবারও ব্রিটেনের দৈনিক পত্রিকাগুলোর প্রথম পাতায় জায়গা
বিস্তারিত
নওয়াজ শরীফের স্ত্রীর শরীরে ক্যান্সার
পাকিস্তানের সদ্য সাবেক ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের স্ত্রীর বেগম কুলসুম
বিস্তারিত
মালদ্বীপের পার্লামেন্ট সেনাবাহিনীর দখলে
মালদ্বীপের জাতীয় পার্লামেন্টের স্পিকারের অভিশংসন বন্ধ করতে দেশটির সেনাবাহিনী পার্লামেন্ট
বিস্তারিত
তিন তালাক অবৈধ : ভারতের
শুধুমাত্র মুখে ‘তিন তালাক’ উচ্চারণ করেই মুসলমানদের বিবাহ বিচ্ছেদের বহুল
বিস্তারিত
প্রেসিডেন্টের মেয়ের যে ছবি নিয়ে
কিরঘিজস্তানের প্রেসিডেন্ট আলমাজবেকের মেয়ের ছবি নিয়ে আপত্তি উঠেছে। তবে ছবিটি
বিস্তারিত
সহকর্মীর শরীরে এইচআইভির রক্ত পুশের
প্রতিশোধ নেয়ার এক ভিন্ন ধরণ দেখালেন ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের এক চিকিৎসক।
বিস্তারিত