ফের বন্যায় লাখো মানুষ পানিবন্দি

ফসলের ব্যাপক ক্ষতি : শতাধিক স্কুলের পরীক্ষা স্থগিত

টানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পানিতে উত্তরাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ফের বন্যা দেখা দিয়েছে। লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। হাজার হাজার বিঘা জমির সদ্য রোপণকৃত আমন, সবজিসহ নানা ফসল তলিয়ে গেছে। ভেসে গেছে মাছের খামার। ভেঙে গেছে রাস্তাঘাট। বিভিন্ন স্থানে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। বিপাকে পড়েছে শিক্ষার্থীরা। পানির কারণে লালমনিরহাট ও নীলফামারীর ২০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সুনামগঞ্জে শতাধিক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা দুই দিনের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে। এছাড়া দিনাজপুরের হিলিস্থলবন্দরের কার্যক্রম চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে। সিরাজগঞ্জে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ২-১টি স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে। শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার পাহাড়ি নদী ভোগাইয়ের অন্তত ১৩টি স্থানে তীব্র ভাঙন শুরু হয়েছে। জামালপুরে অতিরিক্ত স্রোতের কারণে মেলান্দহ উপজেলার বলিদাখালী সাদীপাটি গ্রামের আলাই নদের ভাঙন ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের উত্তর পাঁচাউন গ্রামে মাটির ঘরের দেয়াল ধসে পাশের ঘরের নাহিদা আক্তার (৮) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঢাকা-আগরতলা সড়কের উপর দিয়েও পানি প্রবাহিত হচ্ছে। সিলেট ও সুনামগঞ্জে দেড় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় বন্ধ রয়েছে পাথর উত্তোলন কার্যক্রম। বেকার হয়ে পড়েছেন কয়েক হাজার শ্রমিক। ঠাকুরগাঁও ও রানীশংকৈলে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। দ্বিতীয় দফায় বন্যা দেখা দেয়ায় জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বু্যুরো ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর- 

রংপুর : সরেজমিন কাউনিয়া, গঙ্গাচড়া ও পীরগাছা উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে, তিস্তার পানি ঢুকে বন্যাকবলিত হয়ে হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। সেই সঙ্গে বিভিন্ন ইউনিয়নের রাস্তাঘাট ভেঙে গেছে, তলিয়ে গেছে আমন ধান, বীজতলা, সবজি ক্ষেত, নার্সারি, মাছের খামার ও পুকুর। দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানির অভাব। গোখাদ্য সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে। বন্যাকবলিত এলাকায় এখন পর্যন্ত সরকারি কোনো ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছায়নি। উপজেলা কৃষি অফিসার শামিমুর রহমান জানান, উপজেলায় এ পর্যন্ত ১২ হাজার হেক্টর আমন ধান ও ১০ হেক্টর বীজতলা তলিয়ে গেছে, সেই সঙ্গে কিছু কিছু নার্সারি ও সবজি ক্ষেত তলিয়ে গেছে। যে হারে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে করে আরও ১০ হাজার হেক্টর ধান ক্ষেত তলিয়ে যেতে পারে। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মাহাবুব উল আলম জানান, টানাবৃষ্টি ও নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় জলাবদ্ধতায় উপজেলার শতাধিক ছোট-বড় মাছের খামার ও দুই শতাধিক পুকুর তলিয়ে গেছে, ভেসে গেছে মাছ। 

দিনাজপুর : টানা বর্ষণে দিনাজপুরের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। উপজেলা পরিষদ, চারমাথা, সোনারপট্টি, উপজেলা হাসপাতাল, কলেজ এবং পানামা পোর্ট লিংক অফিসের সামনের সড়কের উপর দিয়ে ২ থেকে ৩ ফুট পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া হিলি বাজারের কয়েকশ বাসাবাড়িতে পানি প্রবেশ করায় প্রায় ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়েছেন। থেমে থেমে বৃষ্টি হওয়ায় জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। দিনমজুরদের কাটাতে হয়েছে কর্মহীন সময়। অধিকাংশ দোকানপাট বন্ধ ছিল। রাস্তাঘাটে লোক চলাচল ছিল কম। বৃষ্টির কারণে যানবাহনের সংখ্যাও আশঙ্কাজনকহারে হ্রাস পেয়েছে। এদিকে দেশের অন্যতম স্থলবন্দর হিলিতে অবিরাম বর্ষণে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

সিরাজগঞ্জ : ২৪ ঘণ্টায় যমুনার পানি ৩৬ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পাওয়ায় কাজীপুর, শাহজাদপুর, বেলকুচি, চৌহালী ও সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার নিম্নাঞ্চল বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে। সদ্য রোপণকৃত রোপা আমন ধানসহ বিভিন্ন ফসল তলিয়ে গেছে। সেই সঙ্গে নতুন নতুন অঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। ২য় দফায় বন্যা দেখা দেয়ায় জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের দুয়েক  স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে। সেখানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। 

পঞ্চগড় : অবিরাম বর্ষণে ভাসমান, দিনমজুর ও খেটেখাওয়া মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। করতোয়া, মহানন্দা, ডাহুক, ভেরসাসহ জেলার সবক’টি নদীর পানি বেড়েছে। জেলা শহরসহ বেশ কিছু এলাকার মানুষ বিভিন্ন স্কুল-কলেজে আশ্রয় নিয়েছে। করতোয়া ও মহানন্দা নদীর পানিতে তলিয়ে গেছে বসতবাড়ি, আমন ক্ষেত, রাস্তাঘাট। অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও পানি উঠেছে। অনেকের পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। পঞ্চগড় পৌরসভার মেয়র মোঃ তৌহিদুল ইসলাম জানান, ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করা হচ্ছে। আশ্রয়কেন্দ্রে শুকনো খাবার ও খিচুড়ি সরবরাহের ব্যবস্থা করা হচ্ছে।  

কুড়িগ্রাম : টানা দুই দিনের বৃষ্টি ও উজানের ঢলে কুড়িগ্রামের ধরলা, তিস্তা, ব্রহ্মপুত্রসহ সবক’টি নদ-নদীর পানি ফের বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। চিলমারীর সেতু পয়েন্টে ধরলা নদীর পানি বিপদসীমার ২২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। প্লাবিত হয়ে পড়েছে কুড়িগ্রাম সদর, ফুলবাড়ী, চিলমারী ও উলিপুর উপজেলার নিম্নাঞ্চলের ২০ ইউনিয়নের প্রায় শতাধিক গ্রাম। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে এসব এলাকার প্রায় ৪০ হাজার মানুষ। নিম্নাঞ্চলে তলিয়ে গেছে রোপা আমনসহ মৌসুমি ফসল। 

লালমনিরহাট : পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন লক্ষাধিক মানুষ। পানিবন্দি পরিবারগুলো গরু, ছাগল, হাঁস-মুরগি নিয়ে বিপাকে পড়েছে। তাছাড়া হাজার হাজার বিঘা জমির সদ্য রোপণকৃত আমন ধান, সবজিসহ নানা ফসল ও রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে। পানির কারণে জেলার ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ  রেেয়ছে। অপরদিকে নীলফামারীতে বন্ধ রয়েছে অন্তত ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। বৈরী আবহাওয়ার কারণে কৃষি বিভাগের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীর ছুটি বাতিল করা হয়েছে। 

শেরপুর : নালিতাবাড়ী উপজেলার পাহাড়ি নদী ভোগাইয়ের অন্তত ১৩টি স্থানে তীব্র ভাঙন শুরু হয়েছে। নদীর তীর গড়িয়ে প্লাবিত হচ্ছে চেল্লাখালী নদীর পানি। এতে পৌরসভাসহ এ উপজেলার অন্তত অর্ধশত গ্রাম আকস্মিক বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে। এতে ফসলি জমি, ঘরবাড়ি, পুকুরের মাছসহ সবকিছুই বন্যাকবলিত হয়ে পড়েছে। 

জামালপুর : যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। দেখা দিয়েছে ব্যাপক ভাঙন। শনিবার বাহাদুরাবাদঘাট পয়েন্টে যমুনার পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ১১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। এদিকে জামালপুরে দ্বিতীয় দফা বন্যার পানির অতিরিক্ত স্রোতের কারণে মেলান্দহ উপজেলার বলিদাখালী সাদীপাটি গ্রামের আলাই নদের ভাঙন ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : আখাউড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী কয়েকটি গ্রামে পানি ঢুকে পড়েছে। পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে জমিসহ এলাকার রাস্তাঘাট। ঢাকা-আগরতলা সড়কের উপর দিয়েও পানি প্রবাহিত হচ্ছে। স্থানীয় লোকজন জানান, স্থলবন্দর এলাকার পাশ দিয়ে বয়ে চলা কালন্দি খালটি দিয়ে ভারতীয় ঢলের পানি প্রবেশ করে উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের কালিকাপুর, বীরচন্দ্রপুর, আবদুল্লাহপুর ও বঙ্গেরচর গ্রামের জমি ও রাস্তাঘাট তলিয়ে যাচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। 

মৌলভীবাজার : শ্রীমঙ্গল উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের উত্তর পাঁচাউন গ্রামে মাটির ঘরের দেয়াল ধসে পাশের ঘরের নাহিদা আক্তার (৮) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছে নাহিদার অপর বোন নাঈমা আক্তার (৪)। শুক্রবার রাত ৮টায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন মির্জাপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য লুৎফুর রহমান। দিনভর ভারি বৃষ্টিপাত হওয়ায় মাটি নরম হয়ে এ ঘটনা ঘটে। 

হবিগঞ্জ : খোয়াই নদীর পানি বিপদসীমার ২১০ সেন্টিমিটারে স্থিতিশীল রয়েছে। তবে আর বৃষ্টি না হলে পানি কমতে শুরু করবে বলে জানিয়েছে হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড। 

পিরোজপুর : অবিরাম বর্ষণে দক্ষিণাঞ্চলের সর্বত্র জীবনযাত্রা ব্যাহত হয়ে পড়েছে। পিরোজপুর ও সন্নিহিত এলাকার নিম্নাঞ্চলের অধিকাংশ ডুবে গেছে। বিপাকে পড়েছে শিক্ষার্থীরা। অব্যাহত বর্ষণের ফলে কৃষকের রোপণ করা শাক-সবজি পচে যাচ্ছে। দেখা দিয়েছে গোখাদ্যের সংকট। মৎস্য ঘেরের মালিকদেরও দুশ্চিন্তা বেড়েছে। 

সিলেট : টানা বৃষ্টিপাত আর উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের চার উপজেলায় অর্ধলক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। উপজেলা চারটি হচ্ছে- গোয়াইনঘাট, কোম্পানীগঞ্জ, জৈন্তাপুর ও কানাইঘাট। গ্রামীণ রাস্তা-ঘাট পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। বিভিন্ন স্থানে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এদিকে সুরমা ও কুশিয়ারার তিনটি পয়েন্টে পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যার কারণে ভোলাগঞ্জ, বিছনাকান্দি, জাফলং ও লোভাছড়া পাথর কোয়ারি পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় বন্ধ রয়েছে পাথর উত্তোলন। ফলে বেকার হয়ে পড়েছেন কয়েক হাজার শ্রমিক। বন্যায় রোপা আমনের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

রানীশংকৈল : বর্ষণে ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলাবাসীর জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। গবাদিপশু, হাঁস-মুরগির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। গ্রামীণ জনপদের রাস্তাঘাট ভেঙে যাওয়ায় চলাচলে দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। 

সুনামগঞ্জ : ক’দিনের টানা ভারিবর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জ জেলার সবক’টি নদ-নদীর পানি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। বন্যার কারণে ৭টি উপজেলার শতাধিক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা দুই দিনের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে।

খাগড়াছড়ি : টানা বর্ষণে খাগড়াছড়ির নিম্নাঞ্চল আবারও প্লাবিত হয়েছে। এতে করে দীঘিনালার দুই ইউনিয়নসহ জেলার ৫ শতাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বর্ষণ অব্যাহত থাকায় পাহাড় ধসের শঙ্কাও রয়েছে। 

ঠাকুরগাঁও : ভারিবর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পানির ঢলে তলিয়ে গেছে ঠাকুরগাঁওয়ের ৫ উপজেলার কয়েক হাজার ঘরবাড়ি, ব্রিজ-কালভার্ট। বন্যায় ফসল, গবাদিপশুসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে বিপাকে পড়ছে লক্ষাধিক অসহায় মানুষ। 


‘রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতেই হবে মিয়ানমারকে’
ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ বলেছেন, ‘মিয়ানমারকে অবশ্যই নিজ নাগরিকদের ফেরত
বিস্তারিত
‘সব দলের অংশগ্রহণে সুষ্ঠু নির্বাচন
ঢাকা সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বৈঠক করছেন বিএনপির
বিস্তারিত
‘রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়াই একমাত্র সমাধান’
মিয়ানমারের রাখাইনের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ভারত উদ্বিগ্ন বলে জানিয়েছেন দেশটির
বিস্তারিত
‘দুদক নিজেদের মত করেই সিদ্ধান্ত
দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) একটি স্বাধীন প্রতিষ্ঠান তাই প্রধান বিচারপতি
বিস্তারিত
২৫ কোটি টাকা দিলে বহাল
বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতির মামলায় ৫০ দিনের মধ্যে ২৫
বিস্তারিত
বিতর্কের মধ্যেই ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ‘ঘ’ ইউনিটের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়া নিয়ে
বিস্তারিত