হঠাৎ সমুদ্রের পানি উধাও

মোমিনের জন্য শিক্ষা

হারিকেন ‘ইরমা’ আঘাত হানার পর বাহামার লং আইল্যান্ডে সমুদ্রসৈকত থেকে সব পানি উধাও হয়ে গেছে! ব্লটিং পেপারের মতো শুষে নিয়ে গিয়ে যেন সমুদ্রটাকেই খালি করে দিয়েছে, যা অবিশ্বাস্য, দৃশ্যত প্রায় অসম্ভবই। আর এই অদ্ভুত ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
বাহামার স্থানীয়রা বলছেন, ‘এমন যে হতে পারে, ভাবতে পারিনি কোনো দিন। এটাই কি বাহামার লং আইল্যান্ড? এখানে তো সমুদ্রটা অন্যরকম ছিল এতদিন। আর আজ পানির চিহ্ন মাত্র নেই সেখানে।’ (সংবাদ দৈনিক ইত্তিফাক ও আনন্দবাজারের)। 
সারা বিশ্বকে অবাক করা এই ঘটনার নানা বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা দেয়া হলেও এর আগে এমনটি দেখেনি কেউ। সবাই এই অবিশ্বাস্য ঘটনার কারণ খুঁজছেন। পানি আল্লাহর বিশাল বড় নেয়ামত। কেয়ামতের আগে পৃথিবীতে পানিশূন্যতা দেখা দেবে। বহু নদী ও সমুদ্র শুকিয়ে যাবে মর্মে অনেক হাদিস বর্ণিত হয়েছে। আল্লাহ তায়ালা সূরা মুমিনুনে এরশাদ করেন, ‘আমি আকাশ থেকে পানি বর্ষণ করে থাকি পরিমাণ মতো অতঃপর আমি জমিনে সংরক্ষণ করি এবং আমি তা উধাও করতেও সক্ষম।’ (সুরা মুমিনুন : ১৮)। সূরা মুলকে এরশাদ করেছেন, ‘এদের বলো, তোমরা কি এ বিষয়ে কখনও চিন্তাভাবনা করে দেখছ যে, যদি তোমাদের কুয়াগুলোর পানি মাটির গভীরে নেমে যায় তাহলে পানির এ বহমান স্রোত কে তোমাদের ফিরিয়ে এনে দেবে?’ (সূরা মুলক : ৩০)। সূরা বাকারায় আল্লাহ বলেছেন, ‘আল্লাহ সংকোচন করেন (টেনে নেন) এবং প্রশস্ত করেন (ছেড়ে দেন)। আর তাঁর কাছেই তোমাদের ফিরে যেতে হবে। (সূরা বাকারা : ২৪৫)। 
এসব আয়াত ও এ প্রসঙ্গে বিভিন্ন হাদিসের আলোকে বিশ্বনন্দিত ইসলামিক স্কলার, ইসলামী প্রশ্নোত্তরের বিখ্যাত ও প্রাচীনতম ওয়েবসাইট ‘ইসলাম কিউ অ্যান্ড এ’ এর পরিচালক শায়খ সালেহ আল মুনাজ্জদি তার ভেরিফায়েড টুইটারে লিখেছেন যে, ‘এটা আল্লাহর কুদরতের নিদর্শন। তিনিই এই পানিকে সরিয়ে নিয়েছেন।’ অনেকের মতে, কেয়ামতের আগে যে বিভিন্ন নদ-নদীর পানি অকস্মাৎ শুকিয়ে যাবে, এ ঘটনা তার একটি নমুনা। তাছাড়া আল্লাহর ৯৯টি গুণবাচক নামের একটি হলো ‘কাবিদ্ব’ বা সংকোচনকারী (যিনি টেনে নেন)। সুতরাং বাহামার লং আইল্যান্ডে সমুদ্রসৈকতের পানি শুকিয়ে যাওয়ার পেছনে হারিকেন ‘ইরমা’ বা অন্য যে কোনো কারণই থাকুক না কেন, মোমিনের জন্য তা বিরাট বড় শিক্ষা।
এ থেকে আমাদের অনুধাবন করা উচিত, মহান আল্লাহর কী ক্ষমতা। আর মানুষের কত অক্ষমতা ও সীমাবদ্ধতা। তাঁর সন্তুষ্টি ও নেয়ামত আমাদের জন্য কত দরকারি এবং তাঁর অসন্তুষ্টি ও ক্রোধ আমাদের জন্য কত ভয়ংকর হতে পারে।

শায়খ আহমদুল্লাহ
দাম্মাম, সৌদি আরব


প্রথম পর্বের মোনাজাত
রোববার বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ
বিস্তারিত
ধৈর্যের প্রতিভূ আইয়ুব (আ.)
ধৈর্যের প্রতিভূ এবং আল্লাহর ওপর আস্থায় অনন্য উপমা প্রদর্শনকারীদের আলোচনা
বিস্তারিত
জিনদের মধ্যেও কি নবী এসেছিলেন
জিন জাতির মধ্য থেকে নবী ও রাসুল এসছেন কি না, এ
বিস্তারিত
দাওয়াত ও তাবলিগ উম্মাহর ঐক্য
দাওয়াত ও তাবলিগ। শেষ নবি হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর রেখে
বিস্তারিত
পৃথিবীতে কারও অমরত্ব নেই
হে গাফেল, নিয়তি আমাদের ঘিরে আছে। আমরা আছি একটি সফরে,
বিস্তারিত
শীতকালে যে সাত আমলের সুবর্ণ
শীত মোমিনদের জন্য ইবাদতের বসন্তকাল। শীত এলে ইবনে মাসউদ (রা.)
বিস্তারিত