জাতীয় কন্যা শিশু দিবস শুক্রবার

জাতীয় কন্যা শিশু দিবস আগামীকাল শুক্রবার। ‌‘কন্যা শিশুর জাগরণ, আনবে দেশে উন্নয়ন’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে পালিত হচ্ছে জাতীয় কন্যা শিশু দিবস। এ উপলক্ষে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।
রাষ্ট্রপতির মো. আবদুল হামিদ তাঁর বাণীতে বিশ্বজুড়ে নারী ও কন্যাশিশুদের প্রতি অব্যাহত সহিংসতা ও নৃশংসতায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, সব ধরনের প্রতিবন্ধকতা দূর করে কন্যাশিশুদের উপযুক্ত করে গড়ে তুলতে প্রতিটি কন্যাশিশুর অধিকার ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সবার দায়িত্ব।
রাষ্ট্রপতি কন্যা শিশুর অধিকার ও মর্যাদা সমুন্নত রাখতে সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তনের জন্য সার্বিক সচেতনতা বৃদ্ধির আহ্বান জানান।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কন্যা শিশু দিবসের সার্বিক সাফল্য কামনা করেন। তিনি কন্যা শিশুদের সার্বিক সুরক্ষা ও উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, গণমাধ্যমসহ সমাজের সর্বস্তরের জনগণকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ শিশু একাডেমি ও জাতীয় কন্যা শিশু এডভোকেসি ফোরাম আগামীকাল দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। কাল সকাল ৯টায় জাতীয় জাদুঘরের সামনে থেকে শুরু হবে কন্যা শিশু শোভাযাত্রা। এ শোভাযাত্রা শিশু একাডেমি চত্বরে এসে শেষ হবে। এরপর শিশু একাডেমি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে আলোচনা, চিত্রাংকন ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ, কন্যা শিশুদের আঁকা ছবি প্রদর্শনী, কন্যা শিশুদের সম্পাদনায় বিশেষ বুলেটিন, ক্রোড়পত্র ও জার্নাল প্রকাশ। এতে কন্যা শিশুদের নির্মিত শিশুতোষ চলচ্চিত্র প্রদর্শনীরও আয়োজন করা হয়েছে। মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, প্রমীলা ক্রিকেটার ও এভারেস্ট জয়ী নারীরা এসব অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।
মেয়েদের শিক্ষার অধিকার, পরিপুষ্টি, আইনী সহায়তা ও ন্যায় অধিকার, চিকিৎসা সুবিধা ও বৈষম্য থেকে সুরক্ষা, নারীর বিরুদ্ধে হিংসা ও বলপূর্বক বাল্যবিবাহ বন্ধে কার্যকর ভূমিকা পালনের উদ্দেশ্যে এ দিবসের সূচনা করা হয়। ২০১১ সালের ১৯ ডিসেম্বর তারিখে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবসের প্রস্তাব গৃহিত হয়। এরই ফলশ্রুতিতে ২০১২ সালের ১১ অক্টোবর প্রথম আন্তর্জাতিক কন্যা শিশু দিবস পালন করা হয়। বাংলাদেশে ২০১৩ সাল থেকে বছরের একটি দিন জাতীয় কন্যা শিশু দিবস পালন করা হচ্ছে।


২১ গুণী ব্যক্তি নিলেন একুশে
বিভিন্ন ক্ষেত্রে ‘গৌরবদীপ্ত অবদানের’ স্বীকৃতিস্বরূপ ২১ গুণী ব্যক্তি পেলেন একুশে পদক।
বিস্তারিত
একুশ মানে মাথা উঁচু করে
বাংলাদেশ ও বাঙালি জাতির ইতিহাসে একুশে ফেব্রুয়ারি এক অবিস্মরণীয় দিন।
বিস্তারিত
সুপেয় পানির সংকটে পড়তে পারে
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ইউনিসেফের এক জরিপে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের
বিস্তারিত
‘রোগিরা হাসপাতালে অতিথি, বিশেষ গুরুত্ব
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সাধারণ জনগণের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানে সবোর্চ্চ পেশাদারিত্ব এবং
বিস্তারিত
‘প্রশ্নফাঁস মন্ত্রী-সচিব করেনি, যারা করে
চলমান এসএসসি, দাখিল ও সমমান পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস হওয়া প্রসঙ্গ নিয়ে
বিস্তারিত
জিএসপি সুবিধায় দ্বিপাক্ষিক চুক্তি করছে
বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হলে জিএসপি সুবিধা পাবে। এজন্য প্রয়োজনীয়
বিস্তারিত