এপথাস আলসার

এপথাস আলসার একধরনের মুখের ঘা। এই ঘায়ের ধরণ এমন যে এটি একবার হলে আবার হওয়ার প্রবণতা থাকে। সাধারণত এ ধরণের ঘা’য়ের স্থায়িত্ব ৭-১০ দিন।

মুখের যে কোন অংশে বিশেষত মাড়ি,জিহ্বা, তালু ইত্যাদিতে হতে পারে। এপথাস আলসার হওয়ার অনেক কারণ আছে।তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কারণগুলো হল-

১. অপুষ্টি
২. স্ট্রেস বা উদ্বিগ্নতা
৩. এলার্জী
৪. হরমোনের তারতম্য
৫. ঘা এর আশে পাশের কোন দাঁতের কারণে কামড় পড়া, খোঁচা লাগা বা ব্যথা পাওয়া
৬. সঠিকভাবে মুখ পরিষ্কার না রাখা
৭. ধূমপান

লক্ষণ:
১. ঘা হওয়া
২. জ্বালা পোড়া করা কিংবা চুলকানো
৩. অনেকসময় ব্যথা হতে পারে
৪. ঝাল খাবার কিংবা কার্বোনেটেড পানীয়ের সংস্পর্শে জ্বালা পোড়া ভাব বৃদ্ধি পাওয়া
৫. জিহ্বায় ঘা হলে খাওয়া দাওয়ায় কিংবা কথা বলায় সমস্যা হওয়া
৬. তালুতে হলে খাবার গলাধঃকরণ এ সমস্যা হওয়া

চিকিৎসা :
এই রোগের জন্য একজন ডেন্টাল সার্জনের শরণাপন্ন হতে হবে।
১. ঘা এর কারণ যদি আশে পাশের কোন ভাঙ্গা দাঁত কিংবা কোন দাঁতের ধারালো অংশ হয়, তাহলে ভাঙ্গা দাঁত উঠিয়ে নিতে হবে কিংবা সংরক্ষণ করতে হবে,দাঁতের ধারালো অংশ গ্রাইন্ডিং বা স্মুথ করে নিতে হবে।
২. ঘা’য়ে ব্যবহারের জন্য স্টেরয়েড জাতীয় মলম দেয়া যেতে পারে
৩. ঝাল ও কার্বনেটেড পানীয় পরিহার করতে হবে
৪. ধূমপান পরিহার করতে হবে
৫. মুখের পরিচ্ছন্নতা যথাযথভাবে বজায় রাখায় জন্য সঠিক নিয়ে ব্রাশ,ফ্লসিং ও মাউথ ওয়াশ ব্যবহার করতে হবে।
৬. অতিরিক্ত উদ্বিগ্নতা এড়িয়ে চলতে হবে।
৭. প্রয়োজনে ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট দেয়া যেতে পারে।

সূত্র: ডক্টোরোলা


ভূমিকম্প নিয়ে বিস্ময়কর ১২টি তথ্য
প্রায়ই বিশ্বের কোথাও না কোথাও বড় বড় ভূমিকম্প আঘাত হানে।
বিস্তারিত
ভাসমান বীজতলা ও শাকসবজি চাষে
শেরপুরের নকলা উপজেলায় জলাশয়ে শাকসবজি চাষ করাসহ ধানের বীজতলা তৈরি
বিস্তারিত
সিলেটের পর্যটন স্পটগুলোতে উপচে পড়া
সিলেটের জাফলং, লালাখাল, রাতারগুল, বিছনাকান্দি, পাংথুমাইকে ঘিরে পর্যটকদের আগ্রহ সারা
বিস্তারিত
মাচার উপরে শীতলাউ, নিচে আদা
শেরপুর জেলার নকলার ব্রহ্মপুত্র নদসহ অন্যান্য নদীর তীরবর্তী এলাকায় বছরের
বিস্তারিত
ভাড়ায় ‘আংকেল’!
অনেক সময় মনে হয় নিজের সমস্যাগুলো কাউকে বলতে পারলে মনটা
বিস্তারিত
কার আয়ু বেশি, ধনী না
যুক্তরাজ্যের একটি গবেষণা অনুযায়ী ধনীদের গড় আয়ু অপেক্ষাকৃত কম ধনীদের
বিস্তারিত