এপথাস আলসার

এপথাস আলসার একধরনের মুখের ঘা। এই ঘায়ের ধরণ এমন যে এটি একবার হলে আবার হওয়ার প্রবণতা থাকে। সাধারণত এ ধরণের ঘা’য়ের স্থায়িত্ব ৭-১০ দিন।

মুখের যে কোন অংশে বিশেষত মাড়ি,জিহ্বা, তালু ইত্যাদিতে হতে পারে। এপথাস আলসার হওয়ার অনেক কারণ আছে।তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য কারণগুলো হল-

১. অপুষ্টি
২. স্ট্রেস বা উদ্বিগ্নতা
৩. এলার্জী
৪. হরমোনের তারতম্য
৫. ঘা এর আশে পাশের কোন দাঁতের কারণে কামড় পড়া, খোঁচা লাগা বা ব্যথা পাওয়া
৬. সঠিকভাবে মুখ পরিষ্কার না রাখা
৭. ধূমপান

লক্ষণ:
১. ঘা হওয়া
২. জ্বালা পোড়া করা কিংবা চুলকানো
৩. অনেকসময় ব্যথা হতে পারে
৪. ঝাল খাবার কিংবা কার্বোনেটেড পানীয়ের সংস্পর্শে জ্বালা পোড়া ভাব বৃদ্ধি পাওয়া
৫. জিহ্বায় ঘা হলে খাওয়া দাওয়ায় কিংবা কথা বলায় সমস্যা হওয়া
৬. তালুতে হলে খাবার গলাধঃকরণ এ সমস্যা হওয়া

চিকিৎসা :
এই রোগের জন্য একজন ডেন্টাল সার্জনের শরণাপন্ন হতে হবে।
১. ঘা এর কারণ যদি আশে পাশের কোন ভাঙ্গা দাঁত কিংবা কোন দাঁতের ধারালো অংশ হয়, তাহলে ভাঙ্গা দাঁত উঠিয়ে নিতে হবে কিংবা সংরক্ষণ করতে হবে,দাঁতের ধারালো অংশ গ্রাইন্ডিং বা স্মুথ করে নিতে হবে।
২. ঘা’য়ে ব্যবহারের জন্য স্টেরয়েড জাতীয় মলম দেয়া যেতে পারে
৩. ঝাল ও কার্বনেটেড পানীয় পরিহার করতে হবে
৪. ধূমপান পরিহার করতে হবে
৫. মুখের পরিচ্ছন্নতা যথাযথভাবে বজায় রাখায় জন্য সঠিক নিয়ে ব্রাশ,ফ্লসিং ও মাউথ ওয়াশ ব্যবহার করতে হবে।
৬. অতিরিক্ত উদ্বিগ্নতা এড়িয়ে চলতে হবে।
৭. প্রয়োজনে ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট দেয়া যেতে পারে।

সূত্র: ডক্টোরোলা


গীতিকার ইলা মজিদের সাথে কিছুক্ষণ
লেখালেখির জগতে বেশ হাত পাকিয়েছেন ইলা মজিদ। ইতোমধ্যে কাশবনের দীর্ঘশ্বাস,
বিস্তারিত
ওদের প্রতিভা বিকাশের দায়িত্ব আমাদেরই
ওরা সবাই আমাকে ভালোবাসে। দূর থেকে আমাকে দেখতে পেলেই ভাইয়া
বিস্তারিত
পায়ে লিখেই জীবন গড়ার স্বপ্ন
মানুষ যেকোনও লেখালেখির কাজ সাধারণত হাত দিয়েই করে থাকে। হতে
বিস্তারিত
বিরিয়ানির হাঁড়িতে লাল কাপড় থাকে
বিরিয়ানি পছন্দ করেন না এমন লোক বাংলাদেশে খুঁজে পাওয়া কষ্ট
বিস্তারিত
ফের প্রকৃতির বুকে বিলুপ্ত হয়ে
প্রায় ১ লক্ষ ৩৬ হাজার বছর আগে সমুদ্রের তলদেশে নিশ্চিহ্ন
বিস্তারিত
সবচেয়ে বেশি হাসে যে দেশের
‘কোন দেশের মানুষ সবচেয়ে বেশি হাসে?’ এই প্রশ্নের জবাব খুঁজতে
বিস্তারিত