সিরাজদিখানে আমন ধানের বাম্পার ফলন: কৃষকের মনে আনন্দ

অনুকূল আবহাওয়ার কারণে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় এবার ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। উপজেলার কৃষকরা আগের সব লোকসান কাটিয়ে লাভের আশা করছেন। তাই কৃষকের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে। ধান পেকে যাওয়ায় বর্তমানে কৃষকরা ধান কাটতে ব্যস্ত সময় পার করছে। ধানের বাম্পার ফলনে কৃষকের মনে আনন্দ ঢেউ খেলছে।

বর্তমানে প্রথমদিকে লাগানো ধান কাটা চলছে। উপজেলায় ৭ দিনের মধ্যেই পুরোদমে  ধানা কাটা শুরু হবে। সরেজমিন দেখা যায়, চলতি মৌসুমে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের ২৭০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধানের চাষ হয়েছে। এ বছর গত বছরের তুলনায় রোগ-বালাই কম হয়েছে। উপজেলার কৃষকেরা এ বছর বোনা আমনের চেয়ে রোপা আমন চাষে বেশি আগ্রহী ছিল। কারণ বর্ষা মৌসুমে জমিতে সেচ না লাগায় এবং জমিতে সার, বীজ, কীটনাশক ও নিড়ানি খরচ কম লাগায় এতে কৃষকদের আগ্রহ বেড়ে যায়।

 জানা গেছে, চলতি বছর রোপা আমনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৩৫০ হেক্টর। আবাদ করা হয়েছে ২৭০ হেক্টর জমিতে। সময়মতো বীজ না পাওয়াতে লক্ষ্যমাত্রায় রোপা আমন চাষ করা যায়নি। রোপা আমনের মধ্যে রয়েছে ৪৯,৫১ কিন্তু ৫২ জাতের ধান সরবরাহ করেনি সিরাজদিখানে এ বছর বিএডিসি।
সিরাজদিখান কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মিজানুর রহমান মিজান জানান, এবার কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হওয়ায় রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ধানের বাম্পার ফলন হওয়াতে কৃষকরা দামও ভাল পাবে।
 


সন্ধ্যা নদীর পাড়ে জমজমাট ভাসমান
যুগ যুগ ধরে উপকূলীয় জেলাগুলোতে চাষাবাদ আমন ধানের। এই ধান
বিস্তারিত
নকলার জাম্বুরার কদর রাজধানীসহ সারাদেশে
শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায় জাম্বুরার বাম্পার ফলন হয়েছে। এখানকার জাম্বুরা
বিস্তারিত
দেড় হাজার টাকায় খামার শুরু,
গল্পের শুরুটা ২০০২ সালের। তৎকালীন চুয়াডাঙ্গা প্রাণীসম্পদ অফিসারের সহযোগিতায় মাত্র
বিস্তারিত
বাণিজ্যিক ভাবে বারোমাসি সজিনা চাষের
শেরপুরের নকলা উপজেলায় বারোমাসি সজিনা ডাটা চাষের গভীর সম্ভবনা দেখা
বিস্তারিত
কৃষি সংস্থার সবাই যেন একেকজন
মেধা, ইচ্ছা শক্তি আর অভিজ্ঞতা থাকলে কোন বাধাই কাউকে থামিয়ে
বিস্তারিত
পীরগঞ্জের রাজা নীলাম্বরের রাজধানীকে পর্যটন
রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার চতরা ইউনিয়নের রাজা নীলাম্বরের রাজধানীকে পর্যটন কেন্দ্র
বিস্তারিত