শসা চাষে সচ্ছলতা

শসা চাষের মধ্যদিয়ে ভাগ্য খোলার পথ খুঁজে পেয়েছে শেরপুরের নকলা উপজেলার অন্তত দেড় শতাধিক পরিবার। শসা বিক্রি করে এসব পরিবারে ফিরে এসেছে সচ্ছলতা।

গুণগত মান ভালো হওয়ায় তাদের উৎপাদিত শসা রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা শহরে সরবরাহ করা হচ্ছে। বিষমুক্ত হওয়ায় স্থানীয়ভাবেও চাহিদা বেড়েছে। শসা চাষের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ভাগ্য পরিবর্তনকারীদের মধ্যে সুজন ও মোজাম্মেল নামে দুই ভাই সবার নজর কেড়েছেন। দরিদ্র পরিবারে জন্ম নেয়ায় পড়ালেখায় বেশি এগুতে না পারলেও শসা চাষে তারা সফল হয়েছেন।

 ১০ বছর ধরে শসা চাষ করে তারা চমক দেখিয়েছেন। শসা চাষে উপজেলায় মডেলে পরিণত হয়েছেন। তাদের সফলতা দেখে অনেকেই ঝুঁকছেন শসা চাষে ।

সরেজমিন কথা হয়, পাইস্কা গ্রামের শসা চাষি সুজনের সঙ্গে। তিনি জানান, ২০০৮ সালে মাত্র ৩৫ শতাংশ জমি বর্গা নিয়ে সম্পূর্ণ বিষমুক্তভাবে ফেরোমন ফাঁদ ও পার্চিং ব্যবহারের মাধ্যমে শসা চাষ করায় ওই বছর প্রায় অর্ধলক্ষ টাকা লাভ হয়। এতে তার আগ্রহ বেড়ে যায়। পরের বছর থেকে পর্যায়ক্রমে শসার আবাদ বৃদ্ধি করতে থাকেন তিনি।

এ বছর বিষমুক্ত শসা উৎপাদনের লক্ষ্যে তিনি দুই একর জমি প্রতি একর ২৫ হাজার টাকা বছর হিসেবে মোট ৫০ হাজার টাকায় লিজ নিয়ে শসা চাষ করেছেন। এই দুই একর জমিতে শসা চাষে মোট ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। বর্তমানে তার শসা ক্ষেতে ১০ থেকে ১৫ জন শ্রমিক নিয়মিত কাজ করছেন। অক্টোবরের ১৫ তারিখে হাইব্রিড-১০২, অলরাউন্ডার-২, চমক ও ইস্পাহানি-২ জাতের শসা বীজ বপন করার ৪৫ দিন পরে শসা তোলা শুরু করেন। দুই দিন পরপর প্রায় ১০০ মণ করে শসা তোলেন তিনি। শুরুতে প্রতি মণ ৭০০ থেকে ৮৫০ টাকা করে বিক্রি করা হলেও বর্তমানে প্রতি মণ শসা ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা করে বিক্রি করছেন।

 তার দেয়া হিসাব মতে, এ পর্যন্ত তিনি ৩ লাখ ৪৫ হাজার টাকার শসা বিক্রি করেছেন। কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে আরও ৩ লক্ষাধিক টাকার শসা বিক্রি করতে পারবেন বলে আশা করছেন। এতে করে দুই একর জমিতে তিন মাসের এ সবজি থেকে তার লাভ হবে ৩ লাখ থেকে ৪ লাখ টাকা।

আগামীতে শসার আবাদ বৃদ্ধি করবেন বলে তিনি নতুন করে আরও দুই একর জমি লিজ নিয়েছেন। তার দেখাদেখি পাইস্কা এলাকার মোজাম্মেল, শফিক, শহিদুল, সুহেল, সালাম, মহিউদ্দিন, লিয়াকত, রহুল; উপজেলার গৌড়দ্বার, চন্দ্রকোনা, চরঅষ্টধর, পাঠাকাটা ও বানেশ্বার্দী ইউনিয়নের অনেক কৃষক বাণিজ্যিকভাবে শসা চাষ করে লাভবান হচ্ছেন।

 


মতলব উত্তরে আখের বাম্পার ফলন
মতলব উত্তর উপজেলায় এ বছর চিবিয়ে খাওয়া আখের বাম্পার ফলন
বিস্তারিত
রংপুরে সড়ক-মহাসড়কে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে অবৈধ
রংপুরে সড়ক-মহাসড়কগুলোতে ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে অবৈধ নছিমন, করিমন, মুড়িরটিন, মোটরসাইকেল,
বিস্তারিত
দেশের চাহিদা পূরণ করে রপ্তানির
রংপুর বিভাগে পোলট্রি শিল্পের ১১ বছরে প্রসার হয়েছে ১১ গুণের
বিস্তারিত
জগন্নাথপুরে আমন রোপণে কোমর বেঁধে
আর ১৫ দিন পরেই শেষ হচ্ছে ভাদ্র মাস। ভাদ্র মাসের
বিস্তারিত
এবার রংপুরে বেশি পশু
রংপুর বিভাগে এবার ঈদে বেশি পশু কোরবানি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
বিস্তারিত
সিরাজগঞ্জে জমে উঠেছে কোরবানি পশুর
সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন স্থানের হাটগুলোয় প্রচুর কোরবানির পশু উঠেছে। গতবারের চেয়ে
বিস্তারিত