নকলায় মানচিত্র-পতাকা তৈরি ও বিক্রির ধুম

 মহান বিজয় দিবসকে সামনে রেখে শেরপুরের নকলায় বাংলাদেশের মানচিত্র, বিভিন্ন ধরনের পতাকা ও মহান বিজয় দিবস লেখা বিভিন্ন বন্ধনী বিক্রি ও তৈরির ধুম পড়ে গেছে।

ফেরিওয়ালা রহুল আমিন ও এসএসসি পরিক্ষার্থী নাসির জানান, লেখাপড়ার পাশাপাশি পতাকা ও মানচিত্র ফেরি করে যা লাভ হয় তা দিয়ে তারা পড়ালেখার খরচ চালান। যতদিন পর্যন্ত লেখাপড়া শেষ না হবে বা অন্য কোন সম্মানজনক পেশা খোঁজে না পাবেন ততদিন এ পেশাই ধরে রাখতে চান তারা।

পতাকা সেলাইয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন দর্জিরাও। লাখো শহীদের রক্তে, মা-বোনদের সম্মান আর ভাইদের ত্যাগের বিনিময়ে অর্জিত এই দেশ। তারই প্রতীকী উপস্থাপনা এই মানচিত্র ও পতাকা। তাই প্রতিটি ঘরে বাংলাদেশের মানচিত্র ও পতাকা পৌঁছে দিতে এবং মানবিক মূল্যবোধে অনুপ্রাণিত হয়েই তারা মৌসুমী পেশা পতাকা বিক্রির কাজ বেছে নিয়েছেন।

নকলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, গোপালগঞ্জের নাসির, রহুল ও ইসমাইল, মাগুরার আছাদ, মানিকগঞ্জের ময়না, নরসিংদির সাত্তারের মত অনেকেই বাংলাদেশের মানচিত্র, বিভিন্ন ধরনের পতাকা ও মহান বিজয় দিবস লেখা বিভিন্ন বন্ধনী বিক্রি করতে তারা নকলায় অবস্থান করছেন। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পায়ে হেঁটে বিভিন্ন ধরন ও দামের পতাকা, মানচিত্র বাঁশের মধ্যে বেধ সাজিয়ে গ্রাম-বাজার ঘুরে বিক্রি করেন।

তাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ওইসব পন্যের দাম ১০ টাকা থেকে ৩৫০ টাকা পর্যন্ত। তারা প্রতি মৌসুমে গাজীপুর হতে ৭ থেকে ৮ হাজার টাকার পণ্য কিনে আনেন। প্রতিদিন ১৫০ থেকে ৩০০ টাকা লাভ থাকে তাদের। বিক্রি শেষে প্রতি মৌসুমে ৪ থেকে ৫ হাজার টাকা করে প্রতি জনের লাভ থাকে। এ লাভের টাকা দিয়েই চলে তাদের পড়ালেখার খরচ।

ফেব্রুয়ারি, মার্চ ও আগস্ট মাসে বিক্রি ভালো হলেও ডিসেম্বরে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়। এই চার মাসের মত সারা বছর ওইসব বিক্রি হলে অন্য কোন পেশার চিন্তা করতে হতোনা বলেও জানান তারা। সারাবছর সেলাইয়ের কাজ থাকলেও বিশেষ কিছুদিনকে সামনে রেখে পতাকা তৈরিতে ব্যস্ত থাকতে হয় দর্জিদের। এমনটাই জানালেন শফিক, সাত্তার, কালাম, রহুলসহ বেশ কিছু টেইলার্স মালিক।
তারা জাতির কাছে কিছুনা চাইলেও এইটুকু আশা করেন যে, অন্তত বাঙালি জাতি হিসেবে সবার ঘরে একটি করে পতাকা ও মানচিত্র থাকুক। তাতে শিশুরা পতাকা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করে ছোটবেলা থেকেই জাতি ও বাংলা ভাষার প্রতি আন্তরিক হবে। এমনকি, দেশ প্রেমিক হয়ে উঠবে।

 


মতলব উত্তরে আখের বাম্পার ফলন
মতলব উত্তর উপজেলায় এ বছর চিবিয়ে খাওয়া আখের বাম্পার ফলন
বিস্তারিত
রংপুরে সড়ক-মহাসড়কে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে অবৈধ
রংপুরে সড়ক-মহাসড়কগুলোতে ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পেয়েছে অবৈধ নছিমন, করিমন, মুড়িরটিন, মোটরসাইকেল,
বিস্তারিত
দেশের চাহিদা পূরণ করে রপ্তানির
রংপুর বিভাগে পোলট্রি শিল্পের ১১ বছরে প্রসার হয়েছে ১১ গুণের
বিস্তারিত
জগন্নাথপুরে আমন রোপণে কোমর বেঁধে
আর ১৫ দিন পরেই শেষ হচ্ছে ভাদ্র মাস। ভাদ্র মাসের
বিস্তারিত
এবার রংপুরে বেশি পশু
রংপুর বিভাগে এবার ঈদে বেশি পশু কোরবানি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
বিস্তারিত
সিরাজগঞ্জে জমে উঠেছে কোরবানি পশুর
সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন স্থানের হাটগুলোয় প্রচুর কোরবানির পশু উঠেছে। গতবারের চেয়ে
বিস্তারিত