বেপরোয়া সবজি বাজার!

আবার বেপরোয়া হয়ে উঠেছে সবজি বাজার। দাম বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। পুরো শীতকাল দাম ক্রেতাদের হাতের নাগালে থাকার কথা থাকলেও গত সপ্তাহ থেকেই সবজির দাম বাড়তি। কুয়াশায় সবজি নষ্ট ও পরিবহন সংকটকে দায়ী করছেন ব্যবসায়ীরা। সবজিভেদে এরইমধ্যে দাম বেড়েছে ১০-২০ টাকা। অস্থিরতা চাল-পিঁয়াজের দামেও।

রাজধানীর পুরান ঢাকার বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) এ তথ্য জানা যায়।

সবজির খুচরা বাজারের তথ্য অনুযায়ী, প্রতিকেজি বেগুন ১০ টাকা বেড়ে ৬০ টাকায়, সিম ১০ টাকা থেকে বেড়ে ৬০, পেঁপে ২৫ টাকা, আলু ২৫ টাকা, মূলা ২০ টাকা, কাঁচামরিচ ৮০ টাকা, দেশি টমেটো ৫০ টাকা, ঢেঁড়শ ৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া আগের দামে আমদানি করা টমেটো ৮০, গাজর ৪০-৫০, টাকা করে শসা ৪০-৫০, প্রতি পিস বাঁধাকপি ও ফুলকপি ২০-৩০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া লাল শাক, পালং শাক ও ডাটা শাক দুই আঁটি ১৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

সবজির খুচরা বিক্রেতা খুরশেদ বলেন, ঘন কুয়াশায় প্রচুর পরিমাণে সবজি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া দেখা দিয়েছে পরিবহন সংকটও। সব মিলিয়ে এখন বাজারে সবজির দাম বাড়তি।

দেশি পিঁয়াজের দামে নতুন করে লেগেছে মূল্যবৃদ্ধির হাওয়া। গত সপ্তাহে ৭০ টাকা কেজি বিক্রি হওয়া দেশি পিঁয়াজ এখন ৮০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। আমদানি করা পিঁয়াজও বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা কেজিতে।

বাজার করতে আসা এক ক্রেতা বলেন, সবজির দাম আবার আগের মতো হয়ে গেছে। পিঁয়াজ, সবজি, চাল- কোনো কিছুতেই ক্রেতাদের স্বস্তি নেই। বাজার দর ধীরে ধীরে মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্তের নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছে।

চালের বাজারের অস্থিরতাও এখনো বিরাজমান। চালের সবশেষ খুচরা বাজারের তথ্য অনুযায়ী, কেজিপ্রতি নাজিরশাইল চাল বিক্রি হচ্ছে ৬৮-৭০ টাকা, মিনিকেট ৬০-৬২ টাকা, বিআর-২৮ ৫২ টাকা,পারিজা কেজিপ্রতি বিক্রি হচ্ছে ৪৪ টাকা।

সবশেষ খুচরা বাজারের তথ্য অনুযায়ী, দেশি রসুন ৮০ টাকা, আমদানি করা রসুন ৮৫ টাকা, চিনি ৫৫-৬০ টাকা, দেশি মসুর ডাল ১০০-১২০ টাকা ও আমদানি করা মসুর ডাল ৬০ টাকা কেজি করে বিক্রি হচ্ছে। অপরিবর্তিত রয়েছে মাছ ও মাংসের দাম।

মাছের বাজারের অথ্য অনুযায়ী, প্রতিকেজি কাতল মাছ ২২০ টাকা, পাঙ্গাশ  ১২০ টাকা, রুই ২৩০-২৮০ টাকা, সিলভারকার্প ১৩০ টাকা, তেলাপিয়া ১৩০ টাকা, শিং ৪০০ টাকা ও চিংড়ি ৪৫০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

গরুর মাংস প্রতিকেজি ৪০০-৪৫০ টাকা, খাসির মাংস ৭০০-৭৫০ টাকা ও ব্রয়লার মুরগি ১৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া সোনালি মুরগি প্রতি পিস সাইজ অনুযায়ী ১৫০-২২০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।


ঈদ যাত্রায় মহাসড়কের অবস্থা জানাবে
ঈদ যাত্রায় মহাসড়ক, রেলস্টেশন ও লঞ্চ টার্মিনালের অবস্থা নিজেদের বিভিন্ন
বিস্তারিত
ফখরুলের বক্তব্য রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল: কাদের
শুধু নিরাপদ সড়ক নয়, নিরাপদ বাংলাদেশের জন্য এবার দেশকে স্বাধীন
বিস্তারিত
ফেসবুকে গুজব: ৩ দিনের রিমান্ডে
ছাত্র আন্দোলন নিয়ে ফেসবুকে ‘উস্কানিমূলক’ পোস্ট ও ‘গুজব’ ছড়ানোর অভিযোগে
বিস্তারিত
ঈদযাত্রা স্বস্তিদায়ক হবে, সড়কমন্ত্রীর আশা
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমার বিশ্বাস এবারের
বিস্তারিত
আন্দোলনে উসকানির অভিযোগে দুই শিক্ষার্থী
নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালে ফেসবুকে বিভিন্ন উসকানিমূলক তথ্য
বিস্তারিত
কওমি সনদ স্বীকৃতির আইন মন্ত্রিসভায়
কওমির দাওরায়ে হাদিস সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি সমমান দেয়া সংক্রান্ত একটি
বিস্তারিত