বৃহৎ জোটের উদ্যোগ বিএনপির

বিএনপি ও ২০ দলের শীর্ষ নেতারা জানিয়েছে, আওয়ামী লীগ ছাড়া দেশের সব রাজনৈতিক দলকে নিয়ে শিগগিরই একটি বৃহৎ জোট করার উদ্যোগ নিয়েছে বিএনপি। এই জোটটি সহায়ক সরকারের দাবির পাশাপাশি প্রয়োজনে নির্বাচনী জোটেও পরিণত হতে পারে।

অবশ্য ২০ দলের বাইরে থাকা রাজনৈতিক দলগুলো বলছে, বিএনপি তাদের নিজস্ব ইস্যু ছাড়া কখনই আন্দোলন করেনি। তাই তাদের সাথে একই প্লাটফর্মে আন্দোলনে যাবে কিনা তা নিয়েও সংশয়ে রয়েছে তারা।

২০১১ সালের ৩০ শে জুন সংবিধান থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল হওয়ার পর থেকেই এর বিরুদ্ধে রাজপথে আন্দোলন করে আসছিল বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোট। প্রায় ৭ বছর আন্দোলন করেও কোন ফল না পাওয়ায় বেশ কিছুদিন ধরে সহায়ক সরকার ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে বৃহৎ জোট করার কথা ভাবছে বিএনপি।

বিশেষ করে গত ৮ই ফেব্রুয়ারি বেগম খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডের পর জোটের পরিধি বাড়ানোর বিষয়টি নিয়ে নতুন করে তৎপরতা শুরু করেছে দলটি। এরইমধ্যেই বিভিন্ন দলের সাথে যোগাযোগ শুরু হয়েছে জানিয়ে বিএনপি ও জোটের শীর্ষ নেতারা বলছেন, আওয়ামী লীগ ছাড়া সব রাজনৈতিক দলকেই জোটে আমন্ত্রণ জানানো হবে। বিবেচনায় থাকবে জাতীয় পার্টিও।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, 'একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হয়, তার পরিবেশ সৃষ্টি হয় হয়, লেবেল প্ল্যায়িং ফিল্ড হয় এই ইস্যুতে বাইরের অনেক দলই একমত। এজন্য আওয়ামী লীগ ছাড়া আমরা স দলের সঙ্গেই আলাপ করছি।'

কর্নেল অলি বলেন, এখানে বাম-ডান বলতে কিছু নেই। বিশেষ করে যারা গণতন্ত্র পুনঃ প্রতিষ্ঠান করতে চায় তাদেরকেই আমাদের দলে নেয়া হবে।

খন্দকার মোশাররফ আরো বলেন, 'মহাজোটের সঙ্গে আওয়ামী লীগের অনেকেই নেই। তাই তাদেরও আমন্ত্রণ করা হবে।'

বিষয়টিকে ইতিবাচক দেখলেও ২০ দলীয় জোটের বাইরে থাকা দলগুলো বলছে, বিএনপি গত ১০ বছর কখনই জনগণের ইস্যুতে মাঠে নি। তাই তাদের সঙ্গে একই প্লাটফর্মে আন্দোলন কতটা যৌক্তিক হবে তা নিয়ে দ্বিধায় রয়েছেন তারা।

নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, 'ওনারা যখন ওনাদের জায়গায় আঘাত পরেন তখনই তারা এগিয়ে আসেন, না হলে তাদের পাওয়া যায় না। আমরা ওনাদের সঙ্গে যাবো কিনা তা নিয়ে দ্বিধায় রয়েছি।'

এছাড়া বৃহৎ আকারে করা জোটে এসব রাজনৈতিক দলকে বিএনপি ইতিবাচকভাবে কতটুকু মূল্যায়ন করবে তা নিয়েছে শঙ্কা রয়েছে তাদের।


যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের মানবাধিকার পরিস্থিতি দেখা
বাংলাদেশের নির্বাচন ও মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট যে
বিস্তারিত
তারা যদি না চায় তাহলে
ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নূর বলেছেন- গণভবনে যাওয়ার বিষয়ে কেউ
বিস্তারিত
ডাকসু নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে বললেন
ডাকসু নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে, তা না হলে সব পদেই ছাত্রলীগ
বিস্তারিত
খালেদা জিয়ার হাতে-পায়ে খুবই ব্যথা:
খালেদা জিয়ার আদালতে হুইলচেয়ারে বসতে কষ্ট হচ্ছে জানিয়ে বিএনপির মহাসচিব
বিস্তারিত
ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি হতে
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের
বিস্তারিত
'স্বাধীনতাবিরোধীরা যেন ক্ষমতায় আসতে না
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অশুভ চক্রের ষড়যন্ত্র সম্পর্কে দেশবাসীকে আবারো সতর্ক
বিস্তারিত