ঋদ্ধতার গান

এখন রুমি, উনিশতম রাত্তিতে 
এমন একটা কক্ষে আমি আছি
যেখানে কৃত্রিম আলো হাওয়ার মাঝে 
মানুষের উচ্ছ্বাস সযতেœ ঘুমিয়েছে

মনে পড়ছে হাজার প্রাণের উচ্চারণসমÑ
আমাদের শ্রমণ, সেদিন দেহকে মাটি পর্যন্ত ছুঁতে দেয়নি 
তুমিও তো সোনা, আমিও তো 

অথচ অশান্ত আয়ু-অবধি 
এই আক্রান্ত মাংস-মজ্জার রাগে
এখন কী করে ঘুমাই বলো
এমন তো পরিচ্ছন্ন পরাগ নেই
যা তোমার দেহ থেকে উপচে পড়েছে
এমন তো মখমল বুঝি না 
যা সেদিন জাপটে ধরেছিল মমতায়

এরকম সুন্দর বয়ান কীভাবে পড়া হয় 
সহ্যহীন, যন্ত্রণাহীনÑ অনঙ্গ নিয়মে!
তাই স্পর্শাতীত কিছুমাত্র শব্দবিধিতে 
লিখে যাচ্ছি রুমি
শেষ ঋদ্ধতার কথা

যে নৃত্য-হলাহল ছিঁড়ে ফেলে ধ্যানির আসন
রাজার অহং দিত মুছেÑ 
সে তোমার গভীর কামনা  
না না আর বুঝি না 
আর তো জানি না, না... 


আয়না সিরিজ
এনাম রাজু     এক   রাত কাটেÑ জলশূন্য মাছের মতো অথচ-আমি গাছে গাছে ঘুরি, চিৎকার আর্তনাদ নীরবতা
বিস্তারিত
আমরা হাঁটি শহীদ মিনারের দিকে
বিধ্বস্ত রক্ত ভেজা পলি, এভাবে গড়াগড়ি খায়Ñ হরিণির সাড়ে বারোহাত লাফ,
বিস্তারিত
নতুন যুগ
নতুন যুগ, তুমি তোমার ভালোবাসা দিয়ে আমাদের কাপড়, জ্বালানির কষ্ট মুছে
বিস্তারিত
প্রেমিক হব
প্রেমিক হওয়ার শখ? প্রেমিক হও, সন্ন্যাসি হও, বৈষ্ণব হও বিরহি হও, বাধা
বিস্তারিত
কবিতার বই ‘নিমগ্ন দহন’
বেশ কিছু কবিতা দিয়ে সাজানো হয়েছে ফখরুল হাসানের কবিতার বই
বিস্তারিত
প্রসন্ন সাঁঝের পাখি ও ভয়াল
পাটাতনে বসে আহত পালাসি-গাঙচিল বিস্ফারিত নয়নে আমাদের দেখছে। ধীরে ধীরে
বিস্তারিত