আমার মা-ই পৃথিবীর সেরা


​‘মা’, এই ছোট্ট শব্দটির মধ্যে পৃথিবীর তামাম সুখ নিহিত। মা কথাটির মতো এমন মধুর ডাক পৃথিবীতে আর একটিও নেই। মা মানেই নিশ্চিত নিরাপত্তা; মা মানেই নিরাপদ আশ্রয়; একবুক নিঃস্বার্থ ভালোবাসা। মায়ের অকৃপণ স্নেহমমতা, অকৃত্রিম ভালোবাসা কোনো শব্দ বা ভাষা দিয়েই প্রকাশ করা সম্ভব নয়। 
মায়ের প্রত্যাশাহীন, প্রাপ্তিহীন নির্ভেজাল ভালোবাসা শুধু হৃদয় দিয়েই অনুধাবন করা যায়, করতে হয়। তাই তো মায়ের সঙ্গে সন্তানের সম্পর্ক অবিচ্ছেদ্য, নাড়ির সম্পর্ক। দশ মাস পেটে ধারণ করে অসহনীয় কষ্ট, অসহ্য যন্ত্রণা সহ্য করে মা সন্তান জন্ম দেন। তাই মায়ের ঋণ অপরিশোধ্য। হাদিসে আছে, ‘মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত।’ 
যদিও মাকে ভালোবাসার জন্য বিশেষ কোনো দিনক্ষণের প্রয়োজন হয় না। কারণ মায়ের সেবায় সারাদিন, সারাবছর, সারাজীবন ব্যয় করলেও কোনোকিছুর বিনিময়েই মায়ের ঋণ কখনোই শোধ করা সম্ভব নয়। গানের ভাষায়-
‘মায়ের একধার দুধের দাম
কাটিয়া গায়ের চাম
পাপোশ বানাইলে ঋণের শোধ হবে না
আমার মাগো।
পিতা আনন্দে মাতিয়া
সাগরে ফেলিয়া
সেই যে চইলা গেল
ফিরা আইলো না...।’
মাকে নিয়ে যত লিখতে চাই, ততই যেন কম হবে। তারপরও একটুখানি লেখার দুর্নিবার ইচ্ছা দমন করতে পারলাম না। আমার মায়ের কথা বলতে গেলে প্রথমেই বলতে হয়-
‘রাজার আছে রাজমহল, আমার আছে মা!
মা ছাড়া এই দুনিয়ায় আর কিছু চাই না।’
মা-ই আমার পৃথিবী। আমার মা! যে কখনও আমার মতো চোখে কাজল আঁকে না, ঠোঁটে রং মাখে না। এমনকি আমার মতো ছবি তুলতেও পছন্দ করে না। তারপরও সে আমার কাছে পৃথিবীর সেরা মা। সে অতিসাধারণ, কিন্তু আমার কাছে অসাধারণ, অমূল্য সম্পদ। তার এই সারল্য, অকৃত্রিম ও সাদাসিধে মুখই আমার অহংকার। আমার মা-ই আমার কাছে পৃথিবীর সেরা।
সবার কাছে ‘মা’ ডাক অতিপ্রিয় এবং প্রত্যেকের কাছেই তার মা-ই সেরা। কিন্তু তারপরও বলব, আমার মা অন্য মায়েদের ব্যতিক্রম এবং সবার সেরা ‘মা’। তাই তো ‘দমে দমে তুমি মা মনে মনে তুমি মা’।
যদিও মাকে শ্রদ্ধা-ভালোবাসা জানানোর কোনো নির্দিষ্ট দিনক্ষণ নেই। একদিন মায়ের প্রতি ভালোবাসা দেখিয়ে মায়ের ঋণ শোধ কখনোই সম্ভব নয়। মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা-ভালোবাসা প্রতি মুহূর্তের, কাজের ফাঁকে যারা মাকে সময় দিতে পারেন না বা দূরে থাকেন, তারা এই মা দিবসে মাকে ভালোবাসা জানাবেন। বলি বলি করে যে কথাটি মাকে আর বলা হয়ে ওঠেনি, এই দিনটিতে বলুন- মা আমি তোমাকে ভালোবাসি। তুমি আমার সুখ, তুমি আমার অস্তিত্ব। আল কোরআন আছে, ‘যে গর্ভ তোমাকে ধারণ করেছে সে গর্ভধারিণী মায়ের প্রতি কর্তব্য করো ও শ্রদ্ধা নিবেদন করো।’ তাই কখনও মায়ের মনে কষ্ট দেওয়া উচিত নয়।
পৃথিবীর সব মায়ের জন্য বিনম্র শ্রদ্ধা ও অফুরন্ত ভালোবাসা।


আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষণ পেলেন ৯০ প্রাণী
পোলট্র্রির বিজ্ঞানসম্মত স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা, সঠিকভাবে রোগবালাই নির্ণয়, চিকিৎসা এবং রোগ
বিস্তারিত
সবার উপরে বাবা-মা
যে-কোনো মানুষের গায়ে হাত তোলাই অপরাধ। আর সন্তান হয়ে বাবা-মায়ের
বিস্তারিত
স্মৃতির মানসপটে যুক্তরাজ্য সফর
বিদেশে যাওয়ার অভিজ্ঞতা হয়তো অনেকেরই হয়ে থাকে। তবে কলেজের প্রতিনিধি,
বিস্তারিত
ব্যবসার ধারণা : গড়তে চাইলে
নিজের পায়ে দাঁড়াতে হলে আপনাকে উদ্যোগী হতে হবে। আর উদ্যোক্তা
বিস্তারিত
৭৫ শতাংশ বৃত্তিতে আইটি ও
বিভিন্ন কারণে যারা আইটিতে দক্ষতা উন্নয়নের সুযোগ থেকে বঞ্চিত তাদের
বিস্তারিত
লক্ষ্য যখন কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়
ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিপরীতে ক্রমাগত উর্বরা জমির পরিমাণ কমছে। জনসংখ্যার এ
বিস্তারিত