নিয়তি

হাঁটা শেষে পথিক রেখে যায় পদচিহ্ন
তারপর মদের গন্ধের মতো সময় পালায়
আবার নতুন পা আসে
দাঁড়ায়, হাঁটে একই গন্তব্যে
চোখে রোদ-আলো, অন্ধরাতের পাহারা
কনকলতা কিংবা কখনও ছুরি হাতে
ভারী ভারী পা ফেলে
সারি সারি চরণচিহ্ন রেখে
চলে যায় অজস্র পথিক, অগণিত দিন
উড়ে যায় ধোঁয়া হয়ে পলকে পলকে

মানুষ নিঃশেষ হলে পদচিহ্ন থাকে
থেকে থেকে মিশে যায় মলিন ধুলায়।


আরব ছোটগল্পের রাজকুমারী
সামিরা আজ্জম ১৯২৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের আর্কে একটি গোঁড়া
বিস্তারিত
অমায়ার আনবেশে
সাদা মুখোশে থাকতে গেলে ছুড়ে দেওয়া কালি  হয়ে যায় সার্কাসের রংমুখ, 
বিস্তারিত
শারদীয় বিকেল
ঝিরিঝিরি বাতাসের অবিরাম দোলায় মননের মুকুরে ফুটে ওঠে মুঠো মুঠো শেফালিকা
বিস্তারিত
গল্পের পটভূমি ইতিহাস ও বর্তমানের
গল্পের বই ‘দশজন দিগম্বর একজন সাধক’। লেখক শাহাব আহমেদ। বইয়ে
বিস্তারিত
ধোঁয়াশার তামাটে রঙ
দীর্ঘ অবহেলায় যদি ক্লান্ত হয়ে উঠি বিষণœ সন্ধ্যায়Ñ মনে রেখো
বিস্তারিত
নজরুলকে দেখা
আমাদের পরম সৌভাগ্য, এই উন্নত-মস্তকটি অনেক দেরিতে হলেও পৃথিবীর নজরে
বিস্তারিত