পাহাড়ে বিন্না ঘাস রোপণ করলেন থাই রাজকুমারী

পাহাড়ক্ষয় রোধে দেশের প্রথম বিন্নাঘাস (ভেটিভার) প্রকল্প বা ‘ভেটিভার’ গ্রাস ডেভেলপমেন্ট সেন্টারের উদ্বোধন করলেন থাইল্যান্ডের রাজকুমারী সাইপাট্টানা ফাউন্ডেশনের মাহা চাকরি সিরিনধর্ন। বুধবার বেলা ১১টায় বন্দরনগরীর টাইগার পাসের বাটালি হিল মিঠা পাহাড়ের পাদদেশে ভেটিভার সেন্টারে থাই রাজকুমারী, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের হাতে বিন্না ঘাসের চারা তুলে দিয়ে এ সেন্টারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। তিনি ভেটিভার সেন্টারে একটি গাছের চারা রোপণ এবং প্রকল্পের কাজ ঘুরে দেখেন।  

অনুষ্ঠানে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, এ দেশের মানুষকে জলবায়ু পরিবর্তনের  বিরূপ প্রভাব মোকাবিলা করতে হচ্ছে। ভারি বর্ষণের কারণে ভূমি ধস হচ্ছে। বাংলাদেশের জনগণ এর প্রভাব ভোগ করছে। পাহাড় ধস রোধে বিন্না ঘাস লাগানোর এই প্রকল্পে সহায়তা করায় থাই রাজকুমারীকে ধন্যবাদ জানান তিনি। থাইল্যান্ডের রয়্যাল চাই পাত্তানা ফাউন্ডেশনের সঙ্গে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু মন্ত্রণালয় এ প্রকল্পে কাজ করবে। মন্ত্রী তার মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ প্রকল্পের জন্য দুই কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়ারও ঘোষণা দেন।

চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, চট্টগ্রাম বাংলাদেশের দ্বিতীয় শহর। চট্টগ্রাম শহর পাহাড় বেষ্টিত। এখানে অতিবৃষ্টির কারণে পাহাড়ক্ষয় হয়। পাহাড়ের মাটি এসে শহরের নালাগুলো ভরে যায়। এতে নালার পানি নিষ্কাষণ বন্ধ হয়ে জলযট দেখা দেয়। এসব বিষয় বিবেচনায় এনে পাহাড়ক্ষয় রোধে বিন্নাঘাস প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। 

বুয়েটের অধ্যাপক শরীফুল ইসলাম ১০ বছরের বেশি সময় ধরে ভেটিভার নিয়ে গবেষণা করছেন। যার ধারাবাহিকতায় এ ধরনের সেন্টার এদেশে এটিই প্রথম । এ সেন্টারটির উদ্দেশ্য হলো বিন্নাঘাসের ব্যাপক ব্যবহার সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ ও ওয়ার্কশপ আয়োজন করা। বুয়েটের সঙ্গে যৌথভাবে পাহাড়ধস নিরসনে এর ব্যাপক ব্যবহার করা হবে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত পানপিমন সুবান্নাপংসে  বলেন, ভারি বর্ষণে পাহাড় ধস রোধে থাই দূতাবাসের পক্ষ থেকে এই প্রকল্পে অংশগ্রহণের জন্য চাই পাত্তানা ফাউন্ডেশনকে অনুরোধ জানানো হয়। চট্টগ্রাম মানুষের উপকারের জন্য সিটি করপোরেশনের সঙ্গে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন ও প্রশিক্ষণে আমরা কাজ করব। 

অন্যদের মধ্যে অনুষ্ঠানে চাই পাত্তানা ফাউন্ডেশনের সুমেট তান্তিভেজকুল এবং এ প্রকল্পের কারিগরি সহায়তায় থাকা বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ শরীফুল ইসলামও বক্তব্য দেন ।

অধ্যাপক শরীফুল জানান, বাংলাদেশে যা বিন্না ঘাস, বিদেশে এর নাম ভেটিভার। বিশ্বের শতাধিক দেশে নদী তীর ও বাঁধ রক্ষা এবং পাহাড়ে ভূমিক্ষয় ঠেকাতে এ ঘাস ব্যবহার করা হয়। চার থেকে ছয় মাসেই এ ঘাসের শেকড় মাটির ছয় থেকে দশ ফুট গভীরে ছড়িয়ে পড়ে।  এর শেকড়ের সহনশক্তি ইস্পাতের ছয় ভাগের এক ভাগ। প্রতিকূল পরিবেশে সহজেই মানিয়ে নেওয়ার এবং টিকে থাকার ক্ষমতা আছে এই ঘাসের। 

এরআগে থাইল্যান্ডের রাজকুমারী মাহা চাকরি সিরিনধর্ন এবং সফরকারী দল বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় ঢাকা থেকে বিমানযোগে চট্টগ্রামে আসেন।  

 


বিএনপির কর্মী ভেবে ডিএসবি সদস্যকে
বিএনপির কর্মী মনে করে প্রকাশ্যে রাস্তায় ডিএসবির কনস্টেবল আবুল বাশারকে
বিস্তারিত
ঝুলে আছে গৃহবধূর লাশ, পালালো
নোয়াখালীর সেনবাগের মোহম্মদপুর ইউনিয়ন থেকে হাছিনা আক্তার পাখি (৩০) নামের
বিস্তারিত
আশুলিয়ায় প্রতারনা চক্রের ১২ সদস্য
চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে প্রতারক
বিস্তারিত
টাঙ্গাইলে পাসপোর্ট অফিসের ৭ দালালের
টাঙ্গাইলে র‌্যাব-১২ অভিযানে আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের ৭ দালালকে আটক করে
বিস্তারিত
সীমান্তে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে
ফেনী ৪ বিজিবি ব্যাটালিয়নের নবনিযুক্ত পরিচালক লে. কর্ণেল মোঃ কামরুজ্জামান
বিস্তারিত
জাহাজ থেকে পানিতে ফেলে শ্রমিক
চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে এক শ্রমিক কর্তৃক অপর শ্রমিককে ধাক্কা দিয়ে পানিতে
বিস্তারিত