জোছনা ইশারা

খিলান ছুঁয়েছে মাটি স্মৃতিগুলো ঢেকেছে শ্যাওলায়

বৃক্ষের সমূহ ছায়ায় ছেঁড়া ছেঁড়া বাতাসেরা
আঁধারের মাঝে যেন বাতিঘর
সেই সে বিরুদ্ধকাল অর্গলের খিল ভেঙে নিপুণ চাঁদেরা
জোছনা প্লাবন হয়ে কেমন অন্দরে
আর তুমি অবরোধবাসিনী দোয়াত কলম হাতে যেন স্রোতস্বিনী 
সময় কীভাবে যায়
রেললাইন-রেললাইন
তোমার দেখানো পথে ধূসর চশমা খোলে অরূপ পাইথন
তোমার ছোঁয়ায় জাগে পায়রাবন্দ, জাগে স্বপ্নসাহারা
যেখানে ভেঙেছে ঘুম যেই ঘরে
যতই জমুক ছায়া যতই ডুবাক ঠোঁট আধোশ্যাওলা
যতই বিলীন তার মেঘের খিলান
তুমি আছ জেগে আছ
তোমার চন্দ্রযানে শুধু সেই জোছনা ইশারা।


আরব ছোটগল্পের রাজকুমারী
সামিরা আজ্জম ১৯২৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের আর্কে একটি গোঁড়া
বিস্তারিত
অমায়ার আনবেশে
সাদা মুখোশে থাকতে গেলে ছুড়ে দেওয়া কালি  হয়ে যায় সার্কাসের রংমুখ, 
বিস্তারিত
শারদীয় বিকেল
ঝিরিঝিরি বাতাসের অবিরাম দোলায় মননের মুকুরে ফুটে ওঠে মুঠো মুঠো শেফালিকা
বিস্তারিত
গল্পের পটভূমি ইতিহাস ও বর্তমানের
গল্পের বই ‘দশজন দিগম্বর একজন সাধক’। লেখক শাহাব আহমেদ। বইয়ে
বিস্তারিত
ধোঁয়াশার তামাটে রঙ
দীর্ঘ অবহেলায় যদি ক্লান্ত হয়ে উঠি বিষণœ সন্ধ্যায়Ñ মনে রেখো
বিস্তারিত
নজরুলকে দেখা
আমাদের পরম সৌভাগ্য, এই উন্নত-মস্তকটি অনেক দেরিতে হলেও পৃথিবীর নজরে
বিস্তারিত