পুব দেশের ছেলে

গোধুমের মাঠ পার হয়ে শিশিরে সিক্ত শিহরণে আর আমি হলুদ গুল্মের দেশে যাবোÑ মধুমাছি গুনগুন শ্যামল স্নিগ্ধ মেঠো এক নদী পারে রাখালের উষ্ণতা কেড়ে তীর-চরাচর আর আমি ছড়াবো বিদ্যুৎ...

ফাগুনের বর্ণিল বায়ু এসে করে যাবে মধুস্বর ধ্বনিÑ শিমুলের ডালে ডালে সুবর্ণকীর্তন হবে ভ্রমরেরÑ ঘুড়ি লাটিমের সাথে শেষ হবে লুকোচুরি পাঠশালা; বকুলের গন্ধমদির মোহনায় আর আমি এঁকে যাবো  স্বর কিছুÑ অচকিত অবিকল মেঘেদের : হৃদয়ের বশে সুচরিতা ভিজে নেবে  দু’প্রহরÑ আমাদের ভাটি ও ভাঙনের দেশে... 


আরব ছোটগল্পের রাজকুমারী
সামিরা আজ্জম ১৯২৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের আর্কে একটি গোঁড়া
বিস্তারিত
অমায়ার আনবেশে
সাদা মুখোশে থাকতে গেলে ছুড়ে দেওয়া কালি  হয়ে যায় সার্কাসের রংমুখ, 
বিস্তারিত
শারদীয় বিকেল
ঝিরিঝিরি বাতাসের অবিরাম দোলায় মননের মুকুরে ফুটে ওঠে মুঠো মুঠো শেফালিকা
বিস্তারিত
গল্পের পটভূমি ইতিহাস ও বর্তমানের
গল্পের বই ‘দশজন দিগম্বর একজন সাধক’। লেখক শাহাব আহমেদ। বইয়ে
বিস্তারিত
ধোঁয়াশার তামাটে রঙ
দীর্ঘ অবহেলায় যদি ক্লান্ত হয়ে উঠি বিষণœ সন্ধ্যায়Ñ মনে রেখো
বিস্তারিত
নজরুলকে দেখা
আমাদের পরম সৌভাগ্য, এই উন্নত-মস্তকটি অনেক দেরিতে হলেও পৃথিবীর নজরে
বিস্তারিত