গার্হস্থ্য পরিব্রাজক


 

উদ্ধত গোলাপের ডানা, সূর্যমুখী, প্রতিদিনের সূর্যÑ
এইসব উন্নত শির।
কেবল আমি নতজানু প্রেমিক
কোনোকালে তোমার জঙ্ঘায়
লোভের পানা-পুকুরে ডুব মেরে আছি।

বীরভোগ্যা যারা যুদ্ধে, বন্দুকে, মাদকে
বাজারে, সাম্যবাদে, অধিকারেÑ এমন সহস্র চোখ।
কলমে কলমে কেতাবের ঢল
হয় ময়দানে, নয় সমাজমাধ্যমে মানবশৃঙ্খল
না সুধীজনের শ্রদ্ধাঞ্জলিতে, না বুদ্ধিবৃত্তিক আয়োজনেÑ
শাহবাগ থেকে পল্টন
কোথাও নেই আমি।

আমি এক নতজানু প্রেমিক-
জনৈক গার্হস্থ্য পরিব্রাজক।


আরব ছোটগল্পের রাজকুমারী
সামিরা আজ্জম ১৯২৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের আর্কে একটি গোঁড়া
বিস্তারিত
অমায়ার আনবেশে
সাদা মুখোশে থাকতে গেলে ছুড়ে দেওয়া কালি  হয়ে যায় সার্কাসের রংমুখ, 
বিস্তারিত
শারদীয় বিকেল
ঝিরিঝিরি বাতাসের অবিরাম দোলায় মননের মুকুরে ফুটে ওঠে মুঠো মুঠো শেফালিকা
বিস্তারিত
গল্পের পটভূমি ইতিহাস ও বর্তমানের
গল্পের বই ‘দশজন দিগম্বর একজন সাধক’। লেখক শাহাব আহমেদ। বইয়ে
বিস্তারিত
ধোঁয়াশার তামাটে রঙ
দীর্ঘ অবহেলায় যদি ক্লান্ত হয়ে উঠি বিষণœ সন্ধ্যায়Ñ মনে রেখো
বিস্তারিত
নজরুলকে দেখা
আমাদের পরম সৌভাগ্য, এই উন্নত-মস্তকটি অনেক দেরিতে হলেও পৃথিবীর নজরে
বিস্তারিত