বৃষ্টি


 

এই একটু ক্ষণ আগেও
শুকনো ছিল সব
বাইরের মাঠ, ঘরের আঙিনা
পায়রা-খোপ, শিরীষ গাছ
কামিনী পুকুর
সব, সব কিছুই শুকনো খটখট
হঠাৎ বৃষ্টি
কী আশ্চর্য
এইমাত্র রোদেলা আকাশ, হাওয়াতেও ছিল না কোনো উদ্দামতা
তবুও বৃষ্টি!
বৃষ্টি! বৃষ্টি! বৃষ্টি!
আঙিনা ধুয়ে যায়, শিরীষ গাছের মাথা ঝুমঝুম
কামিনী পুকুরের জল বাড়ে
বৃষ্টি ঝরে
ঝরে যায় শুধু
অঝোর ধারায়
অশোক পাতায়
সামনের বাড়ির রোয়াকে দাঁড়িয়ে
কাপড় তোলে নতুন বধূ
মুহূর্তে ভিজে যায়
খিল খিল হাসি
রুপা-ঝরা দাঁত চমকায়
চমকায় তার সিক্ত শরীর
চমকায় যেন বিদ্যুৎ চমক
বৃষ্টি বৃষ্টি
ঝরে অসময়
ভিজে যায় সব
ভেজে এ হৃদয়...


পাঠক কমছে; কিন্তু সেটা কোনো
দুই বাংলার জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়। অন্যদিকে বাংলাদেশের জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক
বিস্তারিত
মনীষা কৈরালা আমি ক্যান্সারের প্রতি কৃতজ্ঞ,
ঢাকা লিট ফেস্টের দ্বিতীয় দিন ৯ নভেম্বরের বিশেষ চমক ছিল
বিস্তারিত
এনহেদুয়ান্নার কবিতা ভাষান্তর :
  যিশুখ্রিষ্টের জন্মের ২২৮৫ বছর আগে অর্থাৎ প্রায় সাড়ে ৪ হাজার
বিস্তারিত
উপহার
  হেমন্তের আওলা বাতাস করেছে উতলা। জোয়ার এসেছে বাউলা নদীতে, সোনালি
বিস্তারিত
সাহিত্যের বর্ণিল উৎসব
প্রথম দিন দুপুরে বাংলা একাডেমির লনে অনুষ্ঠিত হয় মিতালি বোসের
বিস্তারিত
নিদারুণ বাস্তবতার চিত্র মান্টোর মতো সাবলীলভাবে
এ উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ ছিল ভারতের প্রখ্যাত পরিচালক নন্দিতা দাস
বিস্তারিত