বৃষ্টি


 

এই একটু ক্ষণ আগেও
শুকনো ছিল সব
বাইরের মাঠ, ঘরের আঙিনা
পায়রা-খোপ, শিরীষ গাছ
কামিনী পুকুর
সব, সব কিছুই শুকনো খটখট
হঠাৎ বৃষ্টি
কী আশ্চর্য
এইমাত্র রোদেলা আকাশ, হাওয়াতেও ছিল না কোনো উদ্দামতা
তবুও বৃষ্টি!
বৃষ্টি! বৃষ্টি! বৃষ্টি!
আঙিনা ধুয়ে যায়, শিরীষ গাছের মাথা ঝুমঝুম
কামিনী পুকুরের জল বাড়ে
বৃষ্টি ঝরে
ঝরে যায় শুধু
অঝোর ধারায়
অশোক পাতায়
সামনের বাড়ির রোয়াকে দাঁড়িয়ে
কাপড় তোলে নতুন বধূ
মুহূর্তে ভিজে যায়
খিল খিল হাসি
রুপা-ঝরা দাঁত চমকায়
চমকায় তার সিক্ত শরীর
চমকায় যেন বিদ্যুৎ চমক
বৃষ্টি বৃষ্টি
ঝরে অসময়
ভিজে যায় সব
ভেজে এ হৃদয়...


আরব ছোটগল্পের রাজকুমারী
সামিরা আজ্জম ১৯২৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের আর্কে একটি গোঁড়া
বিস্তারিত
অমায়ার আনবেশে
সাদা মুখোশে থাকতে গেলে ছুড়ে দেওয়া কালি  হয়ে যায় সার্কাসের রংমুখ, 
বিস্তারিত
শারদীয় বিকেল
ঝিরিঝিরি বাতাসের অবিরাম দোলায় মননের মুকুরে ফুটে ওঠে মুঠো মুঠো শেফালিকা
বিস্তারিত
গল্পের পটভূমি ইতিহাস ও বর্তমানের
গল্পের বই ‘দশজন দিগম্বর একজন সাধক’। লেখক শাহাব আহমেদ। বইয়ে
বিস্তারিত
ধোঁয়াশার তামাটে রঙ
দীর্ঘ অবহেলায় যদি ক্লান্ত হয়ে উঠি বিষণœ সন্ধ্যায়Ñ মনে রেখো
বিস্তারিত
নজরুলকে দেখা
আমাদের পরম সৌভাগ্য, এই উন্নত-মস্তকটি অনেক দেরিতে হলেও পৃথিবীর নজরে
বিস্তারিত