ঈদে ঘরে ফেরা, ভোগান্তি এড়াতে আগেভাগে যাত্রা

কয়েক দিন পরই ঈদ। তাই এখন থেকেই শুরু হয়ে গেছে ঈদযাত্রা। পরিবারের সবার সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে কষ্ট করে হলেও বাড়ির পানে ছুটছেন কর্মজীবীরা। উপলক্ষ শুধু পরিবার, আত্মীয়-স্বজন ও গ্রামের মানুষের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করা। মঙ্গলবার রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনাল ঘুরে দেখা যায়, ঈদযাত্রার অন্যান্য দিনের তুলনায় যাত্রীর চাপ কিছুটা বেশি। যাত্রীদের কেউ নির্দিষ্ট বাসের জন্য নির্ধারিত কাউন্টারের সামনে বসে আছেন।

আবার কেউ জায়গা না পেয়ে নিজের লাগেজের ওপর শিশু সন্তান নিয়ে বসে আছেন। সেখানে অবস্থানরত যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ভোগান্তি থেকে বাঁচতে দুই দিন বেশি ছুটি জোগাড় করে বাড়িতে যাচ্ছেন অনেকে। তারা জানান, কয়েক বারের ঈদযাত্রার অভিজ্ঞতা বেশ খারাপ। ঈদের ঠিক আগমুহূর্তে ঢাকা ছাড়ার সময় বাসের শিডিউল বিপর্যয়ের কারণে দুর্ভোগ পোহানোর কথা জানান কেউ কেউ।

রাজধানীর গাবতলী বাস টার্মিনালে কথা হয় পোশাক কারখানাার শ্রমিক আবদুল মজিদের সঙ্গে। তিনি সাতক্ষীরার শ্যামনগরগামী একে ট্রাভেলসে টিকিট কেটেছেন। পরিবার নিয়ে গ্রামে ঈদ উদযাপন করতে যাচ্ছেন তিনি। এবারের ঈদযাত্রার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত বছর ঈদের আগের দিন বাড়ি যেতে খুবই কষ্ট হয়েছিল। পরিবহন কর্তৃপক্ষ সিটের কথা বলে ছোট মোড়ায় বসিয়ে নিয়ে গিয়েছিল। গতবারের ওই ভোগান্তি 

যাতে না হয় সেজন্য আগেই কারখানা থেকে ছুটি জোগাড় করেছেন। অবশ্য ছুটি জোগাড় করতে দুই মাস আগ থেকেই তদবির চালাতে হয়েছে তাকে।

ঈদের ছুটিটা পরিবার ও বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে কাটানোর জন্য গ্রামের পানে ছুটছেন রাজধানীর নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী সৌরভ দাশ শুভ। খুলনাগামী হানিফ পরিবহনের টিকিট কেটেছেন তিনি। ঈদ যাত্রা সম্পর্কে তিনি বলেন, প্রতিবারই ঈদের ছুটিতে গ্রামে যাই। টিউশন থাকার কারণে ঈদের ঠিক আগমুহূর্তে ঢাকা ছাড়তে হয়। 

তবে এবার কয়েক দিন আগেই ছাড়তে পারছি। এবার নিজের পরিবার ও শৈশবের বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে একটু সময়ও দেওয়া যাবে। গতবারের ঈদ যাত্রার ভোগান্তির কথা উল্লেখ করে শুভ বলেন, গতবার আরিচাঘাটে ৮ ঘণ্টা বসে থাকার করুণ অভিজ্ঞতার কথা মনে করে আগেই ঢাকা ছাড়ছি। আশা করি গতবারের মতো এবার আর ওই সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না।

ঈদ যাত্রা নিয়ে কথা হয় রাজধানীর বনশ্রী এলাকার ব্যবসায়ী ফয়সাল মাহমুদ অপুর সঙ্গে। তিনিও পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে ছুটছেন বাড়ির পানে। তিনি বলেন, আমার ঈদ যাত্রার পূর্ব অভিজ্ঞতা মোটেও সুখকর নয়। গতবার শিডিউল বিপর্যয়ের কারণে বাড়ি পৌঁছতে প্রায় ১০ ঘণ্টা বাড়তি সময় ব্যয় হয়েছিল। তাই ভোগান্তি থেকে বাঁচতে একটু আগেই বাড়ি যাচ্ছি। তবে পরিবহন কর্তৃপক্ষের দাবি যাত্রীদের সর্বোচ্চ সুবিধা দিতে দিনভর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তারা। 

এ বিষয়ে হানিফ পরিবহনের মহাব্যবস্থাপক মো. মোশারফ হোসেন বলেন, যাত্রীদের সুবিধার কথা চিন্তা করে কোচের সংখ্যা বাড়িয়েছি। অনলাইনে টিকিট ছাড়ার কারণে যাত্রীরা ঘরে বসেই টিকিট কাটতে পারছেন। তবে রাস্তাঘাটের কথা কিছু বলা যায় না। ঈদযাত্রা শুরু হওয়ার গাড়ির চাপ বেড়েছে। ফলে সে চাপ ফেরি ঘাটে পড়ে। সেজন্যই ফেরিঘাটে দেরি হয়। তবে এখন পর্যন্ত আমার জানামতে ফেরিঘাটের অবস্থা স্বাভাবিক রয়েছে।

ঈদযাত্রা স্বস্তিদায়ক করতে ২ হাজার ৫০০ আনসার কাজ করছে-আনসারের অতিরিক্ত মহাপরিচালক : কালিয়াকৈর সংবাদদাতা জানান, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহম্মদ নূরুল আলম বলেছেন, বাহিনীর সদস্যরা সব সময় দেশ ও দেশের মানুষের সেবায় নিয়োজিত রয়েছে। এর অংশ হিসেবে আসন্ন ঈদে ঘরমুখো মানুষ স্বস্তিদায়কভাবে বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সঙ্গে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারে সেজন্য দায়িত্ব পালন করবে। ঈদযাত্রা নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দ্যদায়ক করতে দেশের বিভিন্ন স্থানে আড়াইহাজার আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা দলের সদস্য সড়ক ও মহাসড়কে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি মঙ্গলবার সকালে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমির ইয়াদ আলী প্যারেড গ্রাউন্ডে বাহিনীর সাধারণ আনসার মৌলিক প্রশিক্ষণ (পুরুষ) দ্বিতীয় ধাপের সমাপনী কুচকাওয়াজ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন। 

এ সময় বাহিনীর উপ-মহাপরিচালক (প্রশাসন) কর্নেল মহিউদ্দীন মো. জাবেদ, উপ-মহাপরিচালক (প্রশিক্ষণ) একেএম মিজানুর রহমান, উপ-মহাপরিচালক (অপারেশন) দিলীপ কুমার বিশ্বাস ও উপ-মহাপরিচালক, একাডেমি (ভারপ্রাপ্ত) সাইফুদ্দিন মোহাম্মদ খালেদসহ সদর দপ্তর ও একাডেমির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। 

সমাপনী কুচাকাওয়াজে ১ হাজার ৪২৫ জন সাধারণ আনসার প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করেন। তারা ১০ সপ্তাহ মেয়াদি মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। পরে কুমিল্লার বুড়িচংয়ের মো. নাজমুল হাসান শ্রেষ্ঠ ড্রিল, কুমিল্লা মুরাদনগরের মো. ফারুক হোসেন শ্রেষ্ঠ ফায়ারার এবং নাটোর বাঘাতিপাড়ার মো. শিপন আলী চৌকস প্রশিক্ষণার্থী হিসেবে পুরস্কার প্রদান করা হয়। 

কুমিল্লায় কাটছে না যানজটের শঙ্কা : কুমিল্লা সংবাদদাতা জানান, অন্যান্য বছরের মতো এ বছরও দেশের ব্যস্ততম কুমিল্লা সড়কে যানজটে ভোগান্তি থাকবে কিনা এমন প্রশ্ন এখন সর্বত্র ঘুরেফিরে আলোচিত হচ্ছে। যদিও এরই মধ্যে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবারের ঈদ যাত্রায় যাত্রীদের ভোগান্তিতে পড়তে হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন। মন্ত্রীর দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে কুমিল্লা জেলা ও হাইওয়ে পুলিশের এখন অনেকটা গলদঘর্ম অবস্থা। তাদের প্রস্তুতিও কম নয়। ঈদের ৩ দিন আগে এই ফোর লেনে যাত্রীবাহী যানবাহনের চাপ সামাল দিতে পণ্যবাহী যানবাহন বন্ধ রাখার সরকারি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে কাল থেকে মাঠে কঠোর অবস্থানে থাকবে পুলিশ। এদিকে মহাসড়কের কুমিল্লা অংশের ৯৭ কিলোমিটার এলাকায় জেলা ও হাইওয়ে পুলিশের প্রায় ৫ শতাধিক পুলিশ রাস্তায় থাকবে বলে জানিয়েছেন কুমিল্লা পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেন। এছাড়াও মানুষের ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে কুমিল্লা জেলা পুলিশের ঈদের দিন পর্যন্ত সব ধরনের ছুটি বাতিল করা হয়েছে বলে জানা গেছে। 

এদিকে ঈদে ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তায় হাইওয়ে পুলিশের কুমিল্লা রিজিয়নের কুমিল্লা থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত সড়কে ৭০৭ জন পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্য ২৪ ঘণ্টা মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানা গেছে। হাইওয়ে পুলিশের কুমিল্লা রিজিয়নের পুলিশ সুপার মো. নজরুল ইসলাম জানান, যানজট ও যাত্রীদের নিরাপত্তায় হাইওয়ে পুলিশের ৪১টি মোবাইল টিম এবং ৩৬ জন অফিসার মোটরবাইক নিয়ে ‘কুইক টিম’ হিসেবে মহাসড়কে অন্য পুলিশ সদস্যদের সমন্বয়ে যানবাহন চলাচল পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবে।  

কুমিল্লা বাস মালিক সমিতির সভাপতি তাজুল ইসলাম জানান, এবারের ঈদে বাড়ি ফেরা মানুষদের যেন ভোগান্তিতে না পড়তে হয় এ বিষয়ে এরই মধ্যে জেলা, হাইওয়ে ও কমিউনিটি পুলিশ যে সব উদ্যোগ নিয়েছে তার সঙ্গে পরিবহন মালিক সমিতি থেকেও নিজস্ব কর্মী বাহিনী দিয়ে সহায়তা করা হচ্ছে। কুমিল্লা সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোফাজ্জল হায়দার জানান, কুমিল্লা অংশে ফোর লেনের সব  অবৈধ স্থাপনা এরই মধ্যে উচ্ছেদ করা হয়েছে, সড়কের পাশে বাজার না বসার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। 

ঢাকা-বরিশাল ঈদের বিশেষ সার্ভিস শুরু আজ : বরিশাল ব্যুরো জানায়, ঘরমুখো যাত্রীদের জন্য নৌযানের বিশেষ সার্ভিস আজ থেকে শুরু হচ্ছে। রাষ্ট্রীয় নৌযান সংস্থা বিআইডব্লিউটিসি এবং বেসরকারি লঞ্চ মালিক সমিতি একই দিন বিশেষ সার্ভিস শুরু করতে যাচ্ছে। যা অব্যাহত থাকবে ঈদ পরবর্তী এক সপ্তাহ। ঈদের আগে ঢাকা থেকে এবং ঈদের পরে বরিশাল থেকে প্রতিদিন কমপক্ষে ১৮টি লঞ্চ বিপরীত গন্তব্যের উদ্দেশে যাত্রা করবে। এদিকে ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরা শুরু করেছে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ।

বিআইডব্লিউটিসির বরিশাল দপ্তরের উপ-মহাব্যবস্থাপক সৈয়দ আবুল কালাম আজাদ জানান, সংস্থার ৬টি জাহাজই বিশেষ সার্ভিসে যাত্রী পরিবহনে থাকছে। জাহাজগুলো হলো- পিএস টার্ন, পিএস মাহসুদ, পিএস লেপচা, পিএস অষ্ট্রিচ, এমভি মধুমতি এবং এমভি বাঙ্গালী। বিআইডব্লিউটিসি সূত্রে জানা গেছে, ঈদের আগে ১৩, ১৪ ও ১৫ জুন প্রতিদিন দুটি করে জাহাজ ঢাকা থেকে দক্ষিণাঞ্চলের উদ্দেশে ছাড়বে। এর মধ্যে কোনো জাহাজ বরিশাল, ঝালকাঠী, পিরোজপুর, মোড়েলগঞ্জ হয়ে খুলনা পর্যন্ত যাবে। আবার কোনো জাহাজ মোড়েলগঞ্জ পর্যন্ত যাত্রী পরিবহন করবে। আবার ঈদের পরে কর্মমুখী যাত্রীদের কর্মস্থলে ফেরাতে ১৮, ১৯, ২২ ও ২৩ জুন প্রতিদিন দুটি করে জাহাজ বরিশাল থেকে ঢাকা যাবে।  

লঞ্চ মালিক সমিতির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সুন্দরবন নেভিগেশন কোম্পানির চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু বলেন, ঢাকা থেকে দক্ষিণাঞ্চলের সব রুটে বিশেষ সার্ভিস শুরু হচ্ছে আজ থেকে। ঢাকা-বরিশাল রুটে মোট ১৮টি লঞ্চ রয়েছে। প্রতিদিন কমপক্ষে ১৮টি লঞ্চ ঈদের আগে ঢাকা থেকে বরিশালে যাবে এবং ঈদের পরে বরিশাল থেকে ঢাকায় যাবে।


‘প্রশিক্ষিত জনবল ছাড়া দক্ষ প্রশাসন
প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন,আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তির উৎকর্ষতার যুগে একটি
বিস্তারিত
বাংলাদেশের অর্থনীতি ভাল করছে: অর্থমন্ত্রী
আরও এক দশক গতিশীল অর্থনীতির আশা প্রকাশ করে অর্থমন্ত্রী এ
বিস্তারিত
‘ডিজিটাল আইন নিয়ে সাংবাদিকদের এতো
ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন
বিস্তারিত
তদন্ত কমিটির নির্দেশনা চেয়ে বিএনপির
দেশজুড়ে বিএনপির জ্যেষ্ঠ আইনজীবীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে করা ‘কাল্পনিক’
বিস্তারিত
মোংলা-বুড়িমারী বন্দরে বছরে অবৈধ লেনদেন
দেশের দ্বিতীয় সমুদ্র বন্দর মোংলা বন্দর ও বুড়িমারী স্থল বন্দরে
বিস্তারিত
নির্বাচনে সাইবার ক্রাইম ঠেকাতে প্রস্তুত
জাতীয় নির্বাচনে অন্য কোন হুমকি নেই। তবে ‘সাইবার ক্রাইইমের হুমকি
বিস্তারিত