দারাসবাড়ি মসজিদ


চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলায় ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের কোলঘেঁষে সোনামসজিদ স্থলবন্দরের এক-দেড় কিলোমিটারের মধ্যেই ছাদহীন দারাসবাড়ি মসজিদের অবস্থান। মসজিদের চারদিকে ঘন আমবাগান। সামনে স্বচ্ছ পানির দিঘির মতো পুকুর। মসজিদটির তথ্যসংবলিত একটি আরবি শিলালিপিতে ৮৮৪ হিজরি তথা ১৪৭৯ খ্রিষ্টাব্দে এটি স্থাপিত হয়েছে বলে উল্লেখ রয়েছে। তৎকালীন রাজা সুলতান শামস উদ্দীন ইউসুফ শাহের রাজত্বকালে তারই আদেশক্রমে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। দুই অংশে বিভক্ত মসজিদের আয়তন যথাক্রমে ৯৯ ফুট ৯ ইঞ্চি ও ৩৪ ফুট ৯ ইঞ্চি। ছাদহীন মসজিদের পশ্চিম দেয়ালে এখনও অক্ষত আছে কারুকার্যখচিত মেহরাব। তবে মসজিদটির ছাদ ধসে পড়েছে নাকি নির্মাণকাজ অসমাপ্ত ছিলÑ তা জানা যায়নি। এটি বাংলার প্রথম যুগের মুসলিম স্থাপত্যের একটি উল্লেখযোগ্য নিদর্শন।


প্রাণীর প্রতি নবীজির মমতা
‘আমি আপনাকে বিশ্ববাসীর জন্য রহমতস্বরূপই প্রেরণ করেছি।’ (সূরা আম্বিয়া :
বিস্তারিত
স্রষ্টাকে খুঁজি সাগরের বিশালতায়
বিশাল জলরাশির উত্তাল তরঙ্গমালায় প্রবাহিত সমুদ্র আল্লাহর এক অপূর্ব সৃষ্টি।
বিস্তারিত
দুধপানের উপকারিতা
দুধের পুষ্টিগুণ বিচারে এটি মহান আল্লাহ তায়ালার বড় একটি নেয়ামত।
বিস্তারিত
পবিত্র শবে মেরাজ ২২ মার্চ
বাংলাদেশের আকাশে সোমবার রজব মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। বুধবার থেকে
বিস্তারিত
পবিত্র শবে মেরাজ কবে, জানা
১৪৪১ হিজরি সনের পবিত্র শবে মেরাজের তারিখ নির্ধারণ এবং রজব
বিস্তারিত
মাতৃভাষার নেয়ামত ছড়িয়ে পড়ুক
ভাষা আল্লাহ তায়ালার বিরাট একটি দান। ভাষার রয়েছে প্রচ- শক্তি;
বিস্তারিত