হজ তথ্য কর্নার

বিমান থেকে নামার পর করণীয় 

- বিমান থেকে নামার পর গাড়ি করে হজ টার্মিনালে পৌঁছানো হবে। 

- টিকিট এবং অন্যান্য জিনিসপত্র যতœ করে হ্যান্ডব্যাগে রাখুন।

- টার্মিনালে পৌঁছানোর পর ডধরঃরহম রুমে অপেক্ষা করুন। এরপর ওসসরমৎধঃরড়হ চড়রহঃ-এ উপস্থিত হয়ে শুধু পাসপোর্ট দেখাতে হবে। ওসসরমৎধঃরড়হ চড়রহঃ-এ আপনার ছবি এবং হাতের আঙুলের ছাপ নেওয়া হবে। আপনার পাসপোর্টে সিল দেওয়া হয়েছে কি না, দেখে নিন।

- ওসসরমৎধঃরড়হ চড়রহঃ-এ একটু সময় লাগে, তাই ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করুন।

- ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করার পর কর্তব্যরত পুলিশকে ইমিগ্রেশনের সিলযুক্ত পাসপোর্টের পাতাটি প্রদর্শন করে হাত ব্যাগে রাখুন।

- লাগেজ সংগ্রহের জন্য আপনার ফ্লাইট নম্বর নির্দেশনাযুক্ত নির্দিষ্ট বেল্টের কাছে পৌঁছে লাগেজ সংগ্রহ করতে হবে।

- লাইনে দাঁড়িয়ে চেকিং পয়েন্টে বড় এবং ছোট লাগেজ চেক করিয়ে নিজে আবার সংগ্রহ করে বাইরে আসতে হবে। এ সময় বড় লাগেজটি টার্মিনালে নিয়োজিত ইউনাইটেড এজেন্টসের কর্মীরা বড় ট্রলিতে করে নির্ধারিত প্লাজায় নিয়ে আসবেন। আপনাকে হাত ব্যাগটি নিয়ে বেরিয়ে আসতে হবে।

- এরপর হজ প্লাজায় এসে নিজের বড় লাগেজটি বুঝে নিয়ে নিজের এজেন্সির প্রতিনিধি বা গাইডের সঙ্গে একত্রে বাসের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

- এ সময় টয়লেট সেরে নেওয়া বা নামাজ আদায় করা (সময় হলে) এবং খাবার গ্রহণ করা যেতে পারে। 

- হজ গাইড বা হজকর্মীদের পরামর্শ অনুসারে মক্কা বা মদিনার নির্ধারিত বাসে ওঠার জন্য লাগেজসহ লাইনে দাঁড়াতে হবে।

- বাসে ওঠার সময় বড় লাগেজটি ইউনাইটেড এজেন্টসের কর্মীরা বড় ট্রলিতে করে বাসে উঠিয়ে দেবে। নিজের লাগেজটি বাসে ঠিকমতো উঠেছে কি না, নিশ্চিত হোন।

- বাসে ওঠার আগে মুয়াল্লিমের পক্ষে বাস পরিচালনা কর্তৃপক্ষ পাসপোর্ট বুঝে নেবে। এ সময় টিকিট বা বোর্ডিং পাস নিজের কাছে সংরক্ষণ করুন। জমাকৃত পাসপোর্ট ফেরার সময় বিমানবন্দরে ফেরত প্রদান করা হবে। 

- বাসে ওঠার পর আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে ন্যূনতম ৩০ মিনিট সময় অপেক্ষা করতে হবে।

- টার্মিনালে অবস্থানকালীন অসুস্থতা বা অন্য কোনো সমস্যা অনুভব করলে বাংলাদেশি হজকর্মীদের সাহায্য নিয়ে বাংলাদেশ হজ অফিসে স্থাপিত চিকিৎসাকেন্দ্র থেকে চিকিৎসাসেবাসহ অন্যান্য সেবা গ্রহণ করা যাবে।

- আপনার যে-কোনো সমস্যা টার্মিনালে অবস্থিত বাংলাদেশ হজ অফিসকে অবহিত করুন।

- সৌদি আরবে রাস্তা পারাপারের সময় দৌড় দেবেন না। ডান-বাম দেখে রাস্তা পার হবেন। সৌদি আরবে গাড়ি ডান দিক থেকে চলে। 

মক্কায় পৌঁছর পর করণীয়

 

- মক্কায় নির্ধারিত বাড়ি বা হোটেলে পৌঁছার পর বাস থেকে নেমে নিজের লাগেজ বুঝে নিয়ে হোটেলের নিজ কক্ষ নম্বর জেনে নিয়ে নির্ধারিত কক্ষে অবস্থান করতে হবে। লিখিত অনুমতি ছাড়া কোনো আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে থাকার নিয়ম নেই। 

- মোনাজ্জেম ও গাইড এবং বাংলাদেশ হজ মিশন, মক্কা, মদিনা এবং চিকিৎসাকেন্দ্রের মোবাইল নম্বর সংরক্ষণ করুন।

- এরপর লাগেজ ঠিকভাবে রেখে গাইডের পরামর্শ অনুসারে ওমরায় যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করুন।

- একা একা ওমরায় গমন করা যাবে না।

- গাইডের সহায়তায় মোবাইল সিম সংগ্রহ করতে হবে। এ সময় ভিসার কপি দেখাতে হবে। 

- হোটেল বা বাড়ির লিফট ব্যবহার, বাথরুম ব্যবহার, খাবার গ্রহণ ইত্যাদি বিষয় ভালোভাবে জেনে নিন।

- হাজী অবস্থানে হোটেল বা বাড়িতে কোনো অবস্থাতেই রান্না এবং কাপড় ইস্ত্রি করা যাবে না। রান্নায় আগুনের ঝুঁঁকি থাকে। এতে আপনার এবং অন্যান্য হাজীর বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে। কাপড় ঝুলানোর জন্য রশি নিয়ে যেতে পারেন।

- মক্কা ও মদিনায় হোটেল বা বাড়িতে প্রতিরুমে ৪-৬ জন করে থাকতে হবে। পুরুষ এবং মহিলা পৃথক রুম থাকতে হবে। সিঙ্গেল খাটের আয়তন সাধারণ মাপের চেয়ে ছোট হবে। রুমগুলোও বেশি বড় হবে না। অপরিচিত হাজীর সঙ্গে একই রুমে থাকার মানসিকতা থাকতে হবে।

- মর্যাদা, পদবি, সামাজিক অবস্থান বিবেচনায় কোনো রুম বরাদ্দ দেওয়া হবে না। সবাই মিলেমিশে থাকতে হবে। 


প্রাণীর প্রতি নবীজির মমতা
‘আমি আপনাকে বিশ্ববাসীর জন্য রহমতস্বরূপই প্রেরণ করেছি।’ (সূরা আম্বিয়া :
বিস্তারিত
স্রষ্টাকে খুঁজি সাগরের বিশালতায়
বিশাল জলরাশির উত্তাল তরঙ্গমালায় প্রবাহিত সমুদ্র আল্লাহর এক অপূর্ব সৃষ্টি।
বিস্তারিত
দুধপানের উপকারিতা
দুধের পুষ্টিগুণ বিচারে এটি মহান আল্লাহ তায়ালার বড় একটি নেয়ামত।
বিস্তারিত
পবিত্র শবে মেরাজ ২২ মার্চ
বাংলাদেশের আকাশে সোমবার রজব মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। বুধবার থেকে
বিস্তারিত
পবিত্র শবে মেরাজ কবে, জানা
১৪৪১ হিজরি সনের পবিত্র শবে মেরাজের তারিখ নির্ধারণ এবং রজব
বিস্তারিত
মাতৃভাষার নেয়ামত ছড়িয়ে পড়ুক
ভাষা আল্লাহ তায়ালার বিরাট একটি দান। ভাষার রয়েছে প্রচ- শক্তি;
বিস্তারিত