হজের প্রস্তুতি

হজ তথ্য কর্নার

মক্কায় পৌঁছার পর করণীয়

 

ষ মক্কা ও মদিনায় হোটেল বা বাড়িতে গোসলখানার পানি সবসময় গরম থাকে। পানি গায়ে ঢালার আগে তাপমাত্রা দেখে নিতে হবে। বালতিতে সবসময় পানি রাখবেন।

ষ সৌদ আরবে অবস্থানকালে দেশের সুনাম ক্ষুণœ হয়, এ ধরনের কোনো আচরণ করা যাবে না। সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে এবং দলবদ্ধভাবে চলাফেরা করতে হবে।

ষ মক্কা ও মদিনায় হোটেল বা বাড়ির লবিতে পান করার জন্য জমজমের পানি রাখা হয়। এ পানি অপচয় করা যাবে না।

ষ হোটেল বা বাড়িতে কোনো কারণে বিদুৎবিভ্রাট হলে মেরামত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। কারণ সৌদি বিদুৎ কর্তৃপক্ষ ছাড়া হোটেল মালিক কোনো মেরামত করতে পারে না।

ষ মক্কা ও মদিনা পৌঁছার পর মোয়াল্লেম অফিসের দেওয়া কার্ড সবসময় সঙ্গে রাখতে হবে। ওই কার্ডে মোয়াল্লেম অফিসের নম্বর লেখা থাকে। 

ষ হজ অফিস থেকে দেওয়া বাংলাদেশের পতাকাখচিত ছবিসহ আইডি কার্ড, হাতে লাগানো কবজি বেল্ট সঙ্গে রাখতে হবে। কেউ হারিয়ে গেলে এই কার্ড বাংলাদেশ হজ অফিসে পৌঁছাতে সহায়তা করবে।

ষ হোটেল বা বাড়ি থেকে বাইরে যাওয়ার সময় একা যাবেন না। সবসময় দলবদ্ধভাবে চলাফেরা করতে হবে।

ষ তাওয়াফ বা সাঈ এবং শয়তানেক পাথর মারার সময় বেশি টাকাপয়সা সঙ্গে নেবেন না।

ষ ট্যাক্সি ভাড়া প্রদানের জন্য খুচরা টাকা সঙ্গে রাখতে হবে। যতদূর সম্ভব একা ট্যাক্সিতে উঠবেন না। কিছু ট্যাক্সি চালক প্রলোভন দেখিয়ে গাড়িতে ওঠায়। এর পরপর ছিনতাই করে, তাই সাবধানে চলাফেরা করতে হবে।

ষ সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। খালি পায়ে হাঁটা যাবে না। এতে পায়ে ফোসকা পড়তে পারে। রোদে ছাতা ব্যবহার করুন। প্রচুর পানি বা ফলের রস পান করবেন। ডাস্টবিন ছাড়া অন্য কোথাও ময়লা-আবর্জনা ফেলবেন না।

ষ কখনও পথ হারিয়ে গেলে ভয় না পেয়ে আপনার গাইড বা হজ অফিসের নিয়ন্ত্রণকক্ষে অথবা সৌদি মোয়াল্লেমের নম্বরে ফোন করতে হবে। আপনার আশপাশেই হজকর্মী বা প্রবাসী বাংলাদেশি বা পুলিশের সহায়তা নিতে হবে।

ষ অসুস্থ অনুভব করলে এজেন্সি বা গাইডের সহায়তায় বাংলাদেশ মেডিকেল ক্লিনিকে গিয়ে সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। বাংলাদেশ মেডিকেল ক্লিনিক থেকে বিনামূল্যে ওষুধসহ প্রাথমিক চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হয়।

ষ সৌদি আরবে অবস্থানকালে কোনো প্রকার রাজনৈতিক আলোচনা বা মতবাদ প্রচার থেকে বিরত থাকুন।

হজের সময় করণীয়

ষ জিলহজ মাসের ৭ তারিখ রাতে অথবা ৮ তারিখ সকাল থেকে দুপুরের মধ্যে মোয়াল্লেমের বাসে মিনা যেতে হবে। সঙ্গে হালকা কাপড়চোপড় ও প্রয়োজনীয় টাকাপয়সা নেবেন। নিরাপত্তার স্বার্থে বাদবাকি টাকা বড় লাগেজে তালাবদ্ধ করে রাখুন। বাসে সবার বসার জায়গা হয় না। তাই মহিলা ও বয়স্কদের আগে উঠতে দিতে হবে। মহিলা এবং তার মাহরামকে একই গাড়িতে উঠতে হবে।

ষ মিনা যাওয়ার সময় সবাই একত্রে হোটেলের নিচে নামবেন না। গাইড এবং হজকর্মীরা ডাকার পর নামতে হবে। না হয় অপেক্ষা করতে কষ্ট হবে। 

ষ মক্কা থেকে হেঁটে মিনা-আরাফাতে যাওয়া থেকে বিরত থাকবেন। কারণ এতে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন।

ষ শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ করার সময় দলবদ্ধভাবে যাবেন। পাথর মারার সময় কখনও স্যান্ডেল খুলে গেলে, পাথর হাত থেকে পড়ে গেলে কোনো অবস্থাতে উঠানোর চেষ্টা করবেন না। কিছু অতিরিক্ত পাথর রাখবেন। অক্ষম, বৃদ্ধ ও অসুস্থদের পক্ষে অন্যের দ্বারা পাথর নিক্ষেপ করা যায়।

ষ মিনা-আরাফাতে নিজের তাঁবু হারিয়ে গেলে হজ অফিসের তাঁবুতে যাওয়ার চেষ্টা করবেন। এজন্য মিনা-আরাফাতের ম্যাপ সঙ্গে রাখুন এবং হজ অফিসের নিয়ন্ত্রণকক্ষের ফোন নম্বর জেনে রাখুন।

ষ মিনায় আপনার তাঁবুর এলাকার নম্বর বা নিকস্থ খুঁটি নম্বর এবং রাস্তার নম্বর জেনে রাখতে হবে। পথ হারিয়ে গেলে এই নম্বর ধরে তাঁবু খুঁজতে হবে।

ষ আরাফা থেকে ফেরার পথে কোনো কারণে আপনার গাড়ি খুঁজে না পেলে বাংলাদেশের অন্য যে-কোনো গাড়িতে করে মুজদালিফা বা মিনায় চলে আসতে হবে।

ষ মিনা-আরাফাতে অবস্থানকালে পরিমিত খাবার গ্রহণ করতে হবে। অতিরিক্ত মশলাযুক্ত খাবার পরিহার করুন। সবসময় পানির বোতল সঙ্গে রাখুন। ডায়াবেটিক রোগীরা সবসময় কিছু খাবার সঙ্গে রাখবেন।


পবিত্র শবে মেরাজ কবে, জানা
১৪৪১ হিজরি সনের পবিত্র শবে মেরাজের তারিখ নির্ধারণ এবং রজব
বিস্তারিত
মাতৃভাষার নেয়ামত ছড়িয়ে পড়ুক
ভাষা আল্লাহ তায়ালার বিরাট একটি দান। ভাষার রয়েছে প্রচ- শক্তি;
বিস্তারিত
ন তু ন প্র
বই : আল-কুরআনে শিল্পায়নের ধারণা লেখক : ইসমাঈল হোসাইন মুফিজী প্রচ্ছদ :
বিস্তারিত
উম্মতে মুহাম্মদির মর্যাদা
আল্লাহ তায়ালা যে বিষয়কে আমাদের জন্য পূর্ণতা দিয়েছেন, যে বিষয়টিকে
বিস্তারিত
যেভাবে সন্তানকে নামাজি বানাবেন
হাদিসে এরশাদ হয়েছে ‘তোমরা প্রত্যেকেই নিজ নিজ অধীনদের ব্যাপারে দায়িত্বশীল। আর
বিস্তারিত
আবু বাকরা (রা.)
নোফায় বিন হারেস বিন কালাদা সাকাফি (রা.)। তার উপনাম আবু
বিস্তারিত