কাটা গাছ জব্দ করলেন ইউএনও

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর পাঙ্গাশিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অখিল চন্দ্র দাসের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের সীমানার পাশের পুরনো সাতটি রেন্ট্রি ও মেহগনি গাছ কাটাসহ তিন বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। 

গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলাকাবাসীর অভিযোগ পেয়ে শুক্রবার সকালে ওই বিদ্যালয় পরিদর্শন করে কাটা গাছ জব্দ করেন।

বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের একাধিক অভিভাবক জানান, উপজেলার খাঞ্জাপুর পাঙ্গাশিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় চত্বরে পুরনো মেহগনি ও রেন্ট্রিসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রয়েছে। গত ২২ জুলাই বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে। নতুন ম্যানেজিং কমিটি অনুমোদনের জন্য শিক্ষাবোর্ডে পাঠানো হয়েছে। এ সুযোগে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি সভাপতি ও খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক অখিল চন্দ্র দাস বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. ফরিদ উদ্দিনের যোগসাজশে অবৈধভাবে বিদ্যালয় চত্বরের সীমানার পাশের পুরনো ২টি রেন্ট্রি ও ১টি মেহগনি গাছ স্থানীয় গাছ ব্যবসায়ী মো. শামচুল হক ফকির ওরফে শামু ফকিরের কাছে ১ লাখ ১০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন।

খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি মো. ফরিদ বেপারী, ৮নং ওয়ার্ড আ’লীগের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর ফকির অভিযোগ করে বলেন, স্কুলের সভাপতি অখিল চন্দ্র দাস স্কুলের গাছ আত্মসাৎ করতেই নিয়ম-বহির্ভূতভাবে গাছ বিক্রি করেছেন। গত ১৫ দিন ধরে গাছ ব্যবসায়ী শামু ফকির গাছ কাটা ৭/৮ শ্রমিক দিয়ে বৃহৎকার ৩টি রেন্ট্রি ও ৩টি মেহগনি গাছ কেটে ফেলেছে। আমরা বিষয়টি বৃহস্পতিবার ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউএনওকে জানাই। স্কুল সীমানার পাশের পুরনো গাছ রক্ষা করে নতুন ভবন নির্মাণের অনেক জায়গা রয়েছে বলে তারা জানান।

গাছ ব্যবসায়ী শামু ফকির বলেন, আমার সাথে প্রধান শিক্ষক ও সভাপতির  কথাবার্তা হয়েছিল ৩টি গাছ কেনাবেচার। এরপর গাছ বিক্রি করতে রাজি না হওয়ায় আমার লেবার দিয়ে গত ১ জুলাই থেকে গাছ কেটে দিচ্ছি। 

তবে গাছ বিক্রির অভিযোগ অস্বীকার করে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আ’লীগ নেতা অখিল দাস ও বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক মো. ফরিদউদ্দিন  বলেন, স্কুলের নামে বরাদ্দকৃত নতুন ভবন নির্মাণের জায়গা পরিষ্কার করার জন্য রেজুলেশন করে ৩টি রেন্ট্রি ও ৩টি মেহগনি গাছ কাটা হয়েছে। ওই কাটা গাছ দিয়ে স্কুলের বেঞ্চ, টেবিল, চেয়ার বানানো হবে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খালেদা নাছরিন বলেন, কেটে ফেলা গাছের ৫৬ পিস (টুকরা) জব্দ করে স্থানীয় ইউপি সদস্য কামাল হাওলাদারের জিম্মায় রেখে আসা হয়েছে। বাকি গাছ কাটতে নিষেধ করা হয়েছে। বিষয়টি নীতিমালা দেখে মাধ্যমিক অফিসারকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে ইউএনও জানান।


‘স্বাধীনতা পদক’ পাওয়া শহীদ এটিএম
কক্সবাজারের হয়ে এই প্রথম রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘স্বাধীনতা পদক’ পেয়েছেন
বিস্তারিত
জড়িয়ে ধারা চেয়ারম্যানকে চরিত্রবান বললেন
বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার সদ্য বিজয়ী চেয়ারম্যান আবুল কালাম এর সঙ্গে 
বিস্তারিত
হবু বরের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে
হবু বরের সঙ্গে পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকতে বেড়াতে গিয়ে ফেরার সময় সড়ক
বিস্তারিত
জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের শ্রদ্ধা জানাতে
আগামীকাল ২৬ মার্চ, মহান স্বাধীনতা দিবস। এ উপলক্ষে জাতির শ্রেষ্ঠ
বিস্তারিত
রূপগঞ্জে শিশু ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে তৃতীয় শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীকে (৯) ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে
বিস্তারিত
হবিগঞ্জে ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ কর্নার’
বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে '৭১-এর চেতনায় উদ্বুদ্ধকরণ ও সঠিক ইতিহাস
বিস্তারিত