কোরবানির পরিচয় ও প্রকারভেদ

 

কোরবানির আভিধানিক অর্থ হলো, কাছে যাওয়া বা নৈকট্য অর্জন করা। ইসলামি ফিকহের পরিভাষায় কোরবানি হলো, জিলহজ মাসের ১০ তারিখ সকাল থেকে ১২ তারিখ সূর্যাস্তের আগ পর্যন্ত আল্লাহর সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে শরিয়তের বিধান অনুুসারে নির্দিষ্ট পশু জবাই করা। 

ওয়াজিব কোরবানি 
স্বাভাবিক জ্ঞানসম্পন্ন, প্রাপ্তবয়স্ক (সাবালক), মুসলিম যদি কোরবানি ঈদের তিন দিন (১০ জিলহজ সকাল থেকে ১২ জিলহজ সূর্যাস্তের আগ পর্যন্ত) এর মধ্যে সাহিবে নিসাব (সাড়ে সাত ভরি স্বর্ণ বা সাড়ে বায়ান্ন ভরি রোপা অথবা এর যে-কোনো একটির মূল্যের সমপরিমাণ নগদ অর্থ বা ব্যবসার পণ্যের মালিক) থাকেন বা হন, তার জন্য কোরবানি করা ওয়াজিব হবে। এই নিসাব পরিমাণ অর্থ-সম্পদ বছর অতিক্রান্ত হওয়া শর্ত নয়। সাহিবে নিসাব তথা সামর্থ্যবান ব্যক্তির হাতে নগদ অর্থ না থাকলে আপাতত ধার করে হলেও ওয়াজিব কোরবানি আদায় করতে হবে। একটি কোরবানি হলোÑ একটি ছাগল, একটি ভেড়া বা একটি দুম্বা অথবা গরু, মহিষ ও উটের সাতভাগের একভাগ। অর্থাৎ একটি গরু, মহিষ বা উট সাতজন শরিক হয়ে বা সাত নামে অর্থাৎ সাতজনের পক্ষ থেকে কোরবানি করা যায়।

নফল কোরবানি 
কোরবানি ঈদের তিন দিনের মধ্যে যিনি সাহিবে নিসাব থাকবেন না, তার জন্য কোরবানি ওয়াজিব হবে না; তিনি কোরবানি করলে তা নফল কোরবানি হবে। তবে পূর্ণ সওয়াব পাবেন অর্থাৎ ফরজ কোরবানি ও নফল কোরবানির সওয়াবের কোনো পার্থক্য নেই। নফল কোরবানির পশুর গোশত, চামড়া, হাড়, শিং, পশম ও চর্বির বিধান ওয়াজিব কোরবানির মতোই। 

মান্নত কোরবানি ও সদকা 
যদি কোনো ব্যক্তি কোরবানি মান্নত করেন, তবে তা আদায় করা তার জন্য ওয়াজিব হবে। পাশাপাশি সাহিবে নিসাব হলে তার জন্য আরেকটি কোরবানি ওয়াজিব হবে। মান্নত কোরবানির পশুর গোশত, চামড়া, হাড়, শিং, পশম ও চর্বির বিধান সদকার মতো। অর্থাৎ আত্মীয়-অনাত্মীয় নির্বিশেষে কোনো সচ্ছল সামর্থ্যবান লোক এগুলো আহার, ভোগ বা উপভোগ করতে পারবেন না। এসবই শুধু গরিব-মিসকিন তথা যারা জাকাত-ফেতরা ও সদকা খাওয়ার উপযুক্ত (সাহিবে নিসাব নন) তারা খেতে বা গ্রহণ করতে পারবেন। 


রহমতের নবী (সা.) ও হিলফুল
‘আমি তো আপনাকে বিশ^জগতের প্রতি শুধু রহমতরূপেই প্রেরণ করেছি।’ (সূরা
বিস্তারিত
বিশ্বনবী : আঁধারে আলোর পরশ
পৃথিবী। মানব সৃষ্টির আগে যার সৃষ্টি। সৃষ্টিকর্তা মানুষকে পাঠানোর আগে
বিস্তারিত
সেই ফুলেরই খুশবুতে
ভালোবাসা পবিত্র জিনিস। ফুল পবিত্রতার প্রতীক। ফুল দিয়ে ভালোবাসা বিনিময়
বিস্তারিত
নবীজির ১০টি বিশেষ উপদেশ
নবী মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ছিলেন বিশ্ববাসীর রহমতস্বরূপ। আজীবন মানুষের
বিস্তারিত
সৃষ্টির সেরা আদর্শ
সূর্যের আলো থেকে মানুষ বেঁচে থাকার উপাদান পেলেও মানুষ হওয়ার
বিস্তারিত
ইরাকিদের তাড়িয়ে ফিরছে দারিদ্র্য
  ইরাকের জনগণের একটি বড় অংশ সুস্পষ্ট জাতীয় অর্থনৈতিক নীতির অভাবে
বিস্তারিত