কোরবানিতে পরিচ্ছন্নতা ও করণীয়

কোরবানির পশু প্রতিপালন থেকে শুরু করে গোশত বিলিবণ্টন পর্যন্ত প্রতিটি ধাপেই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা প্রয়োজন। হাদিস আছে, ‘পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ।’
সুস্বাস্থ্যের জন্য পরিচ্ছন্নতার কিছু বিষয় মানতেই হবে এবং পরিষ্কার থাকতে হবে
 

আর মাত্র দুই দিন পরই পবিত্র ঈদুল আজহা। ঈদ নিয়ে আমাদের আগ্রহ এবং প্রস্তুতির যেন শেষ নেই। ঈদুল আজহার এক অনন্য বৈশিষ্ট্য কোরবানি। আল্লাহর সন্তুষ্টি কামনায় পশু কোরবানি করা হয়। এ সময় কোরবানির আগে ও পরে আমাদের চারপাশ অনেক নোংরা হয়ে যায়। কোরবানির আগে অস্থায়ী গরু-ছাগলের হাটের কারণেও অনেক দূর পর্যন্ত দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে। আবার কোরবানির দিন একযোগে বিভিন্ন জায়গায় কোরবানি দেওয়ায় চারদিকে রক্তের ছড়াছড়ির কারণেও পরিবেশ দূষিত হয়। অথচ একটু সচেতন থাকলেই পরিচ্ছন্ন থাকা সম্ভব।
কোরবানির পশু প্রতিপালন থেকে শুরু করে গোশত বিলিবণ্টন পর্যন্ত প্রতিটি ধাপেই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা প্রয়োজন। হাদিস আছে, ‘পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ।’
সুস্বাস্থ্যের জন্য পরিচ্ছন্নতার কিছু বিষয় মানতেই হবে এবং পরিষ্কার থাকতে হবে। না হলে পরবর্তী সময়ে এ কারণে স্বাস্থ্যসমস্যা হওয়ার আশঙ্কা থাকে। কোরবানির পশু জবাইয়ের আগে ও পরে কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়। তরুণদের এ বিষয়ে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে, নিজে সচেতন হতে হবে এবং অন্যকেও সচেতন করতে হবে। 
কোথায়-কীভাবে কোরবানি দেওয়া হবে, কোরবানির পর পরিবেশের আবর্জনা কীভাবে সরানো হবে, সে পরিকল্পনা আগে থেকেই করে রাখা প্রয়োজন। কাটাকাটি ও বিলিবণ্টনের সময়ও পরিচ্ছন্নতা জরুরি। এ বিষয়েও তরুণ সমাজের সহযোগিতা ও সচেতনতা জরুরি।
তরুণদের লক্ষ রাখতে হবে, নিজের সুবিধার জন্য সমাজের অন্য সবার অসুবিধার সৃষ্টি করা যেন না হয়। এজন্য নির্ধারিত স্থানে কোরবানি করতে হবে। নির্দিষ্ট স্থানে যেন যে-কোনো বর্জ্য ফেলা হয়। আবর্জনা ফেলার স্থান পর্যন্ত নেওয়ার জন্য শক্ত কাগজের ব্যবস্থা রাখতে হবে। অনেকে বাড়ির নিচে গোশত ভাগ করার কাজটি করেন। রক্ত গড়িয়ে যেন রাস্তায় না যায়, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। পাকা জায়গায় এবং রাস্তা থেকে দূরে কাজ করতে হবে। আরও খেয়াল রাখতে হবে, যেন খুব বেশি সময় ধরে সিমেন্টের মেঝেতে গোশত, রক্ত বা আবর্জনা রাখা না হয়। দীর্ঘসময় থাকলে এগুলো মেঝেতে শক্তভাবে আটকে যায়, এর জন্য ভুগতে হতে পারে ১ থেকে ২ সপ্তাহ। বৃষ্টির পানি বা কাদামাটি যেন গোশতে লেগে না যায়, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে।
যন্ত্রপাতির বিষয়েও সচেতনতা : যন্ত্রপাতির বিষয়েও সবাইকে সচেতন করতে হবে। পুরানো ছুরি ও মরিচা পড়া কাটাকাটির অন্যান্য সামগ্রী ব্যবহার করা যাবে না। নতুন জিনিসগুলোও পরিষ্কার করে নিয়ে ব্যবহার করতে হবে। বড় একটি পাত্রে পানি ফুটিয়ে নিতে হবে। পাত্রটি নামিয়ে এর মধ্যে সব সরঞ্জাম ৩০ সেকেন্ড থেকে ১ মিনিট পর্যন্ত ডুবিয়ে রাখতে পারেন। এভাবে সম্ভব না হলে গরম পানিতে পরিষ্কার করে নিতে হবে। এটাও সম্ভব না হলে অন্তত স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানিতে ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন।
পরিচ্ছন্নতা : গোশত ভাগবাটোয়ারা ও বিলিবণ্টনের সময় হাতে, শরীরের অন্যান্য অংশে, কাপড়ে ও ঘরের মেঝেতে রক্ত লেগে যেতে পারে। খেয়াল রাখতে হবে, খুব বেশি সময় পর্যন্ত যেন এভাবে রক্ত লেগে না থাকে। রক্ত বা আবর্জনা লেগে থাকলে পরবর্তী সময়ে এটি পরিষ্কার করতেও সমস্যা হয়। খাদ্যগ্রহণের সময় অস্বস্তি হতে পারে। তাছাড়া ডাক্তারের মতে, এসব খাবারের সঙ্গে পেটে চলে গেলে পেটের পীড়াও হতে পারে। এছাড়া মাছি, তেলাপোকাসহ অন্যান্য পোকামাকড় আকৃষ্ট হতে পারে; যেগুলো নানা অসুখের কারণ। এগুলো দীর্ঘসময় পর্যন্ত ত্বকে লেগে থাকলে চুলকানি এবং ত্বকের অন্যান্য সমস্যাও হতে পারে। তাই যত দ্রুত সম্ভব যে-কোনো সাবান দিয়ে ত্বক ভালোভাবে পরিষ্কার করে ফেলুন। প্রথমে সাবান দিয়ে পানিতে হাত পরিষ্কার করে নিতে হবে। সহজে পরিষ্কার না হলে কুসুমগরম পানি ও সাবান ব্যবহার করতে পারেন। পরিষ্কার করার পর ত্বক ভালোভাবে মুছে শুকনা করে ফেলতে হবে। চাইলে কাজ শুরুর আগে পাতলা গ্লাভস পরে নেওয়া যেতে পারে। মেঝে পরিষ্কার করতে কুসুমগরম পানি এবং জীবাণুনাশক ব্যবহার করা ভালো।
নিজেদের সুরক্ষা : কাটাকাটির কাজ সাবধানে করতে হবে। হাতের কাছেই রাখুন তুলা, ব্যান্ডেজ ও জীবাণুনাশক তরল বা ক্রিম। হাতের নখ ছোট রাখুন, নেইল পলিশ বা কৃত্রিম কোনো কিছু ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। কাজ করার সময় বড় নখ ভেঙে যেতে পারে, নখের কারণে আঙুলেও আঘাত পেতে পারেন। তরুণদের এসব বিষয়েও নজর রাখতে হবে।

সর্বশেষে কোরবানির পশুর বর্জ্য নিজের উদ্যোগে পরিষ্কার করাই ভালো। ফলে সারাদিন পর যখন বিকালে কিংবা সন্ধ্যার পর বেড়াতে বের হবেন, দেখবেন দুর্গন্ধহীন কত ফুরফুরে আমেজ চারদিকে। আমাদের সচেতনতাই পারে কোরবানির পরে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ বজায় রাখতে। আমরা যেন শুধু পশু কোরবানির মাধ্যমেই ত্যাগ শব্দটি সীমাবদ্ধ না রাখি। এই দিনের শিক্ষা যেন আমরা সারাজীবন ধরে রাখতে পারি।


ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ‘টিআইবি-ডিআইইউ ইয়েস
ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ
বিস্তারিত
চট্টগ্রামে ১০ দিনব্যাপী রবি-দৃষ্টির বিতর্ক
চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমি অডিটরিয়ামে রবি-দৃষ্টির আয়োজনে ১০ দিনব্যাপী বিতর্ক প্রতিযোগিতা
বিস্তারিত
ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে শীতকালীন সেমিস্টারের নবীনবরণ
নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে দেশের অন্যতম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, ইস্টওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয়
বিস্তারিত
ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্টে উচ্চশিক্ষা
মো. সাইফুল ইসলাম খান এইচএসসি পরীক্ষা শেষে মাথায় নতুন ভাবনাÑ কোন
বিস্তারিত
পড়তে চাইলে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ
আজকাল শিক্ষিত, উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্ত, অথবা নিম্নবিত্ত কারোর জীবনেই মিডিয়ার অনুপস্থিতি
বিস্তারিত
সম্ভাবনাময় বিষয় মাল্টিমিডিয়া অ্যান্ড ক্রিয়েটিভ
মো. সাইফুল ইসলাম খান মাল্টিমিডিয়া প্রযুক্তি ও সৃজনশীল আর্টসের মধ্যে সমন্বয়
বিস্তারিত