শিল্পকলা একাডেমিতে কবিতায় বঙ্গবন্ধু

দেশের বিশিষ্ট বাচিক শিল্পীরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে শ্রদ্ধা জানালেন তাদের দরাজ কন্ঠে দেড় ঘন্টাব্যাপী বঙ্গবন্ধুকে নিবেদিত বিভিন্ন কবির কবিতা আবৃত্তির মাধ্যমে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ৪৩তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ও বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ যৌথভাবে ‘কবিতায় বঙ্গবন্ধু : শ্রাবণের শোকগাথা’ শীর্ষক এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে গতরাতে অনুষ্ঠিত আবৃত্তি অনুষ্ঠানটি হলভর্তি দর্শক শ্রোতা উপভোগ করেন। এই শোকগাঁথা আবৃত্তি অনুষ্ঠানে দেশের খ্যাতিমান ও তরুণ ত্রিশজন বাচিক শিল্পী বঙ্গবন্ধুর ওপর কবিতা আবৃত্তি করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রবীণ আবৃত্তি শিল্পী ও অভিনেতা সৈয়দ হাসান ইমাম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে বলেন, বাঙালি জাতির স্বাধীনতাকে এনে দিয়েই শুধু বঙ্গবন্ধু থেমে থাকেননি, দেশকে তিনি সার্বিকভাবে গড়ে দিয়ে গেছেন। দেশের আর্থ-সামাজিক ও রাষ্টীয় জীবনের সবদিকেই তার দেশ গড়ার ছোঁয়া রয়েছে। ঘাতকরা তাঁকে হত্যা করে বাঙালির জীবন থেকে তাঁকে মুছে দিতে পারেনি। তার প্রমাণ হচ্ছে, বঙ্গবন্ধু জাতির জীবনে আজও প্রভূত সাহস যোগিয়ে যাচ্ছেন তাঁর কীর্তির মাধ্যমে।

স্বাগত ভাষণে আবৃক্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও বাচিক শিল্পী আহকামউল্লাহ বলেন, বাঙালি জাতির মহানায়ক বঙ্গবন্ধুর ওপর আমাদের কবিরা যত কবিতা লিখেছেন, তা উল্লেখ করার মত। কবিরা জাতির জনককে এতোটা ভালবাসেন তা তাদের কবিতায়ই উঠে এসেছে। তাঁর শাহাদাতবার্ষিকীতে নতুন প্রজন্মের মানুষের মাঝে এইসব কবিতা উপস্থাপানের জন্যই এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে আবৃত্তি করেন শিল্পী সৈয়দ হাসান ইমাম, আশরাফুল আলম, ভাস্বর বন্দ্যোপাধ্যায়, রূপা চক্রবর্তী, ডালিয়া আহমেদ, বেলায়েত হোসেন, গোলাম সারোয়ার, ইস্তেকবাল হোসেন, হাসান আরিফ, শিমুল ইউসুফ, মাহিদুল ইসলাম, এনামুল হক বাবু, মাশকূর-এ-সাত্তার কল্লোল, ফয়জুল আলম পাপ্পু, ড. শাহাদাৎ হোসেন নিপু, নায়লা তারান্নুম কাকলী, মীর মাসরুর জামান রনি, মাসুদুজ্জামান, মজুমদার বিপ্লব, মাসুম আজিজুল বাশার, আহসানউল্লাহ্ তমাল, মনিরুল ইসলাম, শিরিন ইসলাম, মিজানুর রহমান সজল, ঝর্না সরকার ও জামাল উদ্দীন হীরা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’এর ৪৩তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ২০১৮ উপলক্ষে শিল্পকলা একাডেমির মাসব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ ছাড়াও আর্টক্যাম্প, চিত্রকর্ম প্রদর্শনী, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, বঙ্গবন্ধুর উপর রচিত বইয়ের পাঠ ও পর্যালোচনা, কারাগারের রোজনামচা ও বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী থেকে পাঠ, কবিতায় বঙ্গবন্ধু ‘শ্রাবণের শোকগাঁথা, নৃত্যনাট্য-যতদিন রবে পদ্মা মেঘনা, ঢাকা থেকে টুঙ্গীপাড়া ‘শতবাউল শিল্পীদের শিল্পযাত্রা’ পথে পথে শ্রদ্ধাঞ্জলি, মহাপ্রয়াণের শোক আখ্যান নাটক ‘শ্রাবণ ট্রাজেডি’ এবং বাংলাদেশের ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধুর মহান সংগ্রাম জীবন-ভিত্তিক ঐতিহাসিক নাট্যালেখ্য ‘মুজিব মানে মুক্তি’ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের কর্মসূচি পালন করছে একাডেমি।


শত ভাবনার বিকাশে বাতিঘরে লেখক-পাঠক
‘দেশপ্রেমের পাশাপাশি পুরো মানবজাতির কল্যাণে বিশ্বপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হতে হবে। সবার
বিস্তারিত
প্রকাশিত হলো সুরাইয়া ইসলামের কাব্যগ্রন্থ
একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে তরুণ কবি সুরাইয়া ইসলামের কাব্যগ্রন্থ ‘দোলনা
বিস্তারিত
প্রকাশিত হলো কবি ফেরদৌস মাহমুদের
একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে কবি ফেরদৌস মাহমুদের কবিতার বই ‘পাখিরা
বিস্তারিত
‘বিকশিত হোক শত ভাবনা’ বইয়ের
তেত্রিশ গুণীজনের কথামালার সময়োপযোগী সংকলন গ্রন্থ ‘বিকশিত হোক শত ভাবনা’
বিস্তারিত
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিজ শহরে শায়িত কবি
আধুনিক বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান কবি আল মাহমুদকে রবিবার বিকালে
বিস্তারিত
কবি আল মাহমুদের জানাজা বায়তুল
কবি আল মাহমুদের জানাজা আজ শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বাদ জোহর
বিস্তারিত