নদী ও নদের গল্প

 

সরল রেখার মতো যে দাগ তুমি রেখে গেলে কুমার

ডিজিটাল যুগেও মানুষ সেই সরলে স্বপ্ন আঁকে খুব।

 

নদ বলে যে অহম তুমি দেখালেÑ

তীব্র ব্যথায় ছটফট করে হিসনা।

 

ইচা আর তিতপুঁটির ঝাঁক ঘন হয় হাঁটু জলে

জলকাদার ভেতর থেকে নিরালে যায় ফলি।

মাছেদের দ্বন্দ্ব লেগেই আছে বহু কাল ধরে

তারা নদী ও নদের মিলন চায় জলতৃষ্ণায়।

 

নদের পিছে ছুটছে নদী

কুমার কোথায় ধায়!

হিসনার এখন ভরা যৌবনÑ

গড়াই তার সিঁথির সিঁদুর দেয়।


আরব ছোটগল্পের রাজকুমারী
সামিরা আজ্জম ১৯২৬ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনের আর্কে একটি গোঁড়া
বিস্তারিত
অমায়ার আনবেশে
সাদা মুখোশে থাকতে গেলে ছুড়ে দেওয়া কালি  হয়ে যায় সার্কাসের রংমুখ, 
বিস্তারিত
শারদীয় বিকেল
ঝিরিঝিরি বাতাসের অবিরাম দোলায় মননের মুকুরে ফুটে ওঠে মুঠো মুঠো শেফালিকা
বিস্তারিত
গল্পের পটভূমি ইতিহাস ও বর্তমানের
গল্পের বই ‘দশজন দিগম্বর একজন সাধক’। লেখক শাহাব আহমেদ। বইয়ে
বিস্তারিত
ধোঁয়াশার তামাটে রঙ
দীর্ঘ অবহেলায় যদি ক্লান্ত হয়ে উঠি বিষণœ সন্ধ্যায়Ñ মনে রেখো
বিস্তারিত
নজরুলকে দেখা
আমাদের পরম সৌভাগ্য, এই উন্নত-মস্তকটি অনেক দেরিতে হলেও পৃথিবীর নজরে
বিস্তারিত